শনিবার ২৫ মে ২০২৪ ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শিরোনাম: বাংলাদেশ ব্যাংকের নজর এড়িয়ে কীভাবে অর্থ পাচার হয়, প্রশ্ন দুদকের    চিকিৎসকরা অপ্রয়োজনীয় ওষুধ লিখছেন কিনা খতিয়ে দেখবে অধিদফতর    আনার হত্যাকাণ্ড তদন্তে কলকাতা যাচ্ছে ডিবির একটি টিম    সমুদ্রবন্দর সমূহে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত    শাহাদাত নামে নতুন জঙ্গি সংগঠনের খোঁজ পেয়েছে র‌্যাব    রেমালের ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে শনিবার রাত থেকেই মহাবিপদ সংকেত দেখানো হতে পারে    আইপিএল ফাইনালে নেই ভারতের বিশ্বকাপ দলের কোনো ক্রিকেটার   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
কারো মৃত্যুর পর সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টের কী করতে হয়?
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২৪, ১১:১৯ এএম | অনলাইন সংস্করণ

বিশ্বের কয়েকশ কোটি মানুষ সামাজিক মাধ্যম প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে। দিনের অনেকটা সময় কাটায় ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম স্ক্রোল করে। নিয়মিত ছবি, ভিডিও পোস্ট করে। সেগুলোর আবার লাইক, শেয়ার চেক করা হয়। এছাড়াও বন্ধুদের সঙ্গে চ্যাট করা হয় সারাক্ষণ। তবে অনেকের মনে প্রশ্ন আসে মৃত্যুর পর তার অনলাইনে উপস্থিতির কী হবে। অনেক সময় অ্যাকাউন্টের কী হবে তা ব্যবহারকারী নিজেই ঠিক করতে পারেন। কিন্তু বিষয়টি অনেকেই হয়তো জানেন না। এছাড়া স্বজন সামাজিক মাধ্যমকে ব্যক্তির মৃত্যু সম্পর্কে কিছু না জানানো পর্যন্ত তার অ্যাকাউন্ট সক্রিয় থাকে। ঘনিষ্ঠ আত্মীয় মৃত্যুর খবর জানালে কিছু সামাজিক মাধ্যম প্রোফাইল বন্ধ করে দেয়ার সুযোগ দেয়। আবার কিছু সামাজিক মাধ্যম দেয় ভিন্ন বিকল্প। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, মেটার মালিকানাধীন ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রামে ব্যক্তির মৃত্যু সনদপত্র দিলে হয় অ্যাকাউন্টটি ডিলিট করে দেয়া হয় অথবা মেমোরিয়ালাইজড করে দেয়া হয়। অর্থাৎ অ্যাকাউন্টটি একটি সময়ে আটকে যাবে এবং ব্যবহারকারীকে স্মরণ করবে। এ সময় অন্যরা অ্যাকাউন্টটিতে ছবি ও স্মৃতি পোস্ট করতে পারবে। মৃত ব্যক্তির অ্যাকাউন্টের নামের পাশে ‘ইন মেমোরিয়াম’ বা ‘স্মরণে’ লেখা থাকবে। কেউই ওই অ্যাকাউন্টে লগ ইন করতে বা চালাতে পারবে না, যদি না ব্যবহারকারী মৃত্যুর আগে কোনো ‘লিগ্যাসি কন্টাক্ট’ দিয়ে যায়।

সাধারণত পরিবারের কোনো সদস্য বা বন্ধুকে ‘লিগ্যাসি কন্টাক্ট’ হিসেবে দেয়া যায়। তারা মৃত ব্যক্তির একাউন্টের কন্টেন্ট পরিচালনা কিংবা ডিএক্টিভেটের (নিষ্ক্রিয়) অনুরোধ করতে পারে।  ফেসবুকে ‘পিপল ইউ মে নো’ বা ‘যাদের হয়তো আপনি চেনেন’ তালিকায় সম্ভাব্য ভার্চুয়াল বন্ধুদের কাছে মেমোরিয়ালাইজড অ্যাকাউন্ট দেখানো হয় না। আর মৃত ব্যক্তির বন্ধুদের কাছে তার জন্মদিনের কোনো নোটিফিকেশনও যায় না।

যেভাবে লিগ্যাসি কন্টাক্টের ফিচারের সুবিধা নিবেন

ফেসবুকের এ ফিচারটির সুবিধা পেতে হলে আপনাকে প্রথমে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। তারপর অ্যাপ থেকে ফেসবুকে গিয়ে ঠিক ডানদিনে প্রোফাইল পিকচারের ছবিটিতে ক্লিক করতে হবে। এরপর একদম নিচে প্রাইভেসি অ্যান্ড সেটিংস অপশনে যেতে হবে। সেখানে গিয়ে সেটিংস অপশনে ক্লিক করতে হবে।

সেখানে ক্লিক করার পর সেখানে বেশকিছু অপশন আসবে। সেখান থেকে অ্যাক্সেস অ্যান্ড কন্ট্রোল অপশনে ক্লিক করতে হবে। তারপর মেমোরিয়ালাইজেশন সেটিংসে গেলে ‘চুজ লিগেসি কন্টাক্টস’ অপশনটি আসবে।



সেখানে গিয়ে আপনি যার নামে অ্যাকাউন্টটি রেখে যেতে চান সার্চ অপশনে গিয়ে তার নাম লিখুন। এরপর ওই ব্যক্তির নাম আপনার স্ক্রিনে আসবে। সেখান থেকে আপনি তার নামে অ্যাকাউন্টটি করে দিতে পারবেন। তবে এটি করার জন্য ওই ব্যক্তিকে অবশ্যই আপনার ফেসবুক ফ্রেন্ড হতে হবে।

আপনি যখন কাউকে বেছে নেবেন তখন সঙ্গে সঙ্গে তার কাছেও একটি মেসেজ চলে যাবে। সেখানে লেখা থাকবে আপনি তাকে আপনার অবর্তমানে ফেসবুক অ্যাকাউন্টের দায়িত্ব দিয়ে যাচ্ছেন।

এদিকে এক্স (সাবেক টুইটার) একাউন্টের ক্ষেত্রে কারো প্রোফাইল মেমোরিয়ালাইজড করার সুযোগ নেই। সেক্ষেত্রে ব্যক্তির মৃত্যু হলে কিংবা একাউন্টের মালিক তা ব্যবহারে অক্ষম হলে অ্যাকাউন্টটি কেবল ডিএক্টিভেট করা যাবে।

ভোরের পাতা আর/এস

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Vorer-pata-23-12-23.gif
http://www.dailyvorerpata.com/ad/bb.jpg
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Screenshot_1.jpg
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপ


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৪১০১০০৮৭, ৪১০১০০৮৬, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৪১০১০০৮৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৪১০১০০৮৫
অনলাইন ইমেইল: [email protected] বার্তা ইমেইল:[email protected] বিজ্ঞাপন ইমেইল:[email protected]