শনিবার ২ মার্চ ২০২৪ ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০

শিরোনাম: বেইলি রোডের অগ্নিকাণ্ডে সংবাদকর্মীর মৃত্যু    স্মরণকালের শ্রেষ্ঠ দাবানলে জ্বলছে টেক্সাস    ছাত্রদলেরে নয়া কমিটি ঘোষণা    বেইলী রোডে অগ্নিকান্ডে নিহতদের মধ্যে যাদের পরিচয় পাওয়া গেছে     নতুন মন্ত্রিসভায় ডাক পেলেন যারা    বেইলি রোডের আগুনে দগ্ধদের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী    বেইলি রোডে আগুন: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৫ জন   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
বরিশাল ২ আসনে শেরে বাংলার নাতি ফাইয়াজুল হক রাজুর মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: রোববার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২৩, ৬:৩৫ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল-২ (বানারীপাড়া-উজিরপুর) আসন থেকে শেরে বাংলা ফজলুল হকের নাতি এ কে ফাইয়াজুল হক রাজুসহ মোট ১২ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা করেছেন জেলা রিটার্নিং অফিসার। 

রোববার (৩ ডিসেম্বর) ১২ জনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে বৈধ বলে ঘোষণা করেছেন জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসার মো. শহিদুল ইসলাম।

মাঠপর্যায়ের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়- বিএনপি নির্বাচনের মাঠে না থাকায় বরিশাল-২ (বানারী পাড়া-উজিরপুর) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে শক্ত অবস্থানে আছেন শেরে বাংলার নাতি এ কে ফাইয়াজুল হক রাজু। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বহিরাগত হওয়ায় স্থানীয় আ. লীগের নেতাকর্মীরা অনেকটা ক্ষুব্দ। কাজেই এবারের ভোটে এ আসনের জনগণ স্বতন্ত্র প্রার্থীকে বেছে নেবেÑ এমন মন্তব্য করেন স্থানীয় সাধারণ মানুষ।

বরিশাল-২ সংসদীয় এলাকা বানারীপাড়া-উজিরপুর উপজেলা নিয়ে গঠিত। বরিশালের এ আসনটি ইতিহাস-ঐতিহ্যগতভাবে একটি গুরত্বপূর্ণ আসন। এক সময় দেশি-বিদেশি রাজনীতিবিদসহ সাধারণ মানুষ এ আসনে এসে ঘুরে যেত, রাজনীতির বিভিন্ন দীক্ষা নেওয়ার জন্য এখানে আসত অনেকেই। কিন্তু এ আসনে স্বাধীনতা পরবর্তী সময় থেকে এখন পর্যন্ত নেতৃত্বের শক্ত কোনো ভিত তৈরি হয়নি। শুধু ব্যক্তিস্বার্থে এখানের রাজনীতি আবর্তিত হয়েছে। তাই এ আসনে পর পর মেয়াদে দুই বার কেউ সংসদ সদস্য নির্বাচিত হননি।

জানা যায়, উপমহাদেশের রাজনীতির কিংবদন্তি ও বাঙালি জাতীয়তাবাদের অসংবাদিত নেতা শেরে বাংলার পুণ্যভূমি বানারীপাড়ার চাখারে। উপমহাদেশের অসাম্প্রদায়িক রাজনীতির বাতিঘর শেরে বাংলার পুণ্যভূমিতে এমন নেতৃত্বের দন্য দশা হবে- তা কোনোভাবে মেনে নিতে পারছে না স্থানীয় জনগণ। এ নিয়ে স্থানীয় জনগণ বার বার ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।



এখানকার প্রবীণরা আরো জানান, এ সংসদীয় আসনে শের-ই-বাংলা একটি আবেগের নাম। সামনের প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচনে জিততে হলে শের-ই-বাংলার এ আবেগ কাজে লাগাতে হবে। কোনোক্রমেই এখানকার মানুষ এ আবেগ বিসর্জন দিবেন না। কেউ  এ আবেগের বিপরীতে চললে তাও বরদাস্ত করবে না স্থানীয় জনসাধারণ।

সরেজমিনে ঘুরে স্থানীয় তরুণদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এখানকার তরুণদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু ও শের-ই-বাংলার আবেগ অনেক বেশি কাজ করে। তারা  এ পুণ্যভূমির সন্তান হিসেবে নিজেরা গর্ববোধ করে। আবার এ আসনের নেতৃত্বশূন্যতা দেখেও হতাশা ব্যক্ত করেন অনেকে। 

সাবেক কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতা হাবিব খান জানান, শের-ই-বাংলা আমাদের এ মাটির সন্তান। তাঁর রাজনীতি আমাকে রাজনীতি করার অনুপ্রেরণা দেয়েছে। জীবন সায়হ্নে এসে আমি বলতে পারি,  আমার এ রাজনৈতিক জীবনে বঙ্গবন্ধু ও শেরে বাংলা আমাকে সাহসিকতা শিখিয়েছে, আন্দোলন-সংগ্রামে নেতৃত্ব দিতে শিখেয়েছে। আমার এ দেহ বঙ্গবন্ধু ও শের-ই-বাংলার দ্বৈত সান্নিধ্য ও চেতনায় গঠিত। কিন্তু আজ কষ্ট লাগে শের-ই-বাংলার এ চারণভূমিতে নেতৃত্বশূন্যতা দেখে। শের-ই-বাংলা এ পলল ভূমিতে দক্ষ নেতৃত্বের ভিত তৈরি হবে- এমনটা আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

শেরে বাংলার উত্তরসূরি এ কে ফাইয়াজুল হক রাজু বলেন, এ অঞ্চলের মানুষ শের-ই-বাংলাকে এখনো এত ভালোবাসেন- তা দেখে সত্যিই আমি অভিভূত হই, বিস্মিত হই। এ প্রজন্মের কাছে শের-ই-বাংলার এখনো এতটা প্রিয় তা দেখে আমি গর্ববোধ করি। আমার পিতা এ কে ফায়জুল হক এ আসনে সংসদ সদস্য হয়ে মন্ত্রী হয়েছিলেন। তিনি অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে এ আসনের মানুষের জন্য নির্মোহভাবে কাজ করে গেছেন। নতুন প্রজন্মের রাজনীতিবিদ হিসেবে আমি এ আসনের সাধারণ মানুষের জন্য নির্মোহ ও নিরলসভাবে কাজ করতে চাই।  আমার বাবা ও দাদার রেখে যাওয়া স্রোতধারায় আমি আমার ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা সবসময় অব্যাহত রাখতে সচেষ্ট থাকব।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Vorer-pata-23-12-23.gif
http://www.dailyvorerpata.com/ad/bb.jpg
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Screenshot_1.jpg
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপ


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৪১০১০০৮৭, ৪১০১০০৮৬, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৪১০১০০৮৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৪১০১০০৮৫
অনলাইন ইমেইল: [email protected] বার্তা ইমেইল:[email protected] বিজ্ঞাপন ইমেইল:[email protected]