মোংলায় যৌতুক না পেয়ে শাশুরীকে নির্যাতন

  • ২৩-Sep-২০১৯ ০৯:৩০ অপরাহ্ন
Ads

:: মোংলা প্রতিনিধি ::

যৌতুক না দেয়ার কারনে গৃহবধুকে নির্যাতনে বাধা দেয়ায় শাশুরী নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এঘটনার প্রতিবাদ করায় শশুরের দোকন ভাংচুর করে এবং কলেজ পড়–য়া শ্যালীকাকেও মেরে রক্তাক্ত জখম করেছে মাদক সেবী ওই যুবক। পৌর শহরের সিগনাল টাওয়ার এলাকায় দিনমজুর পিতা ইসমাইল গাজী’র বসতঘরে এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। এব্যাপারে থানায় অভিযোগ দাখিল হলেও কোন ব্যাবস্থা নিচ্ছে না পুলিশ বলে জানায় নির্যাতিতা গৃহবধু শাহানাজ বেগম। 

থানার অভিযোগ সুত্রে ও গৃহবধু জানায়, শহরের কেওড়াতলা এলাকার রহমান মোল্লার ছেলে মিঠুর সাথে প্রায় ৫ বছর আগে সিগনাল টাওয়ার এলাকার মোঃ ইসমাইল গাজীর মেয়ে শাহানাজের সাথে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ৯ মাসের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকে মাদকসেবী স্বামী মিঠু মোল্লা।

গৃহবধু শাহানাজের বাবার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা আনার জন্য গত ১০দিন আগে তাকে ঘর থেকে বের করে দেয় স্বামী মিঠু। গৃহবধু বাবার বাড়ী বসবাস করা অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে মদ্যপান অবস্থায় স্বামী ও দেবরসহ তাদের ৫/৭ জনের একদল সন্ত্রাসীরা মিলে শশুরের ঘরে প্রবেশ করে এবং স্ত্রী শাহনাজকে মারতে থাকে। এসময় শাশুরী বাধা দিলে তাকেও বেধরক মাধর করে রক্তাক্ত জখম করে মিঠু মোল্লাসহ অন্যান্য লোকজন। দোকানে বসা শশুর ও কলেজ পড়–য়া শ্যালীকা এর প্রতিবাদ করলে সকলে মিলে দোকান ভাংচুর করে এবং মেরে রক্তাক্ত জখম করে। শাহনাজের ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে আসলে স্বামী মিঠু মোল্লাসহ সকলে দ্রুত পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা স্ত্রী শাহানাজ বেগম, মা সোনাবানু বেগম ও ভাইয়ের ছেলে রিয়ান (৫)কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেকে ভর্তি করে।

এঘটনায় স্বামী মিঠু মোল্লা (২৭), রাসেল মোল্লা (২০),টিটু মোল্লা (২২) ও রহমান মোল্লা (৫৫) কে অভিযুক্ত করে থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে। এদিকে সন্ত্রাসীরা প্রতিনিয়ত নুসরাতের মত ঘটনা করার হুমকিতে কলেজ ছাত্রী মুন্নি আক্তার কলেজে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। এব্যাপারে মোংলা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শ শুধাংশ জানায়, সিগনাল টাওয়ার এলাকার গৃহবধু শাহানাজ বেগম বাদী হয়ে স্বামী,শশুর ও দেবরসহ ৪ জনকে অভিযুক্ত করে একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে। তদন্ত চলছে, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে। 

Ads
Ads