সাহসী সিদ্ধান্ত নেওয়ায় অভিনন্দন আরিফুর রহমান দোলন

  • ১১-Nov-২০১৯ ০৯:২৬ অপরাহ্ন
Ads

:: হাবিবুল্লাহ ফাহাদ ::

একটি উজ্জ্বল ও বর্ণাঢ্য পেশাগত সাংবাদিকতার ক্যারিয়ার রয়েছে দৈনিক ‘ঢাকা টাইমস’, ও সাপ্তাহিক ‘এই সময়’-এর সম্পাদক আরিফুর রহমান দোলনের। ‘প্রথম আলো’, ‘বাংলাদেশ প্রতিদিন’ কিংবা ‘আমাদের সময়’-এ দায়িত্বপূর্ণ বিভিন্ন পদে থাকাকালীন তাঁর লেখনীতে সমাজের নানা অসংগতি অনায়াসে যেমন উন্মোচিত হয়েছে, তেমনি সারা দেশ ঘুরে গডফাদার, জঙ্গিবাদের সুলুক সন্ধান তিনি করেছেন সাহসিকতার সঙ্গে। বারবার ঝুঁকি নিয়েছেন দুই দশকের বেশি সময়ের এই পেশাগত জীবনে। 

নিজেকে নিয়ে সব সময় পরীক্ষা-নিরীক্ষাও আরিফুর রহমান দোলনের বিশেষ বৈশিষ্ট্য। নিশ্চিত, সম্মানজনক ও নির্ভার পেশাগত জীবন ছেড়ে নতুন সৃষ্টির নেশায় গড়ে তোলেন গণমাধ্যম ‘ঢাকা টাইমস’ ও ‘এই সময়’। প্রতিষ্ঠা করেন প্রকাশনা সংস্থা এই সময় পাবলিকেশন্স। তার এসব প্রতিষ্ঠানে শতাধিক গণমাধ্যমকর্মী কাজ করছেন পেশাগত সন্তুষ্টি নিয়ে। প্রতিষ্ঠানগুলো যাতে স্বচ্ছন্দে চলতে পারে তার জন্য তিনি যুক্ত হয়েছেন ব্যবসা-বাণিজ্যেও। সর্বোপরি সমাজ পরিবর্তন আর সমাজকল্যাণের নেশায় গত কয়েক বছর ধরে নিরন্তর কাজ করছেন তৃণমূল স্তরের সাধারণ মানুষের সঙ্গে। 

রাজনীতিতে নাম লিখিয়েছিলেন ঢাকা কলেজে উচ্চমাধ্যমিক পড়াকালীনই, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ভাস্বর ছাত্রলীগের একজন কর্মী হয়ে। পরবর্তীকালে জন্মস্থান ফরিদপুরের তৃণমূল স্তরের মানুষের সেবায় ব্রতী হন। আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী, মধুখালীতে (ফরিদপুর-১) আওয়ামী লীগের একজন কর্মী হিসেবে নাম লেখান। একপর্যায়ে বাংলাদেশ কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি এবং ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যপদে অভিষিক্ত হন।

প্রিয় সম্পাদক আরিফুর রহমান দোলন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কৃষক লীগের নতুন কমিটিতে নতুন করে সহ-সভাপতি হবেন না। নতুন কমিটিতে থাকতে ইচ্ছুকদের কাছে সিভি (জীবনবৃত্তান্ত) চেয়েছিলেন নতুন সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক। আরিফুর রহমান দোলন আগ্রহ দেখাননি। তাঁর এই সিদ্ধান্তে ব্যক্তিগতভাবে আমি খুবই খুশি।
আরিফুর রহমান দোলনের যে পেশাগত ক্যারিয়ার তাঁর সঙ্গে কৃষক লীগের সহ-সভাপতি পদটি আসলে সঙ্গতিপূর্ণ ছিল না। অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার জন্য বারবার পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। স্বনামেই তিনি যথেষ্ট খ্যাতি অর্জন করেছেন এবং একটি অবস্থান তৈরি করেছেন। নতুন করে কৃষক লীগের সহ-সভাপতি হওয়ার কোনো প্রয়োজন তাঁর নেই।

পেশাগত কাজের মাধ্যমে সমাজ আর দেশের কাজে আরও এগিয়ে যান প্রিয় সম্পাদক আরিফুর রহমান দোলন। সব সময় এই কামনা। সাহসী সিদ্ধান্ত নেওয়ায় তাঁকে অভিনন্দন আবারও।

Ads
Ads