মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ ২৭ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: ঘরে ঘরে সচেতনতা গড়ে তুলতে হবে    স্কুল খোলার পক্ষে ৯৭ ভাগ অভিভাবক     বিক্ষোভের মুখে বাড়ল ঈদের ছুটি    দেশের টাকাতেও করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে!    ঘরমুখো মানুষের ভোগান্তি লাঘবে ঘাটে বাড়ছে ফেরি    চট্টগ্রামে ট্রাক-অটোরিকশা সংঘর্ষে শিশুসহ নিহত ৩    শ্রমিক বিক্ষোভে পুলিশের রাবার বুলেট, আহত ২৭   
আরও ২ হাজার সাংবাদিককে দুই কোটি টাকা সহায়তা দেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ২৫ এপ্রিল, ২০২১, ৩:৪৩ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্যে যখন লকডাউন চলছে তখন সাংবাদিকদের কীভাবে সহায়তা করা যায় সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে জরুরি সভা করলাম। আপাতত আরও দুই হাজার সাংবাদিককে দুই কোটি টাকা সহায়তা দেয়া হবে। প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। এই অর্থবছরে আরো ২শ সাংবাদিককে ৫০ হাজার থেকে দুই লাখ টাকা পর্যন্ত সহায়তা দেওয়া হচ্ছে, এর মধ্যে ৪০ জনকে সেই সহায়তা দেওয়া হয়েছে। এর বাইরেও এই অর্থবছরে আরো সাংবাদিককে কল্যাণ ট্রাস্টের পক্ষ থেকে আরো সহায়তা দেওয়া হবে।

রবিবার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের জরুরি বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ২০১৪ সালে সংসদে আইন পাস করে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট গঠন করা হয়। এই ট্রাস্টের মাধ্যমে অসুস্থ, অসচ্ছল সাংবাদিকদের প্রতি বছর সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। কয়েকশ সাংবাদিককে এই ট্রাস্ট থেকে সহায়তা দেওয়া হয়। কোনো সাংবাদিক মারা গেলে এককালীন তিন লাখ টাকা পান।

তিনি বলেন, করোনা মহামারির মধ্যে যারা চাকরি হারিয়েছেন বা বেতন পাচ্ছিলেন না তাদের সহায়তা দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাক্রমে কল্যাণ ট্রাস্টের বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। করোনার প্রথম ঢেউয়ে অনেকে কর্মহীন হয়ে পড়েন, অনেকে বেতন পাচ্ছিলেন না, অনেকে চাকরিচ্যুত হয়েছেন- সারা দেশের এমন তিন হাজার ৩৫০ জন সাংবাদিককে দলমত নির্বিশেষ সহায়তা দেওয়া হয়।



করোনাকালে সাংবাদিকরা চাকরিচ্যুত হচ্ছে, এ বিষয় সম্মিলিত কাজটি কতটুকু এগিয়েছে জানতে চাইলে ড. হাছান বলেন, করোনাকালে চাকরিচ্যুত করা অত্যন্ত দুঃখজনক। আমার কাছে অগ্রহণযোগ্য। আমি জানি অন্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মতো সংবাদ মাধ্যমগুলো নানান সমস্যার সম্মুখীন। বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখার অনুরোধ করেছিলাম। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে সেটি অনুসরণ করা হয়নি। সেটি অত্যন্ত দুঃখজনক।

তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে। সাংবাদিক ইউনিয়নগুলোও চেষ্টা করছে। মনে রাখতে হবে এগুলো কোনো সরকারি প্রতিষ্ঠান নয়, এগুলো সবগুলো প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান। তারপরও আমরা আমাদের সাংবাদিক নেতাদের নিয়ে আলাপ-আলোচনা করছি। আমরা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনায় আছি। আমরা আশা করবো যাদের চাকরিচ্যুত করা হয়েছে তাদের পুনর্বহাল করা হবে।

এসময় প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকার, বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল, সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের সদস্য কাশেম হুমায়ুন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ভোরের পাতা/ই

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]