সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ ২ মাঘ ১৪২৮

শিরোনাম: ‘এ জয় শেখ হাসিনার, আইভীর ও নারায়ণগঞ্জবাসীর’    ইভিএম চুরির বাক্স, ফলাফল কোনোভাবে মেনে নিতে পারি না: তৈমুর    শাবিপ্রবি বন্ধ ঘোষণা, সেই প্রভোস্টের পদত্যাগ    টাঙ্গাইল-৭ আসনের উপনির্বাচনে নৌকার প্রার্থী বিজয়ী    আইভীর হ্যাটট্রিক জয়     শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ওপর লাঠিচার্জ-সাউন্ড গ্রেনেড হামলা, আহত ৩০    নাসিকে ৫০ শতাংশ ভোট পড়েছে: ইসি সচিব   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
শালিখায় সেতু নির্মাণে ধীরগতি, ভোগান্তিতে ১০ গ্রামের মানুষ
শালিখা (মাগুরা) প্রতিনিধি
প্রকাশ: বুধবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২১, ৭:৫২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

মাগুরার শালিখা উপজেলার উজগ্রাম- টিয়রখালি সড়কের মধ্যবর্তী বারেঙ্গা নামক সেতুটি রেগুলেটর সমৃদ্ধ (সুইচগেট) সেতু নির্মাণ করতে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধানে নির্মান কাজ শুরু হয় গত এক বছর আগে। 

ব্রিজটি নির্মাণ কাজের দায়িত্ব পায় মাগুরা অরিন এন্টারপ্রাইজ নামক একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। ব্রিজ নির্মাণ কাজ শুরু হলে জনসাধারণের যাতায়াতের জন্য একটি পার্শ্ব রাস্তা করে দেয়া হয়। যা চালাচলের সম্পূর্ণ অনুপোযোগী বলে অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। 



সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, প্রতিদিন এ সড়কে টিয়রখালি, সেওজগাতি, দীগলগ্রাম, লক্ষ্মীপুর, সাংদা, খিলগাতি, দরি লক্ষ্মীপুর সহ দশ গ্রামের মানুষ নিত্য প্রয়োজনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মন্দির ও উপজেলা সদর আড়পাড়া বাজারে যাতায়াত করেন। জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কে প্রতিদিন মিনি ট্রাক, ভ্যান, ইজিবাইক, লাটা, করিমন, গ্রামবাংলা সহ স্থানীয় নানাবিধ যাত্রীবাহী গাড়ি চলাচল করে তবে ব্রিজ নির্মাণে ধীরগতি হওয়ায় সীমাহীন দুর্ভোগে হাজার হাজার মানুষ। অনেকে আবার তিন কিলোমিটার পথ বেশি পাড়ি দিয়ে গন্তব্যে ছুটছেন। 

এ ব্যাপারে স্থানীয় কয়েকজন লোকের সাথে কথা বললে তারা জানান, গতবছর বর্ষাকালে সেতুটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় এক বছর পেরিয়ে গেলেও দৃশ্যমান কোনো কাজ হয়নি পাশাপাশি তারা আরো বলেন চলাচলের জন্য পার্শ্ববর্তী যে রাস্তাটি করে দেয়া হয়েছে তা দিয়ে শুধু একজন মানুষই যেতে পারে কোন গাড়ি যেতে পারে না। এব্যাপারে তালখড়ি ইউনিয়নের 8 নং ওয়ার্ডের সদস্য রিয়াজ মোল্লা জানান, ঠিকাদারের অবহেলার কারণে আশেপাশের গ্রামের মানুষ জীবিকার তাগিদে আড়পাড়া বাজারে যেতে পারছেন না এছাড়াও যাতায়াতের জন্য পার্শ্ববর্তী যে রাস্তা করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ চলাচলের অযোগ্য।

সেতু নির্মাণের ঠিকাদার, অরিন এন্টারপ্রাইজের পরিচালক ইব্রাহিমের সাথে কথা বললে তিনি জানান, পানির চাপ বেড়ে যাওয়ায় কাজ আপাতত বন্ধ রেখেছি। পানি কমে গেলে কাজ আবার শুরু করা হবে। 

মাগুরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান জানান, বিষয়টি দায়িত্বপ্রাপ্ত ঠিকাদারকে জানানো হবে এবং দ্রুত নির্মান কাজ সম্পন্ন করার ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাসও দেন তিনি। 

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Comp 1_3.gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]