রোববার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭

শিরোনাম: বদলে যাওয়া এক বাংলাদেশ: শেখ হাসিনা    রমজানেও ক্লাস চলবে স্কুল-কলেজে : শিক্ষামন্ত্রী     শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার তারিখ প্রকাশ    প্রধানমন্ত্রী আল-জাজিরার প্রতিবেদন নিয়ে যা বললেন     সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এই যোগ্যতা অর্জন: প্রধানমন্ত্রী     এক যুগ আগের আর আজকের বাংলাদেশ এক নয়: প্রধানমন্ত্রী    উন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জন জাতির জন্য মর্যাদাকর: প্রধানমন্ত্রী   
আদমদীঘিসহ উত্তরাঞ্চলে কনকনে শীতে বাড়ছে রোগ বালাই
আদমদীঘি প্রতিনিধি
প্রকাশ: রোববার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২১, ৫:২৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

আদমদীঘিসহ উত্তরাঞ্চলে কনকনে শীতে বাড়ছে রোগ বালাই

আদমদীঘিসহ উত্তরাঞ্চলে কনকনে শীতে বাড়ছে রোগ বালাই

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলাসহ উত্তরাঞ্চলে কনকন করে বাড়ছে শীত। বাড়ছে সর্দি কাশি সহ নানা ধরনের রোগ বালাই। শীত বস্ত্রের দোকানে উচ্চ ও মধ্যবিত্ত পরিবারের ভিড়। কষ্টে দিন কাটচ্ছে ছিন্নমুল মানুষের। গত কয়েকদিন ধরে কনকনে শীতে কাঁপছে পশ্চিম বগুড়া সহ উত্তরাঞ্চলের মানুষ। শীত নিবারনের জন্য নিম্ন আয়ের মানুষেরা ভিড় করছে পুরাতন কাপড়ের দোকানে। 

রেল স্টেশন, বাস টার্মিনাল সহ বস্তি এলাকার মানুষ অতি কষ্টে দিন পার করছে। আদমদীঘিতে সরকারি ভাবে শীতবস্ত্র বিতরন করলেও তা প্রয়োজনীয় তুলনায় খুবই কম। এলাকার কোন বিত্তশালী বা বে-সরকারি ভাবে ছিন্নমুল মানুষের মধ্যে কোন শীতবস্ত্র বিতরনের কোন ব্যবস্থা করা হয়নি। সান্তাহার রেল স্টেশনে এই প্রতিনিধির সাথে কথা হয় এক ছিন্নমুল সত্তরোর্ধ ভিক্ষুক আব্বাস উদ্দিনের সাথে। সে দিনের বেলা ভিক্ষা বৃত্তি করে রাত কাটায় সান্তাহার স্টেশনের প্লাটফর্মে। সে বলে আল্লাহ ছাড়া দুনিয়াতে মোর কেহ নাই বারে। দিনতো ভালোই কাটে, রাত আইলেই মোর শরীরে শুরু হয় কাঁপুনি। গেলবার এক সাহেব একখানা কম্বল মোক দিছিল। শীত চলি যাওনের পর থওনের যাইগা পাইনি। পরে হেইডা বেইচ্যা একখান লুঙ্গি কিনছিনু। এবার এহনও কোন সাহেব আহেনি।

অপরদিকে এই কনকনে শীত নিবারনের জন্য এলাকার বিত্তশালীরা মার্কেটের বড় বড় শীত বস্ত্রের দোকানে এবং মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজন পুরাতন মার্কেটের বিদেশী পুরাতন কাপড়ের দোকানে শীত বস্ত্র কিনছে। প্রচন্ড কনকনে শীতে সর্দি, জ্বর, শ্বাস কষ্ট ও নিউমোনিয়া রোগ সহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধরা। এ দিকে গত বছর আলুর উৎপাদন ভালো না হওয়ায় সারা বছরই বাজারে আলুর দাম ছিল চড়া। চলতি মৌসুমে উত্তরের অন্যান্য জেলার মতো আদমদীঘি উপজেলার চাষিরাও আগাম জাতের আমন ধান কেটে শুরু করে আলুর চাষ। অল্প দিনের মধ্যেই সবুজে ভরে উঠে আলু ক্ষেত। চাষিরাও বুক বাধে বাম্পার ফলনের আশায়। 

আদমদীঘি উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে উপজেলায় প্রায় ৪ হাজার ২শ’ হেক্টর জমিতে আলু চাষ করা হয়েছে। যা গত বছরের চেয়ে প্রায় ৫শ’ হেক্টর বেশী। উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল গত বছরের চেয়ে প্রায় ৫০ হাজার টন বেশী। এবার ১৩ হাজার ৫শ’ হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]