উত্তেজিত নানক মিসবাহকে বললেন : মানুষ মারতে মারতে বরিশাল থেকে আইছি, তুই ক্যাডা রে?

  • ১৮-Aug-২০১৯ ০৬:৩০ অপরাহ্ন
Ads

উৎপল দাস

টানা তৃতীয় বারের মতো ক্ষমতায় থাকা দেশের স্বাধীনতা এনে দেয়া রাজনৈতিক দলের নাম বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। টানা ক্ষমতায় থাকায় দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের মধ্যেও অহংবোধ প্রবেশ করেছে রন্ধ্রে রন্ধ্রে। এরই ধারাবাহিকতায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত শোক সভায় চেয়ারে বসাকে কেন্দ্র করে দলের প্রভাবশালী দুই নেতার মধ্যে উত্তেজিত বাক্য বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। ১৬ আগস্ট বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত শোক দিবসের আলোচনা সভায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা প্রতক্ষ্যদর্শী হিসাবে ভোরের পাতাকে নিশ্চিত করেছে। 

প্রতক্ষ্যদর্শী সূত্র জানিয়েছে, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজের মধ্যে চেয়ারে বসা নিয়ে এ ঘটনার সূত্রপাত হয়। এক পর্যায়ে নানক উত্তেজিত হয়ে মিসবাহকে উদ্দেশ্য করে বলেই বসেন,  মানুষ মারতে মারতে বরিশাল থেকে ঢাকা আইছি, তুই ক্যাডা রে? সিলেট থেকে ঢাকায় ঢুকতেই পারবি না।' এ সময় জাহাঙ্গীর কবির নানক উত্তেজিত হলেও মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ জ্বি ভাই, জ্বি ভাই বলতে থাকেন নরম সুরেই। 

এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে জাহাঙ্গীর কবির নানককে ভোরের পাতার এ প্রতিবেদক রোববার সন্ধ্যা ঠিক ৬ টায় ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেন নি। এমনকি পরে কল ব্যাকও করেননি। এছাড়া মিসবাহ উদ্দিন সিরাজকেও কল করা হলেও তিনি ধরেননি। তবে আওয়ামী লীগের দুই নেতার কাছেই এ প্রতিবেদকের ব্যাক্তিগত নম্বরটি সংরক্ষিত রয়েছে। 

উল্লেখ্য, জাহাঙ্গীর কবির নানক ও মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ দুইজনই আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী ও ত্যাগী নেতা। বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রতি আনুগত্যের পরীক্ষায় দুজনই উর্ত্তীণ হয়েছেন বহু আগেই। জাহাঙ্গীর কবির নানক ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক থেকে শুরু করে যুবলীগের চেয়ারম্যান ছিলেন। বর্তমানে তিনি আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও আগামী সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী বলে জানা গেছে। এছাড়া মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ তিনবারের আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তবে তার বিরুদ্ধে সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিতর্কিত ভূমিকা রাখার অভিযোগ রয়েছে বলেও জানা গেছে।  

Ads
Ads