শুক্রবার ● ৫ জুন ২০২০ ● ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ ● ১২ শওয়াল ১৪৪১
অসহায়দের সহায়তায় জার্সি নিলামে তুলছেন সাবেক ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসান
২ লাখ টাকায় কিনতে চেয়েছেন তরুণ ব্যবসায়ী তানজিম কালাম তমাল
প্রকাশ: শনিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২০, ৭:২২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

অসহায়দের সহায়তায় জার্সি নিলামে তুলছেন সাবেক ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসান

অসহায়দের সহায়তায় জার্সি নিলামে তুলছেন সাবেক ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসান

সাবেক ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসান নিজের একটি স্মরণীয় স্মারক নিলামে তোলার ঘোষণা দিয়েছেন। করোনাভাইরাস আক্রান্ত ও দুস্থদের সহায়তায় জন্য ২০১৩ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ব্যবহৃত জার্সি নিলামে তুলেছেন তিনি।

ইতিমধ্যে দেশ বরেণ্য ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসানের জীবনের অন্যতম এই সেরা জার্সিটির নিলামের প্রথম ডাক হিসেবে ২ লাখ টাকায় কিনতে চেয়েছেন তরুণ ব্যবসায়ী তানজিম কালাম তমাল। তিনি সাতক্ষীরার ক্রীড়া পৃষ্টপোষক তুফান কোম্পানী লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক। শনিবার (২৫ এপ্রিল) বিকালে তিনি এই জার্সিটি দুই লাখ টাকায় কিনতে চেয়েছেন।

তানজিম কালাম তমাল বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে গোটা বিশ্ব স্থবির। এমন পরিস্থিতিতে এগিয়ে আসছেন দেশ বিদেশের অনেক খেলোয়াড়রা। যে যার অবস্থান থেকে অর্থ সংগ্রহে এগিয়ে আসছেন। অনেকে নিলামে তুলছেন নিজেদের জার্সি ব্যাটসহ জীবনের অনেক স্মরনীয় মূহুর্তের স্মারকগুলি। ঠিক এমনই সময় নিজের স্মরনীয় জার্সি নিলামে তোলার ঘোষনা দেন, দেশের খ্যাতিমান সাবেক ফিফা রেফারি সাতক্ষীরার তৈয়ব হাসান । তার এই চিন্তাকে সাধুবাদ জানাতে আমি প্রাথমিকভাবে এটি কিনতে রাজি হয়েছি। তবে তিনি আশা করেন নিলামে জার্সিটির মুল্য আরও বেশী হবে। এই নিলামে সকলকে অংশ গ্রহণের জন্য আহবান জানিয়ে তিনি আরো বলেন, যদি কোনো সহৃদয়বান ব্যক্তি তার এই মহতি উদ্যোগে এগিয়ে আসেন তাহলে তিনি খুশীই হবেন।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ ১৮ বছরের আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দাপিয়ে রেফারিং করা তৈয়ব হাসান ২০১৩ সালে নেপালের কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম রেফারি হিসেবে সাফের ফাইনাল ম্যাচ পরিচালনা করেন। সে ম্যাচে ভারতকে ২-০ গোলে হারিয়ে আফগানিস্তান চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। এই ম্যাচে তিনি যে জার্সিটি পরে খেলা পরিচালনা করেন তৈয়ব হাসান সেই জার্সিটি সম্প্রতি নিলামে তোলার ঘোষনা দেন।

তৈয়ব হাসান সামসুজ্জামান বলেন, তিনি করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে তার জীবনের অনন্য এই জার্সিটি নিলামে তুলতে চান। তা থেকে প্রাপ্ত অর্থ তিনি পুরোটাই ব্যয় করবেন করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য।

রেফারি হিসেবে সবচেয়ে বেশী আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করার রেকর্ড রয়েছে তৈয়ব হাসান সামসুজ্জামানের। টানা ১০ বছর এএফসির এলিট প্যানেলেও ছিলেন তিনি।

আন্তর্জাতিক রেফারি ছিলেন ১৯৯৯-২০১৬ সাল পর্যন্ত। দীর্ঘ ১৮ বছরে ১০০-এর বেশী আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করেন তিনি। বিশ্বকাপ বাছাই, অলিম্পিক বাছাই, এএফসি চ্যাম্পিয়নস লীগ, এএফসি কাপ, দুটি এশিয়ান গেমস, এএফসি বিভিন্ন টুর্নামেন্টের ফাইনাল রাউন্ড, সাফ, সাফ গেমসসহ অনেক ম্যাচ পরিচালনার বর্নাঢ্য অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। ফিফা রেফারী হিসেবে তিনি জাপান, চীন, কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া, সৌদি, কাতার, কুয়েত, ইরান, জর্ডানসহ ৪০টির মত দেশে খেলা পরিচালনা করেছেন। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

বাংলাদেশি রেফারিদের মধ্যে তৈয়ব হাসান সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করেছেন। ১৯৯৯ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত বাঁশি বাজিয়েছেন তিনি। অবসরে যাওয়ার আগ পর্যন্ত ২৫ বছরের রেফারিং ক্যারিয়ারে প্রায় ১০০ আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করেন তিনি।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »




সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]