রোববার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ৪ আশ্বিন ১৪২৮

শিরোনাম: ই-কমার্স গ্রাহকদের নিয়ে পরামর্শ দিলেন হাইকোর্ট    আদালতে জেমস    খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ আরও বাড়ল    জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান হলেন শাফিন আহমেদ    বিএনপি দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে: ওবায়দুল কাদের    ইভ্যালির রাসেল দম্পতির বিরুদ্ধে আরেক মামলা    ডিআইজি প্রিজন্স পার্থ গোপাল কারাগারে   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
শেখ কামাল যুব সমাজের অগ্রনায়ক
সিনিয়র প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট, ২০২১, ১১:২৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ ছেলে, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামাল বাংলাদেশের যুব সমাজের অগ্রনায়ক হিসাবে চিরস্মরণীয় হয়ে আছেন। 

অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিউজবাংলা আয়োজিত শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষে ওয়েবিনারের একথা বলেন আলোচকরা। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি খাত এবং বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা, সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমান, অর্থমন্ত্রী আ ফ ম মোস্তফা কামাল এবং নিউজবাংলার সম্পাদকম-লীর সভাপতি চৌধুরী নাফিস সারাফাত।

সালমান এফ রহমান বলেন, ৫ আগস্ট শেখ কামালের জন্মদিন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ১৫ আগস্ট শাহাদাতবরণকারী সকল শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আজকের অনুষ্ঠানটির আয়োজকদের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। শেখ কামাল সম্পর্কে বলতে গেলে বলে শেষ করা যাবে না। তাকে আমি তুমি করেই বলতাম। আমি তখন তরুণ ব্যবসায়ী। শেখ কামাল তখন বাংলাদেশে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের একজন। তার কাছে দেশি-বিদেশি অনেক ব্যবসায়ী আসেন, এই কাজ ও কাজ করে দেওয়ার জন্য একটা ফোন করানোর জন্য। কিন্তু কোনো দিন শেখ কামাল কারো জন্য ফোন করেনি। আমি একবার লন্ডন যাচ্ছি, তখন তাকে বললাম ; তোমার জন্য কি আনবো? সে কিছু বলেনি। তখন আমার অন্য বন্ধুরা বললো, লন্ডনের ওই দোকান থেকে ওই ব্রান্ডের ঘড়ি আনতে। কিন্তু শেখ কামাল কিছু চায়নি। এরপর যখন জাপান গেলাম, একই কথা বললে, শেখ কামাল বলেছিল; স্পন্দনের জন্য একটা ইন্সট্রুমেন্ট নিয়ে আসতে। 

সালমান এফ রহমান আরো বলেন, ক্ষমতা বা প্রভাবের এত কাছাকাছি অবস্থান করেও তাকে কোনো অহংকার স্পর্শ করেনি।



অর্থমন্ত্রী আ ফ ম মোস্তফা কামাল বলেন, সময়োপযোগী এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করার জন্য নিউজবাংলাকে ধন্যবাদ। আমি মনে করি, আগামী প্রজন্মের কাছে যুব সমাজের পথপ্রদর্শক বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামাল। বাংলাদেশের যুব জাগরণে তাঁর অবদান অনস্বীকার্য। আজকে আমি যে অবস্থানে এসেছি তার পুরোটাই শেখ কামালের প্রতিষ্ঠিত আবাহনী ক্লাবের কারণেই হয়েছে। আ ফ ম মোস্তফা কামাল এখনো আবাহনী ক্লাবের পরিচালক। শুরুতেই আমি ছিলাম। সেখান থেকে বিসিবি এবং পরবর্তীতে আইসিসি প্রেসিডেন্টও হয়েছি। 

অনুষ্ঠানে আ ফ ম মোস্তফা কামাল আরো বলেন, শেখ কামাল কোনো ব্যক্তি নন, তিনি একটি প্রতিষ্ঠান। সুমহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক থেকে শুরু করে তিনি বাংলাদেশের ক্রীড়া জাগরণের অগ্রসৈনিক।

চৌধুরী নাফিস সারাফাত বলেন,  বাংলাদেশের খেলাধুলায় পৃষ্ঠপোষকতার ক্ষেত্রে শেখ কামালের নাম চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। এমনকি সাংস্কৃতিক অঙ্গনে তাঁর পদচারণা আমাদের নতুন প্রজন্মের জন্য পাথেয়। বাঙালির সংস্কৃতির আবহমান ধারাকে ধরে রাখতেই তিনি স্পন্দন শিল্পীগোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা করেছিলেন। সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ছেলে হয়েও তিনি কোনোদিন প্রভাব দেখায়নি। আর দশজন মানুষের মতো জীবনাচরণে অভ্যস্ত ছিলেন শেখ কামাল। তাঁর জীবনাদর্শ আগামী দিনে যুবকদের জন্য পাথেয় হওয়া উচিত।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]