বুয়েট ছাত্র হত্যায় অপরাধী যেই হোক, আইনগত ব্যবস্থা: কাদের

  • ৭-Oct-২০১৯ ০২:০৮ অপরাহ্ন
Ads

 

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার বিষয়ে তদন্ত চলছে জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তদন্তে যারাই অপরাধী সাব্যস্ত হবে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। আইন নিজস্ব গতিতে চলবে।

সোমবার (৭ অক্টোবর) সচিবালয়ের সম্মেলন কক্ষে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

বুয়েটে একজন শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে -এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ওবায়দুল কাদের বলেন, দেখুন এটা আমি শুনেছি, এটা আমি জানি। একটু আগে পুলিশের আইজির সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তিনি জিজ্ঞাসা করেছেন। আমি তাকে বলেছি, আপনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিষয়টা আলাপ করতে পারেন।

তিনি বলেন, আমি যতটুকু বুঝি, এখানে ভিন্নমতের জন্য একজন মানুষকে মেরে ফেলার কোনো অধিকার কারও নেই। কাজেই এখানে আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। তদন্ত চলছে, তদন্তে যারাই অপরাধী বলে সাব্যস্ত হবে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে, পারসোনালি আমি বলেছি- এখানে আমার কোনো ভিন্ন মত নেই।

কাদের বলেন, অপরাধী যেই হোক, আইন নিজস্ব গতিতে চলবে। প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে দেশ বিক্রিও তো বলে ফেলছে বিএনপি, তাই বলে বিএনপি নেতাদের কী আমরা মেরে ফেলব? কোনো আবেগ ও হুজুগে কারা (আবরার ফাহাদকে হত্যা) করেছে, তাদের অবশ্যই খুঁজে বের করতে হবে এবং সেই তদন্ত চলছে।

সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের সঙ্গে আমাদের দলের শুদ্ধি অভিযানের কী সম্পর্ক, তা আমার বোধগম্য নয়।

সম্রাটকে ধরতে দেরি হওয়ার কারণ জানতে চাইলে কাদের সাংবাদিকদের বলেন, সম্রাটকে ধরতে কেন দেরি হয়েছে তা র‌্যাবের ডিজি বলেছেন। সম্রাট হয়তো ভারতে পালিয়ে যাওয়ার জন্যই কুমিল্লায় আশ্রয় নিয়েছিলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, গরম খবর চলতেই থাকবে। ১৫ দিনেই কি সব খবর পেতে চান? আমরা যা বলেছি তা শুধু মুখেই না, কাজেও দেখিয়েছি। যারা কালপ্রিট তাদের কোনও ছাড় নেই।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর সম্পর্কে সাংবাদিকদের ওবায়দুল কাদের বলেন, কিছু পেতে হলে কিছু দিতে হয়ে। আমরা তো এনেছি, আমাদের পাওয়ার বিষয়টি অনেক বেশি। সীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়ন হয়েছে ৬৮ বছর পর এবং সেটি বাস্তবায়ন করেছে শেখ হাসিনা ও মোদি সরকার। সম্পর্ক ভালো থাকলে অনেক কিছু পাওয়া যায়। বৈরী সম্পর্ক থাকলে কিছুই পাওয়া যায় না। যা অতীতে হয়েছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, তিস্তা চুক্তিও সম্পন্ন হবে। তবে এক্ষেত্রে ভারতের ইন্টারনাল বিষয় রয়েছে। সেখানে ঐকমত্যের সমস্যা আছে। তবে এ ব্যাপারে ভারত সরকারের আন্তরিকতার ঘাটতি নেই।

সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, যুবলীগের সম্মেলন হচ্ছে। একই সঙ্গে নভেম্বরের মধ্যে কৃষক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও শ্রমিক লীগের সম্মেলনও হবে। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মৌখিক নির্দেশনা পেয়ে সংগঠনগুলোর কাছে সম্মেলন করতে আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দিয়েছি।

কমিটিতে এবারও ৭২ বছরের বৃদ্ধরা পদ পাবেন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বয়সের বিষয়টি গঠনতন্ত্রে উল্লেখ আছে। গঠনতন্ত্র ফলো করলে বয়স নিয়ে কোনও সমস্যা থাকবে না।

কমিটিতে এবার কোনও পরিবর্তন আছে কিনা জানতে চাইলে সেতুমন্ত্রী বলেন, পরিবর্তন নির্ভর করে নেত্রীর মাইন্ড সেটের ওপর। তিনি যদি চান, তাহলে পরিবর্তন হবে। নির্দেশনা দেওয়ার আমি কেউ নই। ওপর মহল থেকে নির্দেশনা আসে, আমি সেই নির্দেশনা ফলো করি।

Ads
Ads