শনিবার ● ৪ জুলাই ২০২০ ● ২০ আষাঢ় ১৪২৭ ● ১২ জিলক্বদ ১৪৪১
‘অদ্ভুত’ শর্তে বিশ্বকাপ খেলতে চায় ভারত-পাকিস্তান
প্রকাশ: রোববার, ২৮ জুন, ২০২০, ১১:২৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

‘অদ্ভুত’ শর্তে বিশ্বকাপ খেলতে চায় ভারত-পাকিস্তান

‘অদ্ভুত’ শর্তে বিশ্বকাপ খেলতে চায় ভারত-পাকিস্তান

দুই দেশের রাজনৈতিক কারণে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে ভারত ও পাকিস্তানের পারস্পারিক ক্রিকেট। কোনোভাবেই দু’দেশের মধ্যে ক্রিকেট সম্পর্ক চালু করা যাচ্ছে না। তবে এতদিন আইসিসি আয়োজিত ইভেন্টগুলোতে মুখোমুখি হতো এই দুই দেশ। তবে এবার বিশ্বকাপে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে একে-অপরকে অদ্ভুত শর্ত দিচ্ছে ভারত-পাকিস্তান।

দুই বছর ব্যবধানে পরপর দুটি বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ ভারত। ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপও আয়োজন করতে চলেছে বিরাট কোহলির দেশ। এই দুই বিশ্বকাপে অংশগ্রহণের বিষয় তো অনেক দুরে।

তার আগেই আইসিসির কাছে একটি নিশ্চয়তা চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। সেই চিঠিতে তারা আইসিসির কাছে দাবি জানিয়েছে, বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার সময় ভিসা নিয়ে কিংবা খেলতে যাওয়ার পর কোনো রকম বাধা-বিপত্তিতে পড়বে না পাকিস্তান দল, সে নিশ্চয়তা দিতে হবে আইসিসির পক্ষ থেকে।

পিসিবির এই চিঠির কথা জানতে পেরে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে গ্যারান্টি দিতে হবে, তারা ভারতে এসে কোনো ধরনের সন্ত্রাসী কার্যক্রমের সঙ্গে জড়াবে না।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান ক্রিকবাজের সঙ্গে ইউটিউব চ্যানেলে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যেই আইসিসিকে বলেছি, ভারতে খেলতে গিয়ে যাতে কোনো রকম সমস্যায় পড়তে না হয়, ভিসা পেতে কোনও সমস্যা না হয়, এ ব্যাপারে আমাদের লিখিত নিশ্চয়তা দিতে হবে। কয়েক মাসের মধ্যেই ভারতীয় বোর্ড নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করুক।’

পাকিস্তান যদি বিশ্বকাপের খেলার জন্য ভারতে আসে, তা পরিস্থিতি কী হতে পারে, তা নিয়ে যথেষ্ট উদ্বেগ রয়েছে। তাদের নিরাপত্তার বিষয়টিই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া ভিসা নিয়েও ভারত সরকার ঝামেলা তৈরি করতে পারে বলে শঙ্কিত পাকিস্তান।

পিসিবির এই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) এক কর্মকর্তা সংবাদ সংস্থা আইএএনএসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আইসিসির নিয়মেই স্পষ্ট করে বলা আছে যে, খেলাধুলা চলাকালীন এ সম্পর্কিত কোনো বিষয়ে কোনো সরকার হস্তক্ষেপ করতে পারবে না। এটা ক্রিকেট বোর্ডের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। তারাও কোনোভাবে সরকারের কার্যক্রমে কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করতে পারবে না।’

এরপরই বিসিসিআইয়ের ওই কর্মকর্তা পাকিস্তানকে বলে দেন, তারাও যেন লিখিত গ্যারান্টি দেয় যে, তারা ভারতের আসার জন্য ভিসা চাওয়ার আগে সীমান্তে কোনো ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করবে না।

তিনি বলেন, ‘পিসিবি কি আমাদেরকে কোনো লিখিত গ্যারান্টি দিতে পারবে যে, পাকিস্তান সরকার নিশ্চিত করবে, তাদের পক্ষ থেকে ভারতে কোনো ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করা হবে না। সীমান্তে পাকিস্তানিরা ভারতের ওপর আক্রমণ করবে না। কিংবা পুলওয়ামা টাইপের কোনো ধরনের জঙ্গি কার্যক্রম পরিচালনা করবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘আইসিসি মেন্ডেতেই তো বলা আছে খেলা চলাকালীন সরকার এ নিয়ে কোনো কিছুতে নাক গলাবে না। একইভাবে ক্রীড়া সংস্থাগুলোও করবে না। এ বিষয়টা পিসিবিকে খুব ভালোভাবে বোঝা উচিৎ এবং আইসিসিতে ভারতের স্বার্থ বিরোধী কর্মকাণ্ড চালানোর এজেন্টের ভূমিকাও বন্ধ করা উচিৎ। আমি বলতে চাই, ভারত হচ্ছে চমৎকার একটি দেশ এবং খুব ভারসাম্যপূর্ণভাবেই সবার সঙ্গে আচরণ করে।’

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »




আরও সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: vorerpata24@gmail.com news@dailyvorerpata.com