মঙ্গলবার থেকে ৭২ ঘণ্টার সিএনজি ধর্মঘট

  • ১৪-Oct-২০১৯ ০৪:১২ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ঢাকা মহানগর সিএনজি অটোরিকশা মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ ভাড়া বৃদ্ধিসহ বেশ কয়েকটি দাবিতে ৭২ ঘণ্টা ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। আগামীকাল মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) থেকে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত এই ধর্মঘট চলবে।

রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এই ধর্মঘটের ঘোষণা দেন সংগঠনটির নেতারা।

তাদের দাবিগুলো হলো- রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের অনুমোদনপ্রাপ্ত গাড়ির তালিকা ট্র্যাফিক পুলিশের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা, প্রথম দুই কিলোমিটারে ভাড়া ৮০ টাকা, পরবর্তী প্রতি কিলোমিটারে ৩০ টাকা, ওয়েটিং চার্জ প্রতি মিনিট ৪ টাকা করা এবং মালিকের দৈনিক জমা আনুপাতিক হারে বাড়ানো।

অটোরিকশা মালিক-শ্রমিকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ১৫ হাজার ৬৯৬টি ভাড়ায় চালিত সিএনজি অটোরিকশা ঢাকা মহানগরীতে বাণিজ্যিকভাবে চলাচলের অনুমতি রয়েছে। প্রাইভেট সিএনজি অটোরিকশা অবৈধভাবে ভাড়ায় পরিচালনা, ঢাকা জেলা, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, মানিকগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জ জেলার সিএনজি অটোরিকশাসহ আরও ১৫ হাজার সিএনজি অটোরিকশা অবৈধভাবে ঢাকা মহানগরীতে চলাচল করছে। অবৈধভাবে চলাচল করা গাড়ির মালিক পুলিশ সার্জেন্ট ও তাদের আত্মীয়-স্বজন এবং অবৈধ ব্যবসায়ীরা।

অবৈধ গাড়ি থেকে মাসোহারার ভিত্তিতে কোটি কোটি টাকা পুলিশ সার্জেন্টরা হাতিয়ে নিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন অটোরিকশা মালিক-শ্রমিকরা।

তাদের অভিযোগ, বৈধ গাড়ি রাস্তায় প্রতিনিয়ত নানান অজুহাতে চালকদের নামে মামলা, গাড়ির কাগজের উপর মামলা, কেস স্লিপের ওপর মামলা, স্টিল এর গ্রিল, বাম্পার রং করার নামে মামলা, সামনে মটরগার্ডের ওপর বাম্পারের জন্য মামলা, অহরহ ভিডিও মামলাসহ অসংখ্য ধরনের মামলা ও রেকারিং প্রতিনিয়ত চলছে।

এ ছাড়া রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের নামে ওভাই, পাঠাও, উবার ইত্যাদি কোম্পানির অবৈধ গাড়ি চালনা, চারবার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি হলেও সিএনজি অটোরিকশার ভাড়া বৃদ্ধি না হওয়া, চালকদের লাইসেন্স নবায়নে পুনরায় ব্যবহারিক পরীক্ষার নামে উৎকোচ গ্রহণ ও চালক হয়রানিসহ সুপরিকল্পিতভাবে এই খাতকে ধ্বংসের দিকে নেয়া হয়েছে।

সংগঠনটির সভাপতি সোহেল রানাসহ সিএনজি মালিক ও শ্রমিক নেতারা এই মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন।

 

/কে 

Ads
Ads