রোববার ● ২৯ নভেম্বর ২০২০ ● ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ ● ১২ রবিউস সানি ১৪৪২
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
করোনা প্রতিরোধে আমাদের আরও কঠোর হতে হবে: ড. প্রিয়ব্রত পাল
সিনিয়র প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ১০:১২ পিএম আপডেট: ১৯.১১.২০২০ ১০:২৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

করোনা প্রতিরোধে আমাদের আরও কঠোর হতে হবে: ড. প্রিয়ব্রত পাল

করোনা প্রতিরোধে আমাদের আরও কঠোর হতে হবে: ড. প্রিয়ব্রত পাল

পুরো বিশ্বের অর্থনীতির ওপর করোনা সংকটের মারাত্মক প্রভাবের মাত্রা দিনে দিনে আরেও স্পষ্ট হয়ে উঠছে। বিশেষ করে পশ্চিমা দেশগুলোর অর্থনীতির অবস্থা সম্পর্কে ভয়াবহ চিত্র উঠে আসছে। সেদিক থেকে করোনা মহামারির ধাক্কা কাটিয়ে আবারো ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনীতি। মহামারির কারণে সৃষ্ট এই সংকটময় পরিস্থিতিতে প্রতিবেশী দেশগুলোর চেয়েও অর্থনীতিতে নিরাপদ অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। দ্য ইকোনমিস্ট বলছে, দক্ষিণ এশিয়ায় প্রতিবেশী তিন দেশের তুলনায় বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থান অনেকটাই ভালো। করোনা মহামারির সকল ধাক্কা কাটিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশের অর্থনীতি। অনেক ক্ষেত্রে শেখ হাসিনা করোনা জয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন।

দৈনিক ভোরের পাতার নিয়মিত আয়োজন ভোরের পাতা সংলাপের ১৬৩ তম পর্বে এসব কথা বলেন আলোচকরা। বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সাবেক ডিন ড. প্রিয়ব্রত পাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ড. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া কাঞ্চন, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক, বহির্বিশ্বে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য প্রতিষ্ঠাতা আফছার খান সাদেক। দৈনিক ভোরের পাতার সম্পাদক ও প্রকাশক ড. কাজী এরতেজা হাসানের পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনা করেন সাবেক তথ্য সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদ।

ড. প্রিয়ব্রত পাল বলেন, এই করোনাকালীন সময়ে আমারা কৃষিখাতে অনেক উন্নতি করেছি। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্যি যে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে আমাদের একটু ঘাটতি রয়ে গেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কিছু দুর্নীতি সম্বন্ধে আমরা জেনেছি। এখানে স্বাস্থ্যখাতে যদি আমরা উন্নতি না করতে পারি তাহলে কিভাবে এই করোনাকে আমরা তাড়াতে পারবো। বাস্তবতা হচ্ছে মানুষজন স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে উদাসীন। অথচ একজনের উদাসীনতা অন্যের জন্যও বিপদ ডেকে আনতে পারে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিসে কর্মরত কর্মকর্তা, কর্মচারী ও সংশ্লিষ্ট অফিসে আগত সেবা গ্রহীতারা ছাড়াও সব জায়গায় মাস্ক ব্যবহারের বাধ্যবাধকতা করে ইতোপূর্বে পরিপত্র জারি করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। পরিপত্রে সংশ্লিষ্ট অফিস কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া হাট-বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতারা মাস্ক ব্যবহার করবেন। মাস্ক পরিধান ছাড়া ক্রেতা-বিক্রেতারা কোনো পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করবে না। স্থানীয় প্রশাসন, ও হাট-বাজার কমিটি বিষয়টি নিশ্চিত করবে। গণপরিবহনের (সড়ক, নৌ, রেল ও আকাশপথ) চালক, চালকের সহকারী ও যাত্রীদের মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। গণপরিবহনে আরোহণের পূর্বে যাত্রীদের মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও মালিক সমিতি বিষয়টি নিশ্চিত করবে। আমি দুটি দেশের উদাহরণ দিতে চাচ্ছি। এই বিষয়ে মঙ্গোলিয়া কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে, যেহেতু তারা সমাজতান্ত্রিক দেশ। এক্ষেত্রে আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে নো মাস্ক, নো সার্ভিস এই নীতি চালু করেছেন তা অনেক কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে আমি বিশ্বাস করি। সব প্রকার সামাজিক অনুষ্ঠানে আগত ব্যক্তিদের মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করতে হবে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধান নিশ্চিত করবে। বাড়িতে করোনাভাইরাসের উপসর্গসহ কোনো রোগী থাকলে পরিবারের সুস্থ সদস্যদের মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। তাই বাঁচতে হলে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে। কেবল আইন মানার জন্য নয়, নিজের জীবনের ঝুঁকি এড়ানোর জন্যও। করোনার সকল নিয়ম কানুন গুলি কঠোরভাবে মানতে হবে। তাতেই যদি আমরা এর থেকে পরিত্রাণ পেতে পারি।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






আরও সংবাদ
https://www.dailyvorerpata.com/ad/BHousing_Investment_Press_6colX6in20200324140555 (1).jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/431205536-ezgif.com-optimize.gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]