শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের চার দালালের কারাদন্ড

  • ২৫-Jul-২০১৯ ০৮:২০ অপরাহ্ন
Ads

:: শরীয়তপুর ব্যুরো ::

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে একজন নারীসহ ৪ দালালকে গ্রেফতার করেছে পালং মডেল থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টায় ঝটিকা অভিযান পরিচালনা করে দালালদের আটক করে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন শরীয়তপুর পৌরসভার তুলাসার গ্রামের আবুল কালাম ঢালীর ছেলে সুজন ঢালী, রাজ্জাক সরদারের ছেলে শাহারিয়ার ইকবাল, পৌরসভার স্বর্ণ ঘোষ (হাতিরকান্দি) গ্রামের আঃ বর আকনের স্ত্রী মলিনা ও নড়িয়া উপজেলার ভোজেশ্বর ইউনিয়নের আচুড়া গ্রামের পল্লী চিকিৎসক সন্তোষ চন্দ্র দাসের ছেলে কমল দাসকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে তাদের সাজা প্রদান করা হয়েছে।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ আসলাম উদ্দিন জানায়, শরীয়তপুর জেলা শহরে অবস্থিত বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিকের দালাল চক্র বহুদিন ধরে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি ও বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের ভাগিয়ে নিয়ে প্রতারণা করে আসছে। এই বিষয়ে জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় একাধিকবার আলোচনায় সদর হাসপাতালে অভিযানের সিদ্ধান্ত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২৫ জুলাই হাসপাতালে ঝটিকা অভিযান পরিচালনাকালে নারীসহ ৪ জন দালালকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ। পরবর্তীতে শরীয়তপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহবুর রহমান শেখকে বিষয়টি অবগত করা হলে তিনি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে নারী দালালকে ১৫ দিন ও পুরুষ দালালদের ১ মাস করে কারাদন্ড প্রদান করেন।

শরীয়তপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহাবুর রহমান শেখ বলেন, শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল থেকে বেসরকারি ক্লিনিকের দালাল চক্র রোগী ভাগিয়ে নিয়ে প্রতারণা করে আসছিলো।

বৃহস্পতিবার সদর হাসপাতালে ঝটিকা অভিযান পরিচালনা করে তাদের আটক করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে আটককৃতদের মধ্য ধেকে ৩ জন পুরুষ ও ১ জন নারী দালালকে সাজা প্রদান করা হয়েছে।

Ads
Ads