মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২ আশ্বিন ১৪২৯

শিরোনাম: করোনায় একজনের মৃত্যু    শিনজো আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন    বৈশ্বিক সংকট নিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চায় বিএনপি: কাদের    ট্রফি ভেঙে ফেলা সেই ইউএনওকে ঢাকায় বদলি    পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ৬৬    আগামী ৫ দিনে বৃষ্টিপাত বাড়ার আভাস দিল আবহাওয়া অফিস    পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর তারিখ ঘোষণা   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
আসুন সিলেটে বন্যার্তদের পাশে দাড়াই
#কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সকল দুর্যোগ মোকাবেলা করবো: বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মাবুদ। #প্রাকৃতিক বিপর্যয় ঠেকাতে কার্যকরী নতুন পদক্ষেপ নিতে হবে: উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার।
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ১৯ জুন, ২০২২, ১০:৪১ পিএম আপডেট: ২০.০৬.২০২২ ১২:০৫ এএম | অনলাইন সংস্করণ

বর্তমানে সিলেটের সবকটি অঞ্চল বন্যায় প্লাবিত। সব জায়গা পানিতে টইটম্বুর। পানিবন্দি থেকে জীবনযাপন হয়ে উঠেছে দুর্বিষহ। বাংলাদেশ সৃষ্টির পিছনে যে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধ হয়েছে সেই যুদ্ধে কিন্তু সব ধর্মের মানুষ একে অপরের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে যুদ্ধ করিছি। আসুন এই বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে এসে দাড়ায়। ইতিমধ্যে অনেকেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন, কিন্তু আমাদের আরও সহযোগিতার হাত দরকার।

দৈনিক ভোরের পাতার নিয়মিত আয়োজন ভোরের পাতা সংলাপের ৭৪০তম পর্বে এসব কথা বলেন আলোচকরা। ভোরের পাতা সম্পাদক ও প্রকাশক ড. কাজী এরতেজা হাসানের নির্দেশনা ও পরিকল্পনায় অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- সেক্টর কমান্ডার ফোরামের যুগ্ম মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মাবুদ, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক, খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ভোরের পাতার বিশেষ প্রতিনিধি উৎপল দাস।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মাবুদ বলেন, আজ ভোরের পাতা সুন্দর একটি বিষয় নিয়ে আলোচনার ব্যবস্থা করেছে।  বর্তমানে সিলেটের সব কটি অঞ্চল বন্যায় প্লাবিত। সব জায়গা পানিতে টইটম্বুর। পানিবন্দি থেকে জীবনযাপন হয়ে উঠেছে দুর্বিষহ। মানুষ ঘর ছেড়ে উঠেছে নিরাপদ আশ্রয়ে।  টানা বর্ষণ আর উজান থেকে নেমে আসা ঢলে  বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় এবং বর্তমানে তা ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে।  দ্রুত বাড়তে শুরু করে পানি। তলিয়ে যায় সিলেট নগরের বেশির ভাগ এলাকা। এই বাংলাদেশ সৃষ্টি হয়েছে শুধুমাত্র একটি স্লোগানে নয়, মানুষে মানুষ মানবিকতার মাধ্যমেই সৃষ্টি হয়েছে। আমরা সকলেই একটা বিষয় জানি এই বাংলাদেশ সৃষ্টির পিছনে যে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধ হয়েছে সেই যুদ্ধে কিন্তু সব ধর্মের মানুষ একে অপরের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে যুদ্ধ করিছি। আজও আমরা যুদ্ধে আছি, আছি প্রকৃতির সাথে যুদ্ধে। প্রকৃতির সাথে যুদ্ধে হয়তো আমরা পেরে উঠবো না কিন্তু এই প্রাকৃতিক দুর্যোগে যে সমস্ত মানুষ জন দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে সেসকল মানুষের পাশে আমরা যারা সবল আছি তারা যদি তাদের পাশে গিয়ে দাড়ায় তাহলে এই সমস্যা অচিরেই কেটে যাবে। স্থানীয় প্রতিনিধি সহ সিলেটের বাইরে যেসকল বৃত্তবান মানুষ আছে তাদের সবাইকে আহ্বান জানাবো যেন এই বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে এসে দাঁড়ান। ইতিমধ্যে অনেকেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন, কিন্তু আমাদের আরও সহযোগিতার হাত দরকার।

উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার বলেন, পানির শক্তি এমনই যে যখন যেখানে যায় সবকিছু ধুয়ে মুছে ফেলে। এই শক্তিকে সহজে মোকাবেলা করা যায় না। গত কয়েকদিনে আমরা সিলেটে বন্যার যে ভয়াবহ অবস্থা দেখছি তাতে আমাদের সবার হৃদয় কেঁদে উঠেছে। ফেসবুক, ইউটিউব সহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা যেসকল ভিডিওতে আমারা দেখতে পারছি যে তাসের ঘরের মতো সব কিছু দুমড়ে মুচরে নিয়ে যাচ্ছে।  ক্রমেই গ্রামীণ রাস্তাঘাট তলিয়ে যাচ্ছে। সিলেট ও সুনামগঞ্জের বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও পাঠদান বন্ধ।  বিভিন্ন এলাকায় কাঁচা বাড়ি-ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। বিপুল সংখ্যক বাড়ি-ঘর ফসলি জমি বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে হয়ে পড়েছে। মাঠ ও গোচারণ ভূমিতে পানি উঠায় গো-খাদ্য সংকটসহ মৎস্য খামারিরাও চরম শঙ্কায়। সেখানে সবাই প্রায় এখন সর্বস্বান্ত হয়ে পড়েছে। মেঘালয়ের বৃষ্টির পানি এসে সিলেট বিভাগে হঠাৎ বড় বন্যা সৃষ্টি করেছে। এই বিভাগের ৮০ শতাংশ এলাকা ডুবে গেছে। পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ সুনামগঞ্জে। জেলাটির ৯০ শতাংশ এলাকা এখন পানির নিচে। ওদিকে আসামের বৃষ্টির পানি ঢল আকারে ব্রহ্মপুত্র নদ দিয়ে বাংলাদেশে ঢুকছে। এতে লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, নীলফামারী ও রংপুরের নিম্নাঞ্চল তলিয়ে গেছে। বাংলাদেশে এই অবস্থা কিন্তু ক্ষণস্থায়ী না, এটা একটি দীর্ঘস্থায়ী প্রক্রিয়া। এই প্রাকৃতিক প্রক্রিয়ার মধ্যে আমরা প্রতি বছরি সম্মুখীন হতে হয়। এবারের বন্যা শুধু হাওড়ে নয়- শহর গ্রাম সব জায়গায়। হঠাৎ পাহাড়ি ঢলে হু হু শব্দ করে উজান থেকে ধেয়ে এসে বাড়িতে ঢুকছে পানি, থৈ থৈ করছে চারদিক। প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেমন- নদীভাঙন, অকাল বন্যা, ফ্লাশ ফ্লাড, বার বার বন্যা, ভূমিধস ইত্যাদি যেহেতু আমাদের পাহাড়ি ও সমতল সব এলাকার মানুষের চরম নিয়তি সেহেতু এসব বিপর্যয় ঠেকাতে হলে আমাদেরকে নতুন করে ভাবতে হবে।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://dailyvorerpata.com/ad/apon.jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপ


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৪১০১০০৮৭, ৪১০১০০৮৬, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৪১০১০০৮৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৪১০১০০৮৫
অনলাইন ইমেইল: [email protected] বার্তা ইমেইল:[email protected] বিজ্ঞাপন ইমেইল:[email protected]