শুক্রবার ● ২৭ নভেম্বর ২০২০ ● ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ ● ১০ রবিউস সানি ১৪৪২
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
কার্যকরী ভ্যাকসিন আসার আগ পর্যন্ত মাস্কটাই সবচে বড় ভ্যাকসিন: ডাঃ মোঃ সালেহ মাহমুদ তুষার
সিনিয়র প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ১০:৩০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

কার্যকরী ভ্যাকসিন আসার আগ পর্যন্ত মাস্কটাই সবচে বড় ভ্যাকসিন: ডাঃ মোঃ সালেহ মাহমুদ তুষার

কার্যকরী ভ্যাকসিন আসার আগ পর্যন্ত মাস্কটাই সবচে বড় ভ্যাকসিন: ডাঃ মোঃ সালেহ মাহমুদ তুষার

করোনাভাইরাস মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় এখনই অনেক দেশ আবার জনসাধারণের অবাধ চলাচলে কড়াকড়ি করেছে। কোনো কোনো দেশ নতুন করে লকডাউন আরোপের কথাও ভাবছে। বাংলাদেশেও এরই মধ্যে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ আঘাত হানতে শুরু করেছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। আসছে শীতে যার তীব্রতা আরও বাড়তে পারে। ফলে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় সরকার আবারও সমন্বিত রোড ম্যাপ প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে চলছে নানা প্রস্তুতি। এরই মধ্যে করণীয় নির্ধারণে সরকারের কাছে একগুচ্ছ প্রস্তাব পেশ করা হয়েছে বিশেষজ্ঞদের পক্ষ থেকে। এর মধ্যে জনসাধারণকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি যথাযথ মানতে সরকারকে কঠোর হতে পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

দৈনিক ভোরের পাতার নিয়মিত আয়োজন ভোরের পাতা সংলাপের ১৩৮ তম পর্বে এসব কথা বলেন আলোচকরা। রবিবার (২৫ অক্টোবর) আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল ইসলাম খান, ঢাকা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, ঢাকা মেডিকেল কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি, যুক্তরাজ্য, লন্ডন,  ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের চিকিৎসক ডা: আবদুল্লাহ জাকারিয়া, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা গবেষক ডাঃ মোঃ সালেহ মাহমুদ তুষার। দৈনিক ভোরের পাতার সম্পাদক ও প্রকাশক ড. কাজী এরতেজা হাসানের পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনা করেন সাবেক তথ্য সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদ।

ডাঃ মোঃ সালেহ মাহমুদ তুষার বলেন, করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ে আমরা একটু আতঙ্কিত আছি আবার সচেতনতার দিক দিয়ে আমরা একটু হাল ছেড়ে দিয়েছি কিন্তু এইযে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আসছে এর জন্য আমরা সবাই একটু সচেতন হচ্ছি আবার। করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় বলতে আমি এটা সবাইকে বুঝাতে চাচ্ছি যে, প্রথমে এক ঝাঁক লোক করোনা আক্রান্ত হয়েছে আবার দ্বিতীয় দিকে পরবর্তী এক ঝাঁক লোক আক্রান্ত হতে পারে। এটাও হতে পারে যে লোক প্রথমে আক্রান্ত্র হয়েছে তিনি পরেও আবার আক্রান্ত হতে পারে। যেহেতু এটা প্রমাণিত না যে এই করোনা ভাইরাস দ্বিতীয়বার এই করোনা ভাইরাস আবার আক্রমণ করে কি করে না, তাই আমাদের সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। আমরা এইরকম বেশ কয়েকটি কেইস পেয়েছি যে, প্রথমে যারা আক্রান্ত হয়েছে তারা দ্বিতীয়বারেও আক্রান্ত হয়েছে কারণ তাদের শরীরে পর্যাপ্ত এন্টিবডি ছিলো না। তাই আমাদেরকে সবাইকে বাড়তি সচেতনতা নিতে হবে। যে কোনো মহামারীর দুই তিনটি ওয়েভ থাকতে পারে। জার্মানি, স্পেন, ফ্রান্সসহ বিভিন্ন দেশে স্কুল কলেজ খুলে দেবার পর বেড়ে যায় করোনা সংক্রমণের হার। মূলত এটিই হলো সংক্রমণের দ্বিতীয় আঘাত। আমার শরীরে এন্টিবডি আছে কিন্তু আরেকজনের দ্বারা আমি হাতে বা শরীরে অন্য স্থানে করোনা ইনফেক্টেড হয়ে আমার না হয়েও হয়তো আমার পরিবারের অন্য কাউকে এটা ছড়িয়ে দিচ্ছি মনের অজান্তে। এই বিষয়টাকে একটু খেয়াল রাখতে হবে। যেহেতু এটা একটা ভাইরাসজনিত রোগ, হাঁচি-কাশির মাধ্যমে বায়ুবাহিত হয়েই অন্যকে ছড়ায়। আসলে কেউ এ রোগ থেকে শতভাগ ইমিউন না। অন্যান্য রোগ থাকুক আর না থাকুক, যে কেউ এই রোগে আক্রান্ত হতে পারে, তবে যারা বয়স্ক, শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কম অথবা অন্যান্য দীর্ঘমেয়াদি রোগে আক্রান্ত তাদের এই রোগের জটিলতা অনেক বেশি হয়। সুতরাং এসব ভালনারেবল জনগোষ্ঠীকে সঠিক সময়ে সঠিক পরামর্শ দিয়ে ভালো রাখার ব্যবস্থা করতে হবে, না হলে কোভিড হতে আমাদের যেমন মুক্তি মিলবে না, তেমনি হাসপাতালগুলোতে মৃত্যুর মিছিল চলতেই থাকবে। আমাকে সব সময় সতর্ক থাকতে হবে। কার্যকরী একটা ভ্যাকসিন আসার আগ পর্যন্ত মাস্কটাই সবচে বড় ভ্যাকসিন। বাইরে বের হয় আর বাসায় থাকি, যখন যে অবস্থাতেই আমরা থাকিনা কেন আমাদের এই মাস্কটা অবশ্যই পরতে হবে।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






আরও সংবাদ
https://www.dailyvorerpata.com/ad/BHousing_Investment_Press_6colX6in20200324140555 (1).jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/431205536-ezgif.com-optimize.gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: vorerpata24@gmail.com news@dailyvorerpata.com