রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১০ আশ্বিন ১৪২৯

শিরোনাম: অপার সম্ভাবনার বাংলাদেশ গড়েছেন শেখ হাসিনা    জাতীয় নির্বাচন: ভোট দিতে লাগবে ১০ আঙ্গুলের ছাপ    করোনায় আর ৪ জনের মৃত্যু    বিদায়বেলায় অঝোরে কাঁদলেন ফেদেরার, অশ্রুসিক্ত নাদালও    তালাবদ্ধ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধ দম্পতির হাত-মুখ বাঁধা লাশ    জমিতে কাজ করার সময় বজ্রপাতে ২ কৃষকের মৃত্যু    চলন্ত ট্রেনে উঠতে গিয়ে প্রাণ গেল বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রের   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
শিমুলিয়া ঘাটে ভোর থেকে ঘরমুখী মানুষের ঢল
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: রোববার, ১ মে, ২০২২, ১০:২০ এএম আপডেট: ০১.০৫.২০২২ ১০:৩৫ এএম | অনলাইন সংস্করণ

মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে গত দুই দিনের মতো আজও সাহরির পর থেকে প্রচণ্ড যাত্রীর চাপ পড়েছে। দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের ২৩টি জেলার প্রবেশদ্বার শিমুলিয়া ঘাট। গত কয়েক দিনের তুলনায় এই ঘাটের যানবাহন ও যাত্রী পারাপারের চাপ বেড়েছে। ফেরি স্বল্পতায় দক্ষিণবঙ্গের ঘরমুখো মানুষের ভোগান্তি বেড়েছে। এতে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় ৮ শতাধিক ছোট বড় যানবাহন।


 মে দিবসে রবিবার (০১ মে) সকালেও ঢাকা ছাড়ার ঢল দেখা গেছে ঘাটগুলোতে। অন্যবারের চেয়ে এবারের ঈদযাত্রায় মোটরসাইকেলে আধিক্য দেখা গেছে সবখানেই।

ঘাটসূত্রে জানা গেছে, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার-মাঝিকান্দি নৌপথে ছোট-বড় মিলিয়ে ১০টি ফেরি দিয়ে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। পাশাপাশি রয়েছে ৮৫টি লঞ্চ ও ১৫২টি স্পিডবোট ও ৮টি ট্রলার।

ঢাকার হাজারীবাগ থেকে রওনা হয়েছেন আরাফাত রহমান, যাবেন খুলনা। রাজধানীতে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করার পাশাপাশি তিনি মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং করেন। নিজের মোটরসাইকেলেই স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে তিনি যাত্রায় বের হয়েছেন।

তিনি বলেন, আমরা যদি বাসে বা ভেঙে যাই, যেতে লাগবে ৩০০০ টাকা, আসতে ৩০০০ টাকা। মোটরসাইকেল নিয়ে বের হয়েছি, ৯০০ টাকার তেল ভরেছি। আশা করি এই টাকায় আমি বাড়িতে পৌঁছে যাব।

‘তবে ফেরিঘাটে এসে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে। এতসংখ্যক মোটরসাইকেল কীভাবে পার হবে, কখন পার হবে নির্দিষ্ট সময় বলতে পারছি না। সাড়ে পাঁচটা বাজে এসেছি, এখনও সিরিয়াল পাইনি। আমার আগে আরও তিনটি ফেরি ছেড়ে গেছে।’

লঞ্চের যাত্রী আবদুল হালিম বলেন, মিরপুর থেকে বাসে করে দেড় ঘণ্টায় মাওয়া ঘাটে এসেছি। লঞ্চে পাড়ি দেব। বরিশাল যাব। রাস্তায় কোনো সমস্যা হয় নাই, তবে লঞ্চঘাটে প্রচুর যাত্রী। অপেক্ষা করতে হয়নি অবশ্য, ঘাটে এসেই লঞ্চে উঠতে পেরেছি।

জাফর ইকবাল ঘাট পার হবেন স্পিডবোটে। তিনি বলেন, আমি বেসরকারি ইউনিভার্সিটির ছাত্র। বন্ধুর ব্যবসার কারণে আমাকে ঈদযাত্রায় একটু দেরি করে রওনা হতে হলো। আসতে অসুবিধা হয় নাই। তবে স্পিডবোটে পাড়ি দেব বলে দেড় শ টাকার টিকিট কেটেছি। পার হতে ২০ মিনিট সময় লাগবে। অপর প্রান্তে গেলে কিছু না কিছু পাব, সহজেই ফরিদপুরে পৌঁছাতে পারব।

ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে সপরিবারে ঘাটে এসেছেন সত্তার মুন্সি; যাবেন বরিশাল। তিনি বলেন, সেই ভোরে এসেছি, ৩ ঘণ্টায় একটুও এগোতে পারিনি। কখন ফেরি পাব ঠিক নাই। কর্তৃপক্ষের উচিত ছিল সংখ্যা বাড়ানো।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) শিমুলিয়া বন্দর কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন বলেন, সকাল থেকে প্রচণ্ড চাপ রয়েছে যাত্রীদের। স্পিডবোট ও লঞ্চঘাট এলাকায় পা ফেলানোর মতো জায়গা নেই। ভোর থেকে ১৫২টি স্পিডবোট ও ৮৫টি লঞ্চ দিয়ে যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে।



‘গার্মেন্টস বন্ধ হয়ে যাওয়াতে সাধারণ যাত্রী যারা বাসে, সিএনজিতে করে আসছেন, তাদের সংখ্যাটাই বেশি। তারাই লঞ্চে পারাপার হচ্ছেন। যাদের টাকা নিয়ে সমস্যা নাই তারা স্পিডবোটে যাচ্ছেন।’

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) জামাল হোসেন জানান, ভোর থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত কয়েক শত গাড়ি পারাপার হয়েছে। ঘাট এলাকায় ৮ শতাধিক যানবাহন থাকলেও মহাসড়কে এর প্রভাবে কোনো চাপ নেই।

তিনি বলেন, ১ নম্বর ফেরিঘাট দিয়ে শুধু মোটরসাইকেল পারাপার করছি। এই ঘাট শুধু মোটরসাইকেল পারাপারের জন্য নির্দিষ্ট করা হয়েছে। সকাল থেকে শুধু মোটরসাইকেল বহন করে ৪টি ফেরি ছাড়া হয়েছে। ঘাট এলাকায় যত মোটরসাইকেল, তাতে আরও দশটি ফেরি ছেড়ে গেলেও শেষ হবে না। মোটরসাইকেলের চাপই এবার ঈদযাত্রায় সবচেয়ে বেশি।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://dailyvorerpata.com/ad/apon.jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপ


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৪১০১০০৮৭, ৪১০১০০৮৬, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৪১০১০০৮৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৪১০১০০৮৫
অনলাইন ইমেইল: [email protected] বার্তা ইমেইল:[email protected] বিজ্ঞাপন ইমেইল:[email protected]