বিশ্ব ইজতেমা: প্রয়োজনে সেনাবাহিনী থাকবে

  • ২৩-জানুয়ারী-২০১৯ ০৯:০৪ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

তাবলিগ জামাতের দুপক্ষের সমঝোতায় আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে। নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনে সেনাবাহিনী থাকবে।

বুধবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে তাবলিগ জামাতের বিবাদমান দুই পক্ষের তাবলিগ জামাতের মুরুব্বীদের সাথে বৈঠক শেষে এই তথ্য জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

প্রতি বছরের মতো এবারও ইজতেমাকে ঘিরে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়ে মন্ত্রী আরও বলেন, ইজতেমার নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনে সেনা সদস্য মোতায়েন করা হবে।

এসময় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী  শেখ মো. আব্দুল্লাহ বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে অনেক বিতর্ক হয়েছে, আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে। এগুলো তাবলিগের জন্য কলঙ্ক। এর থেকে আমরা মুক্তি পেয়েছি। দুই পক্ষ এক হয়েছেন। এখন আবার যথারীতি ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে।’

এর আগে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে দুইপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে বসেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। বৈঠকে মাওলানা সাদ আহমাদ কান্ধলভী ও মাওলানা জোবায়ের আহমেদ এর পক্ষের তাবলীগ জামাত নেতারা উপস্থিত ছিলেন। দুটি দলের নেতৃত্ব দেন ওয়াসিকুল ইসলাম ও মাওলানা জোবায়ের। দুই দলেই ১৬ থেকে ১৭ জন করে সদস্য বৈঠকে অংশ নেন।

এছাড়া সরকারের পক্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছাড়াও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ, স্বরাষ্ট্র সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ, ধর্ম সচিব মো. আনিছুর রহমান, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের প্রধান বেনজির আহমেদ, আইজিপি ড. জাবেদ পাটোয়ারী উপস্থিত আছেন।

 

/কে 

 

Ads
Ads