বৃহস্পতিবার ● ২৯ অক্টোবর ২০২০ ● ১৩ কার্তিক ১৪২৭ ● ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
পালং-জাজিরার উন্নয়নের রুপকার সৎ ও জনপ্রিয় নেতা বিএম মোজাম্মেল হক
ইমামুল কবির
প্রকাশ: শনিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২০, ৮:৪৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

পালং-জাজিরার উন্নয়নের রুপকার সৎ ও জনপ্রিয় নেতা বিএম মোজাম্মেল হক

পালং-জাজিরার উন্নয়নের রুপকার সৎ ও জনপ্রিয় নেতা বিএম মোজাম্মেল হক

আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক, শরীয়তপুর-১ (পালং-জাজিরা) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য পালং-জাজিরার উন্নয়নের রুপকার সৎ ও  জনপ্রিয় নেতা জনাব বি এম মোজাম্মেল হক। 

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সাবেক সংসদ সদস্য বি এম মোজাম্মেল হক শরীয়তপুর-১ পালং-জাজিরার উন্নয়নের প্রত্যেকটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন ভবন, অডিটোরিয়াম, হাসপাতালে ভবন, ডাকবাংলো,  নতুন রাস্তাঘাট, চরা অঞ্চলে সাথে উপজেলা কেন্দ্রীক যোগাযোগের জন্য বহুব্রীজ, কালভার্ট, নতুন নতুন রাস্তা স্থাপন, প্রত্যেক ঘরে ঘরে শতভাগ বিদ্যুৎ নিশ্চিতকরণ, কলেজে,মাদ্রাসায় নতুন ভবন বাস্তবায়ন করেছে। 

শরীয়তপুর-১ পালং-জাজিরার আওয়ামী লীগের দুইবারের সাবেক এই সংসদ সদস্য গত ১০ বছর এমপি থাকাকালিন সময়ে শরীয়তপুরের মাটি ও মানুষের জন্য কাজ করে গেছেন। এবং এখনো বি এম মোজাম্মেল হক গৌরবের সাথে শরীয়তপুরের মাটি ও মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। 

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানকে সহপরিবারে হত্যার পর তৎকালীন যে ছাত্রনেতারা প্রতিবাদ করতে রাজপথে বের হয়েছিল তাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন বি এম মোজাম্মেল হক।  প্রতিবাদ করতে  রাজপথে থাকাকালীন জিয়াউর রহমানের সন্ত্রাসীদের হাতে নিয়মিত অপমানিত, নির্যাতিত ও প্রহারিত হয়েছেন তিনি। 

দেশরত্ন শেখ হাসিনার আস্থাভাজন হিসেবে খ্যাত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির দুইবারের দপ্তর সম্পাদক ও ১নং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বারবার নির্বাচিত সাংগঠনিক সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতি করতে করতে নিজের জীবন- যৌবন পার করেছে। 

বিএম মোজাম্মেল হক টানা দুইবার সাংসদ হওয়ার পরও পূর্বের ১৮০০ স্কয়ার ফিটের সেই পুরানো বাড়িতেই থাকেন। তিনি দুর্নীতি করে ছয় তলা, দশ তলা বাড়ি করে বিলাসবহুল জীবনযাপন করেনি।  আধুনিক শরীয়তপুর-জাজিরার রূপকার, হাজারো উন্নয়নমূলক কাজ নিজ তদারকিতে করেছেন। 

বিএম মোজাম্মেল হক ৮০'র দশকে স্বৈরশাসক এরশাদের আমলে উত্থান হওয়ার পর থেকে সৎ ও নিষ্ঠাবান হিসাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ১/১১ সময় দলের কঠিন সময়ে রাজনীতির তখন বি এম মোজাম্মেল হক  পার্টি অফিসে দিনরাত দলের জন্য কাজ করে গেছেন। 

অথচ আজকে দলের সুসময়ে তাকে লাঞ্ছিত করা হচ্ছে, মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করানো হচ্ছে। দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) বিএম মোজাম্মেল হকের সম্পদের বিবরণ চেয়ে বিভিন্ন দপ্তরে চিঠি পাঠিয়েছেন এমন খবর অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছে। 

এঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে বিএম মোজাম্মেল হক বলেন এটি সম্পূর্ণ অসত্য, মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক।  তিনি বলেন,কিছু কুচক্রীমহল সাথে ষড়যন্ত্র করছে। তিনি আরো বলেন,  দুদকের কর্মকর্তার সাথে মোজাম্মেল হক কথা বলেছেন এমনটি জানিয়ে তিনি বলেন দুদক থেকে এ সংক্রান্ত কোন চিঠি ইস্যু হয় নাই।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






আরও সংবাদ
https://www.dailyvorerpata.com/ad/BHousing_Investment_Press_6colX6in20200324140555 (1).jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/431205536-ezgif.com-optimize.gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: vorerpata24@gmail.com news@dailyvorerpata.com