শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ ৬ কার্তিক ১৪২৮

শিরোনাম: কুমিল্লার ঘটনায় অভিযুক্ত ইকবাল সন্দেহে একজন আটক    হেসে-খেলেই সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশ    পাপুয়া নিউ গিনিকে ১৮২ রানের চ্যালেঞ্জ    করোনায় একদিনে আরও ১০ জনের মৃত্যু    বদরুন্নেসার সেই শিক্ষিকা দুই দিনের রিমান্ডে    ফেসবুক লাইভে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় স্বামীর মৃত্যুদণ্ড    টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
মিতালী মুখার্জির গান বিকৃত করলেন দিনাত জাহান মুন্নি!
ইমরান আজিম
প্রকাশ: শনিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৭:৩৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

উপমহাদেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী মিতালি মুখার্জি। বাংলাদেশী শাস্ত্রীয় সঙ্গীতশিল্পীও তিনি। ১৯৮২ সালে দুই পয়সার আলতা চলচ্চিত্রে ‘এই দুনিয়া এখন তো আর সেই দুনিয়া নাই’ গানে সঙ্গীত পরিবেশনার জন্য বাংলাদেশের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। এরপর ভারতে স্থায়ীভাবে বসবাস করলেও বাংলাদেশের সংগীত অঙ্গনকে সব সময়ই আলোকিত করে যাচ্ছেন মিতালী। কিন্তু তাঁর গাওয়া ‘ও কেন এত নিঠুরও হলো’ শিরোনামের গানটি বিকৃত করে গাওয়ার অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী দিনাত জাহান মুন্নির বিরুদ্ধে। 

গত ২৩ আগস্ট একটি বেসরকারি টেলিভিশনে দেশের প্রতিষ্ঠিত শিল্পী দিনাত জাহান মুন্নি প্রিয় শিল্পী মিতালী মুখার্জির জনপ্রিয় গান ‘ও কেন নিঠুরও হলো’ পরিবেশন করেন। গান শুরুর আগে তিনি কয়েকটি কথাও বলেছেন। ইউটিউবে আপ করা সেই গানের লিংকে দিনাত জাহান মুন্নির কণ্ঠে গানটি শোনার পরই উৎপল দাস নামের একজন শ্রোতা কমেন্ট করেছিলেন, ‘‘এই গান বহুবার শুনেছি। আর আপনি খুবই বাজে গেয়েছেন।’’ এরপর দিনাত জাহান মুন্নি উৎপল দাসকে মেনশন দিয়েছিলেন।  এরপর চারদিন আগে দিনাত জাহান মুন্নি একই লিংকের কমেন্টে আবারো লিখেন, ‘‘আপনি আমাকে একটু শিখিয়ে যাবেন উৎপল দাস।’’

এরপর সেখানে উৎপল দাস কমেন্ট করেন, ‘আজকে যখন রজনী দ্বিপ্রহরে লিখতে বসেছি তখনই আপনাকে সম্মানের সাথে রিপ্লাই দিয়েছি, ‘‘আপনাকে গান শিখানোর মতো যোগ্যতা আমার নেই। আর গান শিখানো আমার কাজ নয়। আমি একজন শ্রোতা হিসাবে নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছি। আপনার সকল গানই যে আমার ভালো লাগতে হবে, সেটারও কোনো সুযোগ নেই। আপনি অনুগ্রহ করে মিতালী মুখার্জির গানটা শুনবেন, আর নিজে কি গাইছেন সেটাও শুনবেন। আশা করি পার্থক্যটা বুঝতে পারবেন। লিংক দিয়ে দিচ্ছি: https://www.youtube.com/watch?v=MB-ozbShTFg বিনয়ের সঙ্গে বলছি, একজন শিল্পী হিসাবে আপনি বলতে পারতেন, ভবিষ্যতে আরো ভালো গাইবেন। কিন্তু সরাসরি যেভাবে গান শিখতে চেয়েছেন, তা সত্যিই আপনার অংহকারের পরিচায়ক। আর কোনো অহংকারী মানুষ ভালো গান গাইতে পারেন না। ভালো থাকবেন। আপনার ভালো গান আমি নিশ্চিত শুনবো, কারণ আমি শ্রোতা হিসাবে যথেষ্ট ভালো। ভালোকে ভালো বলি, খারাপকে খারাপ বলি। শুভ কামনা রইলো। ’’

এরপর নিজের ফেসবুক ওয়ালে এ প্রসঙ্গে উৎপল দাস আরো লিখেন,  এবার আসি প্রকৃত আলোচনায়। আপনি মিতালী মুখার্জির যে গানটি গেয়েছেন সেটি শেখ নজরুল ইসলাম পরিচালিত ১৯৮৩ সালের আশা সিনেমার গান। শিল্পীঃ মিতালী মূখার্জী ,গীতিকারঃ ডঃ মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান সুরকারঃ আলাউদ্দিন আলী। 
গানটির দ্বিতীয় অন্তরাতে মূল শিল্পী মিতালী মুখার্জি গেয়েছেন, 
‘একটু সাদা মেঘের ভেলা
উড়তো মন আকাশে
সেই সাদা মেঘ কালো মেঘের
পাহাড় হলো শেষে।’

আর দিনাত জাহান মুন্নি আপা আপনি গেয়েছেন, 
‘একটু সাদা মেঘের ভেলা
উড়তো মন আকাশে
সেই সাদা মেঘের পাহাড়
হলো অবশেষে।’

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, গানটির কথা বদলে ফেলার অধিকার কি আপনি সংরক্ষণ করেন? আশা করছি উত্তর জানাবেন। 



একজন শ্রোতা হিসাবে আপনার গান আমার ভালো লাগে। আসিফ আকবর ভাইয়ের সাথে আপনার ডুয়েট গান প্রচুর শুনেছি এবং এখনো মাঝে মধ্যে এখনো শুনি। বিনয়ের সঙ্গে বলছি, আপনাকে গান শিখানো আমার কাজ নয়। আপনি হয়তো আমাকে আর দশজন সাধারণ শ্রোতা মনে করেছেন। সেটা হতেই পারে। আপনার পূর্ণ স্বাধীনতা আছে। শ্রোতাদের কিভাবে মূল্যায়ণ করবেন, সে বিষয়ে। আপনার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, শিল্পীদের অহংকার মানায় না। আপনি গান শিখার জন্য অবশ্যই সংগীত গুরুদের কাছে যেতে পারেন। কারণ শেখার কোনো শেষ নেই। ভালো থাকবেন। আরো ভালো গান করবেন। গানের মাধ্যমে অমরত্ব লাভ করুন। এই কামনা করছি। 

উল্লেখ্য, সবার জন্য দিনাত জাহান মুন্নি আপার গলায় ও কেন এত নিঠুর হলো গানটির ইউটিউব লিংক দিয়ে দিলাম। আপনারাও শুনতে পারেন। তাহলে কিছু ভিউ বাড়তে পারে। 
https://www.youtube.com/watch?v=-KG_yRY_AXM...

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগের সাবেক খন্ডকালীন  শিক্ষক রাশেদ শোভন যিনি বর্তমানে টিএসসির সহকারী পরিচালক হিসাবে কাজ করছেন তিনি ভোরের পাতার এ প্রতিবেদককে বলেন, মিতালী ‍মুর্খার্জির গান অবশ্যই অনুমতি নিয়ে সঠিকভাবে গাইতে পারেন দিনাত জাহান মুন্নি। এটা নৈতিকভাবে করা যায়। কিন্তু একজন সিনিয়র শিল্পীর গান সঠিকভাবে গাইতে হবে। কোনোভাবে গানের ‍শুদ্ধতা বদলে ফেলার সুযোগ নেই। দিনাত জাহান মুন্নি গানটির দ্বিতীয় অন্তরাতে যে ভুল করেছেন, তা কখনোই গ্রহণযোগ্য নয়। ভবিষ্যতে দিনাত জাহান মুন্নিকে অবশ্যই আরো বেশি সতর্ক হয়ে গান করবেন এটাই প্রত্যাশা। 

গান বিকৃতির বিষয়ে দিনাত জাহান মুন্নির সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি, কারণ বর্তমানে তিনি বিদেশে অবস্থান করছেন।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Comp 1_3.gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]