সোমবার ৮ মার্চ ২০২১ ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭

শিরোনাম: বিএনপির ৩ নেতা ডিএমপি কার্যালয়ে     জনগণের আস্থার প্রতিদান দিতে পারিনি: দুদকের বিদায়ী চেয়ারম্যান    অচলায়তন ভেদ করে মেয়েরা এগিয়ে যাচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী    বিএনপির বিকল্প আন্দোলন হচ্ছে গোপন বৈঠক আর ষড়যন্ত্র: কাদের    সংগ্রামী পাঁচ নারী পেলেন ‘জয়িতা’ পুরস্কার    খালেদার মুক্তির মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়ানোর সুপারিশ    গিনির সামরিক ঘাঁটিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত ২০   
শীত ও শৈত্যপ্রবাহ নিয়ে যে দুঃসংবাদ দিল আবহাওয়াবিদরা!
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: রোববার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২১, ৭:২৭ পিএম আপডেট: ২৪.০১.২০২১ ৭:৫০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের কয়েকদিন ধরেই শীতের প্রকোপ বেড়েছে। বিশেষ করে রাতে ঠাণ্ডা অনেক বেশি বেড়ে গেছে। আবহাওয়াবিদরা বলছেন, এমন তাপমাত্রা আরও কয়েকদিন থাকবে।

আবহাওয়া অধিদফতরের জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ বলেন, দিনের বেলায় তাপমাত্রা বেশি থাকলেও ঠাণ্ডা অনুভূত হচ্ছে। কারণ কুয়াশার কারণে সূর্যের আলো আসতে পারছে না। এর সঙ্গে বাতাসও বইছে।

আগামী দু-একদিন তাপমাত্রা কিছুটা বেড়ে জানুয়ারির শেষের দিকে আবার তাপমাত্রা কমবে বলে তিনি জানান। এছাড়া ৩০ বা ৩১ জানুয়ারি আরেকটি মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। সেটা ফেব্রুয়ারির মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত থাকবে। তারপর আবার তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করবে।

আবহাওয়া অধিদফতরের সাবেক পরিচালক মো. শাহ আলম বলেন, গত কয়েকদিন তাপমাত্রা বেশি থাকার পরেও শীত বেশি অনুভূত হচ্ছে, সেটা হচ্ছে কিন্তু কুয়াশার কারণে। আসলে যে ঠাণ্ডা বেশি পড়েছে, সেটা বলা যাবে না।

তাপমাত্রা ১০-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস থাকলে সেটিকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ, ৮-৬ এর মধ্যে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ এবং ৬ এর নীচে থাকলে তাকে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

২০১৮ সালের ৮ জানুয়ারি বাংলাদেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়াতে। সেদিন ২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়।

ভোরের পাতা/এএম

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]