রোববার ২৩ জুন ২০২৪ ৯ আষাঢ় ১৪৩১

শিরোনাম: বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা    আ.লীগের প্রতিষ্ঠার প্লাটিনাম জয়ন্তীর ব্যানারে স্থান পেল জয় ও পুতুলের ছবি    পবিত্র কাবাঘরের চাবি সংরক্ষক ড. শায়খ সালেহ আল শাইবা ইন্তেকাল করেছেন    রাসেল’স ভাইপার নিয়ে জনগণকে আতংকিত না হওয়ার আহ্বান স্বাস্থ্যমন্ত্রীর    ভূমি নিয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স : ভূমিমন্ত্রী    বিশ্বব্যাংক থেকে ৯০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ পেলো বাংলাদেশ    জননিরাপত্তা এবং জনকল্যাণ নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় তথ্য ও দিকনির্দেশনা দিয়েছে পরিবেশ মন্ত্রণালয়   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
আলফাডাঙ্গায় দোয়াত-কলম সমর্থকদের হামলায় আহত আনারস সমর্থক
আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি
প্রকাশ: বুধবার, ৫ জুন, ২০২৪, ৪:৪৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর এক সমর্থকের ওপর হামলা চালিয়েছে দোয়াত-কলম প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর একদল সমর্থক।

উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের কামারগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বুধবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে ওই হামলার ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন মুছাব্বির হোসেন (৪১)। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। পরে থানা পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন মুছাব্বির।

জানা যায়, সকালে ভোট দিতে যান মুছাব্বির। ভোট দিয়ে ফেরার পথে কেন্দ্রের পার্শ্ববর্তী এলাকায় তার ওপর হামলা চালায় দোয়াত-কলম প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী বেলায়েত হোসেনের সমর্থকরা।

গোপালপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইনামুল হাসানের নেতৃত্বে অন্তত ডজনখানেক ব্যক্তি মুছাব্বিরকে প্রথমে গালিগালাজ করেন। পরে তাকে বেধড়ক মারধর করেন।



জানা গেছে, মুছাব্বির আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. তাহিদুর রহমান মুক্তর সমর্থক। আর তার ওপর হামলাকারীরা দোয়াত-কলম প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী বেলায়েত হোসেনের সমর্থক।

থানায় লিখিত অভিযোগে মুছাব্বির হামলাকারীদের কয়েকজনের নামোল্লেখ করেছেন। তারা হলেন—গোপালপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইনামুল হাসান, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সদস্য এবং বিএনপির সক্রিয়কর্মী তবিবর তালুকদার ওরফে তবিবর রহমান তবি, হাদী, শামীম, রফিকুল ও সেলিম।

মুছাব্বিরের অভিযোগ, হামলাকারীরা তার হাতঘড়ি ও প্যান্টের পকেটে ৩৫ হাজার টাকাসহ থাকা মানিব্যাগ নিয়ে যায়। এছাড়াও সেখানে তার বেশকিছু ব্যক্তিগত জরুরি কাগজপত্র ছিল।

এ বিষয়ে আলফাডাঙ্গা থানার ডিউটি অফিসার উপপরিদর্শক আনন্দ সরকার লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন জানিয়ে বলেন, ‘ওসি স্যারের নির্দেশনা মতো ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Vorer-pata-23-12-23.gif
http://www.dailyvorerpata.com/ad/bb.jpg
http://www.dailyvorerpata.com/ad/ADDDDDD.jpg
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপ


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৪১০১০০৮৭, ৪১০১০০৮৬, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৪১০১০০৮৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৪১০১০০৮৫
অনলাইন ইমেইল: [email protected] বার্তা ইমেইল:[email protected] বিজ্ঞাপন ইমেইল:[email protected]