শনিবার ● ৩১ অক্টোবর ২০২০ ● ১৫ কার্তিক ১৪২৭ ● ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
৯৯৯-এ কল, ৫০ জন যুবককে উদ্ধার করলো নৌ পুলিশ!
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ৫ আগস্ট, ২০২০, ৩:৪৮ পিএম আপডেট: ০৫.০৮.২০২০ ৩:৫৩ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

৯৯৯-এ কল, ৫০ জন যুবককে উদ্ধার করলো নৌ পুলিশ!

৯৯৯-এ কল, ৫০ জন যুবককে উদ্ধার করলো নৌ পুলিশ!

রাত গভীর, চারদিকে সুনসান নীরবতা, আকাশে মেঘের ঘনঘটা। বাংলাদেশ পুলিশের জরুরি সেবায় নিয়োজিত ফোন নম্বার ৯৯৯ থেকে ১টি মেয়ে কণ্ঠ বলে উঠলো-‘এটা কি বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম পাড়? কিছু যুবক পথ হারিয়ে ফেলেছে তাদেরকে উদ্ধার করতে হবে।’ 

মুঠোফোনে জবাবে মেয়েটিকে পুলিশ পরিদর্শক এম এ মান্নান বললেন ‘এটা সেতুর পূর্ব পাড়। আমি পশ্চিমে যিনি কাজ করছেন তার ফোন নম্বর দিচ্ছি।’ মেয়ে পুলিশ সদস্যটি বললো ‘স্যার যদি সম্ভব হয় আপনি এখনি উদ্ধার কর্যক্রম শুরু করে দিন। তারা আতংকিত এবং ভয় পাচ্ছে।;

বর্তমানে মহামারি করোনা ভাইরাসের কারনে গত ১৮ মার্চ থেকে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ আছে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীরা অনলাইনে ক্লাস শুরু করেছে ফলে বাড়ি থেকে বাইরে যাওয়া প্রায় বন্ধ। 

অনেক ছাত্ররা ঘরে বসে হাঁপিয়ে উঠেছে। তাই বুক ভরে নিঃশ্বাস নিতে ও দিনটা আনন্দের প্রাচুর্যতায় ভরিয়ে দিতে এক ঝাঁক উৎসাহিত বালক ও যুবক নৌকা নিয়ে বর্ষার সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে বের হয়। যেই ভাবা সেই কাজ।

গতকাল সকাল ১০ টায় পিকনিক করার উদ্দেশ্যে নৌ ভ্রমনে বের তারা। গন্তব্য বঙ্গবন্ধু সেতু। বঙ্গবন্ধু সেতু চারদিকে বর্ষার থৈ থৈ পানি আর হিমেল হাওয়া উড়ু– উড়ু– করে দেয় মন। সিদ্ধান্ত নেয় সারা দিন নদী ভ্রমন করবে।

কিন্তু বঙ্গবন্ধু সেতু পরিদর্শনে আগত ৫০ জন যুবক পরে যায় মহা বিপাকে। টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর উপজেলার দাপ্তিক ইউনিয়নের মাইঝাইল গ্রামের তরুন স্থানীয় কলেজে ১ম বর্ষে পড়ুয়া তিনি। বুদ্ধি করে ৯৯৯ এ ফোন করেন। 

এর মধ্যে ১৩ জন ছেলে দৌলতপুর পিএস হাইস্কুল এবং ৩ জন ছেলে মাইঝালি বাজার প্রাইমারি স্কুলে পড়া লেখা করে। এছাড়াও রয়েছে মাতিলাল ডিগ্রি কলেজ দৌলতপুর মানিকগঞ্জের ১৬ জন ছাত্র। সাথে বাদ্যযন্ত্র বাজানোর টেকনিশিয়ান এবং নৌকার মাঝি। 
সারাদিন নদীতে কাটানোর পর বিকাল ৭ টায় দিকে নাগরপুরে ফেরার পথে নৌকাটির ইঞ্জিন নষ্ট হয়ে যায়। মাঝি নৌকার ইঞ্জিন মেরামতের শত চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যায়। 

এর পর প্রকৃতির নিয়মে নদীর তীব্র স্রোতের কারনে নৌকাটি ভাসতে ভাসতে যমুনা সেতু থেকে প্রায় ২২ থেকে ২৫ কিলোমিটার ভাটিতে সিরাজগঞ্জের বেলকুচি থানার অধীন নদীর মাঝে ছোট্ট একটা চরে আটকা পরে যায়। ইতিমধ্যে নৌকার ভীত সন্ত্রস্ত যাত্রীরা ৯৯৯ এ কল করে উদ্ধার পেতে সাহায্য কামনা করে। 

তারপর নৌ পুলিশের চৌহালী নৌপুলিশ স্টেশন, বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব নৌপুলিশ স্টেশন, বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম নৌপুলিশ স্টেশন, সিরাজগঞ্জ নৌপুলিশ স্টেশন তৎপর হয়ে ওঠে।ক্রমাগত ফোনে যোগাযোগ করে এবং দিতে থাকে নৌ পুলিশ সদস্যরা। এক পর্যায়ে বিশাল বঙ্গবন্ধু সেতুর নীচে থেকে যাত্রীসহ নৌকার অবস্থান খুজে বের করে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব নৌ পুলিশ স্টেশন। 

পুলিশ পরিদর্শক মান্নান বুদ্ধি করে ভুক্তভুগীদের জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানি, শুকনো খাবার নিয়ে নেন। নৌ পুলিশের কর্ম তৎপরতা ও আতিথিয়তার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে ঐ যুবকের দল। 

ততক্ষনে মধ্যরাত পেরিয়ে ভোর ৪ টা বেজে গেছে। এবার টেকনিশিয়ানকে ডেকে নৌকা সম্পূর্নরুপে মেরামত করে বাড়ি পাঠায় নৌপুলিশ। ভবিষ্যতে এই ধরনের কাজ না করতে উৎসাহিত করা হয় এ সকল ছাত্রদের।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






আরও সংবাদ
https://www.dailyvorerpata.com/ad/BHousing_Investment_Press_6colX6in20200324140555 (1).jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/431205536-ezgif.com-optimize.gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: vorerpata24@gmail.com news@dailyvorerpata.com