ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বাজপেয়ীর মৃত্যু

  • ১৬-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার ভারতীয় সময় বিকেল ৫টা ৫ মিনিটে মারা যান বলে মেডিকেল বুলেটিনে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

মৃত্যকালে ভারতের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ডায়বেটিস ও কিডনি জটিলতায় ভুগছিলেন। তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বাজপেয়ী রাজনীতিবিদের পাশাপাশি কবিও ছিলেন।  হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, বাঁচার কোনো সুযোগ না থাকায়, মেডিকেল বোর্ড গঠন করে তাঁর লাইফ সাপোর্ট খুলে ফেলা হয়।  

নয়া দিল্লি অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্স (এমস) বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, দুর্ভাগ্যজনক ভাবে গত ২৪ ঘণ্টায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। তাকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছিল। ২০০৯ সালে স্ট্রোক হওয়ার পর থেকে তাঁর স্মৃতিশক্তিও অনেকটাই লোপ পায়। কিডনি, মূত্রনালী এবং বুকে সংক্রমণের জন্য গত ১১ জুন এমস-এ ভর্তি হন।

হঠাৎ করে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে তার। এই খবর পেয়ে বুধবার সন্ধ্যায় এমস হাসপাতালে ছুটে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বাজপেয়ীর শারীরিক পরিস্থিতির খোঁজখবর নেন তিনি।

১৯৯৬, ১৯৯৮ ও ১৯৯৯ সালে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন অটলবিহারী বাজপেয়ী। প্রথম দফায় ১৩ দিন, দ্বিতীয় দফায় ১৩ মাস আর তৃতীয় দফায় পূর্ণ সময়ের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ভারতের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

বাজপেয়ীর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই দলমত নির্বিশেষে শোকপ্রকাশ করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতানেত্রীরা। কট্টর বিজেপি বিরোধীদের কাছেও অত্যন্ত জনপ্রিয় ছিলেন শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জির শিষ্য তথা স্বাধীনতা সংগ্রামী অটলবিহারী বাজপেয়ী। ১৯৯৬ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত ভারতের প্রধানমন্ত্রী পদে তিনবার নির্বাচিত হয়েছিলেন বাজপেয়ী। এরপর ১৯৯৯–২০০৪ সাল পর্যন্ত প্রথম অকংগ্রেসি প্রধানমন্ত্রী হিসাবে পাঁচ বছর পূর্ণ করেন। ১৯২৪ সালে ২৫ ডিসেম্বর গোয়ালিয়রে জন্ম বাজপেয়ির। পরে আর এস এস-এ  তিনি যোগ দেন। ভারত ছাড়ো আন্দোলনে যোগ দেওয়ায় ব্রিটিশ আমলে তাকে কারাবাসেও যেতে হয়েছিল। প্রায় চার দশকের এই সাংসদ ছিলেন ভারতের প্রথম অকংগ্রেসি প্রধানমন্ত্রী যিনি পুরো পাঁচ বছরের মেয়াদ সম্পূর্ণ করেছিলেন। ১৯৯৬ সালে তিনি প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন। এরপর ১৯৯৮ ও ১৯৯৯ সালে ফের প্রধানমন্ত্রী হন। প্রথম দফায় ১৩ দিন, দ্বিতীয় দফায় ১৩ মাস ও পরে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পুরো মেয়াদ সম্পূর্ণ করেন। ২০১৪ সালে তাঁকে ভারতরত্ন সম্মানে ভূষিত করা হয়।

Ads
Ads