সোমবার ২২ এপ্রিল ২০২৪ ৮ বৈশাখ ১৪৩১

শিরোনাম: উড়োজাহাজ থেকে গাজায় ত্রাণ ফেলল জর্ডান    দুবাইয়ের বন্দরে পৌঁছেছে এমভি আবদুল্লাহ, নাবিকরা সুস্থ    তীব্র তাপপ্রবাহ চলবে যতদিন!    তাপপ্রবাহ : দেশের হাসপাতালগুলো প্রস্তুত রাখার নির্দেশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর    প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের তৃতীয় ধাপের ফল প্রকাশ    জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম থেকে খোকনকে অব্যাহতি    ইউক্রেন-ইসরায়েলকে সহায়তা দিতে মার্কিন পার্লামেন্টে বিল পাস   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
জামিনের দিনই কারাগার থেকে মুক্ত যুবলীগ নেতা হত্যা মামলার আসামি
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩, ৭:৩১ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

হাইকোর্টের দুটি বেঞ্চ থেকে জামিন না মিললেও ২০ দিনের মাথায় অবকাশকালীন বেঞ্চ থেকে জামিন পেয়েছেন আলোচিত যুবলীগ নেতা জামাল হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি মো. শাহীনুল ইসলাম ওরফে সোহেল সিকদার। জামিন পাওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যে আসামি কারাগার থেকে মুক্তি পায়।

যেদিন জামিন পেয়েছেন সেদিনই জামিন আদেশ অস্বাভাবিক দ্রুততার সঙ্গে পৌঁছে গেছে কুমিল্লার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে। জামিন আদেশ পৌঁছানোর পরই দাখিল করা হয়েছে জামিননামা। জামিননামায় স্বাক্ষরের পর তা পৌঁছে যায় কুমিল্লা কারাগারে। এরপরই বিকেলে মুক্তি পেয়ে যান হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি।



এদিকে হাইকোর্টের জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। আবেদনে মুক্তি পাওয়া আসামিকে গ্রেপ্তারে আদালতের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (৫ সেপ্টেম্বর) আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতে এ আবেদনের ওপর শুনানি হবে।

সোমবার (৪ সেপ্টেম্বর) এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মো. সারওয়ার হোসেন বাপ্পী বলেন, ২০ দিনের মধ্যে তিনটি বেঞ্চে জামিনের চেষ্টা। এর মধ্যে দুটি বেঞ্চ জামিন দেয়নি। তবে অবকাশকালীন বেঞ্চ থেকে জামিন হাসিল করেছে আসামির আইনজীবী।

তিনি বলেন, যে চতুরতার আশ্রয় নিয়ে জামিন আদেশ হাসিল করা হয়েছে তাতেই আমাদের আপত্তি। এছাড়া যে অস্বাভাবিক দ্রুততায় হাইকোর্টের জামিন আদেশ কারাগারে পৌঁছানো হয়েছে, তাতে মনে হচ্ছে প্রতিটি জায়গায় লোক প্রস্তুত করা ছিল। যার কারণে জামিন হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আসামি কারাগার থেকে মুক্তি পেয়ে গেল।

চলতি বছরের ৩০ এপ্রিল রাত ৮টার দিকে দাউদকান্দির গৌরীপুর পশ্চিম বাজার ঈদগাহ এলাকার মসজিদ গলিতে যুবলীগ নেতা জামাল হোসেনকে (৪০) গুলি করে হত্যা করে বোরকা পরিহিত দুর্বৃত্তরা। এ হত্যাকাণ্ডের দুই দিন পর ২ মে দিবাগত মধ্যরাতে ৯ জনের নাম উল্লেখ করে ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন নিহতের স্ত্রী পপি আক্তার। মামলার এজাহারভুক্ত আসামিদের মধ্যে সোহেল অন্যতম। যিনি তিতাস উপজেলার আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান। গত ৬ মে তাকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Vorer-pata-23-12-23.gif
http://www.dailyvorerpata.com/ad/bb.jpg
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Screenshot_1.jpg
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপ


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৪১০১০০৮৭, ৪১০১০০৮৬, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৪১০১০০৮৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৪১০১০০৮৫
অনলাইন ইমেইল: [email protected] বার্তা ইমেইল:[email protected] বিজ্ঞাপন ইমেইল:[email protected]