১৮ বছর পর অস্ত্র মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন সেই বৃদ্ধা

  • ৩০-Oct-২০১৯ ০২:৪৯ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

মামলা থেকে অব্যাহতি পেতে দেড় যুগের মতো আদালতের বারান্দায় ঘোরার পর অব্যাহতি পেয়েছেন ৯০ বছর বয়সী বৃদ্ধা রাবেয়া খাতুন।

বুধবার (৩০ অক্টোবর) সকালে বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি মো. রিয়াজ উদ্দিন খানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ তাকে মামলাটি থেকে অব্যাহতি দেয়।

এর আগে তেজগাঁও থানায় করা মামলটি ১৮ বছর ধরে চলমান থাকায় নিম্ন আদালতের নথি তলব করেন হাইকোর্ট।

পাশাপাশি মামলাটির বিচারকাজে দেরি করাকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করে আদালত। সেই রুলের শুনানি করে আদালত আজ এই আদেশ নেয়।

গত ২৫ এপ্রিল একটি জাতীয় দৈনিকে ‘অশীতিপর রাবেয়া: আদালতের বারান্দায় আর কত ঘুরবেন তিনি’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে তা সংযুক্ত করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়।

ওই প্রতিবেদনে বৃদ্ধার বরাত দিয়ে বলা হয়, ‘১৮ বছর ধরে আদালতে হাজিরা দেই। মামলা শেষ হয় না। কবে শেষ হবে, তাও জানি না। পুলিশকে শরবত, মোরব্বা বানিয়ে খাওয়াইছি। তারপরেও মামলায় আমারে আসামি বানাইছে। আমি আর বাঁচতে চাই না। মরতে চাই। অনেক দিন ধরে এই মামলায় হাজিরা দেই। আদালত আমাকে মামলা থেকে খালাসও দেন না, শাস্তিও দেন না।’

পত্রিকায় প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, অবৈধ অস্ত্র ও গুলি নিজ নিজ হেফাজতে রাখার অপরাধে তেজগাঁও থানার এসআই আবদুর রাজ্জাক বাদী হয়ে রাবেয়া খাতুনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলাটি করেছিলেন ২০০২ সালের ২ জুন।

মামলা নম্বর ১৯৩৮/০২। এরপর তিনি গ্রেপ্তার হন। ছয় মাস কারাগারে থেকে জামিনও পান। পরে তাকেসহ দুই আসামি জুলহাস ও মাসুদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে ২০০৩ সালের ২৪ মার্চ শুরু হয় মামলার বিচার। তেজগাঁও থানা এলাকার ৩/ক গার্ডেন রোড, কাজী আবদুল জাহিদের ঘরের দক্ষিণ পাশ থেকে গ্রেপ্তার করা হয় রাবেয়া খাতুনকে। গ্রেপ্তারের সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও ছয় রাউন্ড গুলি উদ্ধারের দাবি করে পুলিশ। সেই মামলা থেকে মুক্তি পেতে ঢাকার আদালতের বারান্দায় ১৮ বছর ধরে ঘুরেন এই বৃদ্ধা। প্রায় দেড় যুগ পর বুধবার তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়েছে হাইকোর্ট।

Ads
Ads