শুক্রবার ১২ আগস্ট ২০২২ ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯

শিরোনাম: ক্রিকেট নাকি বেটিং, সাকিবকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে: পাপন    জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে মন্ত্রণালয়কে বিস্তারিত ব্যাখ্যার নির্দেশ    ডলারের কারণে ভোজ্যতেলের দামে সুফল পাওয়া যাচ্ছে না: বাণিজ্যমন্ত্রী    রাজধানীতে হোটেলে মিলল নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ    সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের টাকা সম্পর্কে সরকার কেন তথ্য চায়নি: হাইকোর্ট    জম্মু-কাশ্মীরে সেনা ক্যাম্পে হামলা, ৩ সেনাসহ নিহত ৫    বিশ্বব্যাপী বেড়েছে মৃত্যু-শনাক্ত   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
গুগল ট্রান্সলেটে যুক্ত হলো আরও ২৪টি ভাষা
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: সোমবার, ১৬ মে, ২০২২, ১১:৫২ এএম | অনলাইন সংস্করণ

‘গুগল ট্রান্সলেট’ প্ল্যাটফর্মে আরও ২৪টি ভাষা যোগ করছে প্রযুক্তি জায়ান্ট গুগল। ওই ভাষাগুলোতে কথা বলেন বিশ্বের ৩০ কোটিরও বেশি মানুষ। নতুন যোগ হওয়া ভাষাগুলোর মধ্যে আফ্রিকার ভাষা ১০টি।

নতুন ২৪টি ভাষাসহ মোট ১৩৩টি ভাষা বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়তে সাহায্য করবে। গুগলের দেয়া প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বিশ্বজুড়ে ৩০০ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ নতুন যোগ করা এই ভাষাগুলো লিখতে, শুনতে ও কথা বলতে পারবে।

যেমন মিজো, ভারতের সুদূর উত্তর-পূর্বে প্রায় ৮ লাখ মানুষ ব্যবহার করে এবং লিঙ্গালা, মধ্য আফ্রিকা জুড়ে ৪৫ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ ব্যবহার করে। এই নতুন সংযোজনের অংশ হিসেবে আমেরিকার আদিবাসী ভাষা (কেচুয়া, গুয়ারানি এবং আয়মারা) এবং একটি ইংরেজি উপভাষা (সিয়েরা লিওনিয়ান ক্রিও) ও প্রথমবারের মতো অনুবাদে যুক্ত করা হয়েছে।

গুগল ট্রান্সলেটে যুক্ত হওয়া নতুন ২৪টি ভাষার তালিকা দেয়া হলো:

অসমীয়া: উত্তর-পূর্ব ভারতের প্রায় ২৫ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

আইমারা: বলিভিয়া, চিলি এবং পেরুর প্রায় দুই মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

বামবারা: মালিতে প্রায় ১৪ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

ভোজপুরি: উত্তর ভারত, নেপাল এবং ফিজিতে প্রায় ৫০ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

দিভেহি: মালদ্বীপের প্রায় ৩ লাখ মানুষ ব্যবহার করে।

ডোগরি: উত্তর ভারতের প্রায় তিন মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে

অ্যায়ো: ঘানা এবং টোগোর প্রায় সাত মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে

গুয়ারানি: প্যারাগুয়ে, বলিভিয়া, আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিলের প্রায় সাত মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

ইলোকানো: উত্তর ফিলিপাইনের প্রায় ১০ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

কোঙ্কনি: মধ্য ভারতের প্রায় দুই মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

ক্রিয়: সিয়েরা লিওনে প্রায় চার মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

কুর্দি (সোরানি): ইরাক এবং ইরানের প্রায় ১৫ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

লিঙ্গালা: কঙ্গো গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র, কঙ্গো প্রজাতন্ত্র, মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র, অ্যাঙ্গোলা এবং দক্ষিণ সুদান প্রজাতন্ত্রের প্রায় ৪৫ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

লুগান্ডা: উগান্ডা এবং রুয়ান্ডায় প্রায় ২০ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

মাইথিলি: উত্তর ভারতের প্রায় ৩৪ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

মেটেলিয়ন (মণিপুরি): উত্তর-পূর্ব ভারতের প্রায় দুই মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

মিজো: উত্তর-পূর্ব ভারতে প্রায় ৮ লাখ ৩০ হাজার মানুষ ব্যবহার করে।

ওরোমো: ইথিওপিয়া এবং কেনিয়ার প্রায় ৩৭ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

কেচুয়া: পেরু, বলিভিয়া, ইকুয়েডর এবং পার্শ্ববর্তী দেশগুলিতে প্রায় ১০ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

সংস্কৃত: ভারতে প্রায় ২০ হাজার মানুষ ব্যবহার করে।

সেপেডি: দক্ষিণ আফ্রিকার প্রায় ১৪ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

টাইগ্রিনিয়া: ইরিত্রিয়া এবং ইথিওপিয়ার প্রায় আট মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।



সোঙ্গা: এসওয়াতিনি, মোজাম্বিক, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং জিম্বাবুয়ের প্রায় সাত মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।

টুই: ঘানার প্রায় ১১ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করে।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://dailyvorerpata.com/ad/apon.jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপ


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৪১০১০০৮৭, ৪১০১০০৮৬, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৪১০১০০৮৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৪১০১০০৮৫
অনলাইন ইমেইল: [email protected] বার্তা ইমেইল:[email protected] বিজ্ঞাপন ইমেইল:[email protected]