বৃহস্পতিবার ● ২৮ মে ২০২০ ● ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ ● ৪ শওয়াল ১৪৪১
এসএসসি ও সমমানের ফল ঈদের পর
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৯ মে, ২০২০, ৯:২২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

এসএসসি ও সমমানের ফল ঈদের পর

এসএসসি ও সমমানের ফল ঈদের পর

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে শিক্ষাবোর্ডগুলো। প্রাক নিবন্ধন কার্যক্রমও শুরু হয়েছে। নতুন ব্যবস্থায় প্রাক নিবন্ধন করা থাকলে অবসান ঘটবে দীর্ঘ অপেক্ষার। দ্রুততম সময়ে মোবাইলেই পৌঁছে যাবে ফল। তবে ঈদের আগে ফল প্রকাশ করা সম্ভব হবে না বলে জানিয়েছেন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক।

মঙ্গলবার (১৯ মে) অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, 'আমরা প্রস্তুত। তবে করোনার কারণে নতুন ব্যবস্থাই ফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। নতুন ব্যবস্থায় প্রাক নিবন্ধন করলেই পূর্বের মতো দীর্ঘ অপেক্ষা করতে হবে না। ফল প্রকাশের সাথে সাথেই শিক্ষার্থীর কাছে পৌঁছে যাবে। তবে ঈদের আগে ফল প্রকাশ করা সম্ভব হচ্ছে না।'

সোমবার থেকে গ্রাহকদেরকে এরইমধ্যে এসএমএসের মাধ্যমে সে তথ্য জানানোর কাজ শুরু হয়ে গেছে। ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের সিনিয়র সিস্টেম অ্যানালিস্ট প্রকৌশলী মনজুরুল কবীর বলেন, 'পরিস্থিতি বিবেচনায় আমরা এবার ব্যতিক্রম একটি উদ্যোগ নিয়েছি। আরও সহজতর করতে আগেই প্রাক-নিবন্ধন শুরু করে দিয়েছি। নতুন ব্যবস্থায় প্রাক নিবন্ধন করা থাকলে দ্রুত সময়ে ফল পেয়ে যাবে শিক্ষার্থীরা। এতদিন যেহেতু ফল প্রকাশের দিন এসএমএস করলে ফিরতি মেসেজে জানিয়ে দেয়া হতো ফল। কিন্তু সেই খুদে বার্তা ফিরতি মেসেজে ফল পেতে বেশ সময় নিত। এবারের এ ব্যবস্থায় আধ ঘণ্টার মধ্যেই ফল পেয়ে যাবে শিক্ষার্থীরা। তবে পূর্বনির্ধারিত নিয়মেও ফল প্রকাশ করা হবে। ফলে স্কুলে গিয়ে ফল আনার নিয়মটা বোধহয় এবার আর থাকছে না।'

ঘরে থেকেই সরাসরি মোবাইলে ফল পেতে প্রাক নিবন্ধনের জন্য যেকোনো মোবাইল অপারেটরের নম্বর থেকে মেসেজ করতে হবে। সেজন্য টাইপ করতে হবে এই নিয়মে: SSC<>Board Name<>Roll<>Year। আর এটি পাঠিয়ে দিতে হবে ১৬২২২ নাম্বারে। প্রতি এসএমএসের জন্য দুই টাকা চার্জ নেয়া হবে।

চলতি বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয় ৩ ফেব্রুয়ারি। তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষ হয় ২৭ ফেব্রুয়ারি। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হয় ৫ মার্চ। এবার মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন। এসএসসিতে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৪ লাখ ২২ হাজার ১৬৮ জন। এরমধ্যে অংশ নিয়েছে ১৪ লাখ ১৬ হাজার ৭২১ জন। করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দীর্ঘ ছুটির কারণে নির্ধারিত সময়ে (পরীক্ষার পর ৬০ দিন) ফল প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি। ফলে এই অনিশ্চিয়তায় চলতি মাসের মধ্যেই ফল প্রকাশ প্রকাশের লক্ষ্যে প্রস্তুতি নিয়েছিল শিক্ষা বোর্ড গুলো। ফলে ঈদের পরে ফল প্রকাশ করা হবে।

সূত্র: ঢাকা টাইমস

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »




আরও সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]