রোববার ● ২৯ নভেম্বর ২০২০ ● ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ ● ১২ রবিউস সানি ১৪৪২
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
মৌলবাদীদের আস্ফালন: সৈয়দ আশরাফের অভাববোধ করছে আ. লীগ
উৎপল দাস
প্রকাশ: শনিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২০, ৭:৫১ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

মৌলবাদীদের আস্ফালন: সৈয়দ আশরাফের অভাববোধ করছে আ. লীগ

মৌলবাদীদের আস্ফালন: সৈয়দ আশরাফের অভাববোধ করছে আ. লীগ

২০১৩ সালের ৫ মে ১৩ দফা দাবিতে ঢাকা অবরোধ করে রাজধানীতে ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়েছিল হেফাজতের কর্মীরা। অরাজনৈতিক সংগঠন হলেও হেফাজতের ওপর ভর করে সরকার বিরোধী বিএনপি এমনকি, বর্তমানে সরকারের পোষ্য বিরোধীদল খ্যাত জাতীয় পার্টিও ইন্ধন জুগিয়েছিল। সরকার পতনের মতো অবস্থা সৃষ্টি করতে ষড়যন্ত্র অব্যাহত এখনো রয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা একক নেতৃত্বে বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করেছেন। 

তবে তার রানিংমেট হিসাবে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের অভাববোধ করছে আবারো আওয়ামী লীগ। দেশরত্ন শেখ হাসিনা এককভাবে সবকিছু করে যাচ্ছেন। ঠিক সে অবস্থায় কট্টর মৌলবাদীরা যখন হুংকার দিচ্ছে, তখন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ছাত্রলীগের সোনালী দুঃসময়ের নেতা হিসাবে পরিচিত ওবায়দুল কাদের এই ইস্যুতে এখনো মুখ খুলেননি। এমনকি তিনি এ নিয়ে কোনো কথা না বলায়, খোদ আওয়ামী লীগের মধ্যেই অতীতের কথা মনে করিয়ে দিয়ে বলছেন, আওয়ামী লীগের মতো সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী দলে শেখ হাসিনার রানিংমেট হিসাবে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের চরম অভাববোধ করছেন তারা। 

২০১৩ সালের ৫ মে হেফাজতের তাণ্ডব নিয়ে সেদিন তৎকালীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছিলেন, ‘আমার ভদ্রতাকে দুর্বলতা ভাবলে ভুল করবেন।’ এই কথাটি মনে করিয়ে দিয়ে আওয়ামী লীগের তিনজন প্রেসিডিয়াম সদস্য ভোরের পাতাকে বলেছেন, সৈয়দ আশরাফ ভাইয়ের মতো দৃঢ়চেতা এবং আপোষহীন নেতা আমরা কমই দেখেছি। 

আওয়ামী লীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাদের সাথে কথা বলে আরো জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বুড়িগঙ্গাতে ভাসিয়ে দেয়ার হুংকার দেয়ার পরও দলের সাধারণ সম্পাদক এ বিষয়ে কোনো বিবৃতি বা বক্তব্য না দেয়াটা বেদনার। 

উল্লেখ্য, রাজধানীর ধোলাইপাড় মোড়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি ভাস্কর্য নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে অনির্মিত সেই ভাস্কর্যকেই মূর্তি আখ্যা দিয়ে তা বন্ধের দাবি তুলেছে ধর্মভিত্তিক কয়েকটি রাজনৈতিক গোষ্ঠী। সেই সঙ্গে যারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের নামে মূর্তি স্থাপন করে তারা বঙ্গবন্ধুর সু-সন্তান হতে পারে না বলেও আপত্তিকর মন্তব্য করেছে। এমনকি ভাস্কর্য স্থাপনের সিদ্ধান্ত বাতিল করা না হলে তৌহিদি জনতা আন্দোলনে নামবে বলেও হুমকি দেয়া হয়েছে।

তবে কট্টরপন্থী ইসলামিক দলগুলোর এমন বিতর্কিত দাবির বিরুদ্ধে তেমন জোরালো কোনো প্রতিবাদ বা কর্মসূচি হতে দেখা যায়নি। আওয়ামী লীগের হাতে গোনা নেতাসহ সরকারের বেশ কয়েকজন মন্ত্রী গণমাধ্যমে প্রতিবাদ জানালেও দলীয়ভাবে নীরবতাই দেখা গেছে। ওলামা লীগ ছাড়া মূল দল আওয়ামী লীগ কিংবা সহযোগী ও অঙ্গ সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকেও কোনো প্রতিবাদ হয়নি। তারা সবাই মূল দল আওয়ামী লীগের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন।

তবে দলের নীতি নির্ধারণী পর্যায়ের নেতারা জানিয়েছেন, বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। দলের পক্ষ থেকে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা বক্তব্য বিবৃতি দিচ্ছেন। তবে মৌলবাদিদের বিরুদ্ধে কর্মসূচি দেয়ার সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি। ফলশ্রুতিতে বিষয়টির বিরুদ্ধে মাঠে ময়দানে কোনো প্রতিবাদ কর্মসূচি বা সমাবেশ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






আরও সংবাদ
https://www.dailyvorerpata.com/ad/BHousing_Investment_Press_6colX6in20200324140555 (1).jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/431205536-ezgif.com-optimize.gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]