শুক্রবার ২৩ এপ্রিল ২০২১ ১০ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: শপিংমল ও দোকানপাট খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত    মুন্সিগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ধান কাটা কার্যক্রমের শুভ সূচনা    ৫৪১ রানে বাংলাদেশের ইনিংস ঘোষণা    বিএনপি ছাড়ছেন মির্জা আব্বাস দম্পত্তি!    ইলিয়াস আলী ইস্যু: মির্জা আব্বাসের বক্তব্যের ব্যাখ্যা চেয়েছে বিএনপি    পিআইবির ডিজি পদে ফের নিয়োগ পেলেন জাফর ওয়াজেদ    সাম্প্রদায়িক উগ্রগোষ্ঠীকে কঠোর হস্তে দমন করতে হবে: এম এ লিংকন মোল্লা   
জিয়াউর রহমান নয়, মুক্তিযুদ্ধের মূলনেতা বঙ্গবন্ধু: নজরুল ইসলাম
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ৭ মার্চ, ২০২১, ৯:৩১ এএম | অনলাইন সংস্করণ

জিয়াউর রহমান নয়, মুক্তিযুদ্ধের মূলনেতা বঙ্গবন্ধু: নজরুল ইসলাম

জিয়াউর রহমান নয়, মুক্তিযুদ্ধের মূলনেতা বঙ্গবন্ধু: নজরুল ইসলাম

বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর মাধ্যমে দেশের নতুন প্রজন্ম ও জনগণকে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে দিন।

তিনি বলেন, সেদিন কী ঘটেছিল, কেন ঘটেছিল, যে কারণে ঘটেছিল তা বাস্তবায়নের জন্য আমরা কে কী করেছি সেটা বলুন। যারা দায়িত্ব পালন করতে পারেনি সেটাও বলুন। জনগণ সিদ্ধান্ত নিবে কাকে দায়িত্ব দিবে তাদের পরিচালনা করার।

তিনি আরও বলেন, আমরা কখনোই দাবি করি না মুক্তিযুদ্ধের সর্বোচ্চ নেতা ছিলেন জিয়াউর রহমান। বঙ্গবন্ধুর নামেই মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে। বঙ্গবন্ধু ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের মূলনেতা।

বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) ময়মনসিংহ নগরীর আল বারাকাহ কনভেনশন সেন্টারে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি। বিএনপির স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন ময়মনসিংহ বিভাগীয় সমন্বয় কমিটি এ সভার আয়োজন করে।

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম খান আরও বলেন, জিয়াউর রহমান জীবদ্দশায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কখনো কোনো অসম্মানজনক উক্তি করার নজির নেই। মহান মুক্তিযুদ্ধে অসীম সাহসিকতার জন্য যারা খেতাব পেয়েছে, তাদের অস্বীকার করার কোনো সুযোগ নেই। জিয়াউর রহমানকে অস্বীকার করলে বাংলাদেশে আর মুক্তিযোদ্ধা খুঁজে পাওয়া যাবে না। যারা মহান মুক্তিযুদ্ধের অসীম সাহসী, যারা খেতাব পেয়েছেন, তারা পরবর্তীতে যদি অপরাধ করেন তাহলে তার শাস্তি হবে। কিন্তু তাদের খেতাব কেড়ে নিবেন কীভাবে? সেটিতো কারো দয়ার দান না। এটা করে মুক্তিযুদ্ধকে অপমান করছেন। যারা মুক্তিযুদ্ধ করেছে তাদেরকে অপমান করছেন।

এসময় জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলকে (জামুকা) উদ্দেশ করে তিনি বলেন, খেতাব নিয়ে কোনো কিছু করার অধিকার জামুকার নেই। তাহলে তারা কিভাবে খেতাব নিয়ে টানাটানি করে? এটাতো তাদের কাজ না। তাদের কাজ হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই করা, মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণের জন্য কাজ করা, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষণ করা।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে অনেক রাজনৈতিক দল রয়েছে। কিছু ব্যতিক্রম বাদে সব রাজনৈতিক দলই স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে এবং মর্যাদা দেয়। কিন্তু বিএনপিই প্রথম স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের ব্যাপারে কমিটি করে দায়িত্ব দিয়ে আনুষ্ঠানিকতা শুরু করে দিয়েছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন মিডিয়া কমিটির সদস্য সচিব শামা ওবায়েদ ও সদস্য সচিব আবদুস সালাম। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি নেতা এমরান সালেহ প্রিন্স, ওয়ারেছ আলী মামুন, শরিফুল আলম, ইয়াসের খান চৌধুরী, মাহবুবুর রহমান লিটন, অধ্যাপক শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

ভোরের পাতা/ই

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও সংবাদ   বিষয়:  জিয়াউর রহমান   বঙ্গবন্ধু   মুক্তিযুদ্ধ   নজরুল ইসলাম খান  







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]