মোংলায় পন্যে পাটজাত মোড়ক না থাকায় ভ্রাম্যমান আদালত

  • ২৩-Sep-২০১৯ ০৯:৩৪ অপরাহ্ন
Ads

:: মোংলা প্রতিনিধি ::

মোংলায় বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে বেশ কয়েকটি দোকেন জরিমানা করেছে নির্বাহী মেজিস্ট্রেট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রাহাত মান্নান। সোমবার দুপুরে বাজারের বিভিন্ন এলাকায় পন্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামুলক করার সরকারী আইন শতভাগ বাস্তাবায়নের জন্য এ ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জোরদারকরনে দোকানীদের জরিমানা করা হয়। মোংলা পৌর শহরের বাজার গুলোতে বেশীর ভাগ দোনেই পন্যে পাটজাত মোড়ক ব্যাবহার হচ্ছেনা। সরকারের নির্দেশনা থাকা সত্যেও কোন দোকানদার তা মানছেন না বলেই ভ্রাম্যমান আদলতে নেমেছে উপজেলা প্রসাশন।

এদিন দুপুরে প্রথমে কাচা বাজার এলাকায় অভিযান চালায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রাহাত মান্নান। এসময় প্রথমবারেরমত ৫টি দোকানে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালতের কথা বাজারের অনেক দোকানীরা তাদের ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে চলে যেতে দেখা গেছে। এছাড়া চিনি,ডাল,আটা,ময়দা,তুষ-খুদ-কুড়া,পল্টিফিড ও ফিস ফিড উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হাইকোটে আবেদন করলে এ সকল পন্যের পাটজাত ব্যাবহার ছাড়া অন্য সকল পন্যে পাটজাত ব্যাবহার করা বাধ্যতামুলক করেছে সরকার। তাই বাজারের সকল ব্যাবসায়ীদেরকে ধান, চাল, গম, ভুট্রা, সার, মরিচ, হলুদ, পেয়াজ, আদা, রসুন, ধনিয়া ও আলু পন্যের প্যাকেটজাত করনে বাধ্যতা মুলক বলে জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

তিনি সকলের উদ্যেশে বলেন, সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক পাটজাত পন্য ব্যাবহারে অভিযান শুরু হয়েছে। তাই প্রথমবারের মতো সকলকে অবহিত করা হলো। কিন্ত এর পরেও যদি কেউ ৭টি পন্য ব্যাতিত অন্য পন্যে বিক্রয়, বিতারন বা সরবারহ করনে পাটজাত মোড়কজাতকরন ব্যাবহার করা না হয় তবে সরকারী নিতিমালা অনুযায়ী অনধিক ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায় এক বছরের কাড়া দন্ড বা উভয়দন্ডে দন্ডিত বিধান রয়েছে। এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রাহাত মান্নান ছাড়াও পাট অধিদপ্তরের খুলনা বিভাগের মুখ্য পরিদর্শক সরজিত সরকারসহ উপজেলা কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। 

Ads
Ads