শুক্রবার ● ২৯ মে ২০২০ ● ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ ● ৫ শওয়াল ১৪৪১
ভারতে দেওবন্দ ও নিজামুদ্দীন বিরোধী সকল ষড়যন্ত্র বন্ধ হোক: শতাধিক কওমি আলেমদের বিবৃতি
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: বুধবার, ২২ এপ্রিল, ২০২০, ৬:১৬ পিএম আপডেট: ২২.০৪.২০২০ ৮:৩৯ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

ভারতে দেওবন্দ ও নিজামুদ্দীন বিরোধী সকল ষড়যন্ত্র বন্ধ হোক: শতাধিক কওমি আলেমদের বিবৃতি

ভারতে দেওবন্দ ও নিজামুদ্দীন বিরোধী সকল ষড়যন্ত্র বন্ধ হোক: শতাধিক কওমি আলেমদের বিবৃতি

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের ভায়াবহ বিস্তৃতির ফলে গোটা মানবজাতি আজ চরম বিপর্যয়ের সম্মুখীন। এই মহামারী কোন দেশ, ধর্ম বা বর্ণ দেখে আসেনি। আর এমন ভয়াবহতার কথা আগে কেউ চিন্তাও করতে পারে নি। সারা দুনিয়ার পুরো মানবজাতি যখন এই মহামারী থেকে মুক্তির লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ চেষ্টা করে যাচ্ছে, তখন ভারতে তাবলীগ জামাতের সদর দপ্তর নিজামুদ্দীন ও উম্মুল মাদারিস ঐতিহ্যবাহী দারুল উলুম দেওবন্দকে জড়িয়ে শুরু হয়েছে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র ও ভয়ঙ্কর অপপ্রচার। এমন দুর্যোগকালে অসাম্প্রদায়িক সম্পৃতি নষ্ট করে ভাতৃঘাতি সংঘাত উগড়ে দেওয়ার মত ঘৃণ্য কাজের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশের শতাধিক আলেম।

জাতীয় কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বাংলাদেশের পক্ষে দেশের এসব শীর্ষ উলামায়ে কেরাম আরো বলেন, আমরা অত্যন্ত পরিতাপের সাথে জানাতে চাই, গোটা বিশ্ব যখন ধর্ম-বর্ণের ভেদাভেদ ভুলে মানুষ-মানুষে এক হয়ে চলমান দুর্যোগ থেকে বাঁচার পথ খুঁজছে, তখন অসাম্প্রদায়িক ভারতের কিছু কিছু মিডিয়া এবং কতিপয় ব্যক্তি এটাকে সাম্প্রদায়িক রূপ দিয়ে হিন্দু-মুসলিম বিভাজন সৃষ্টি করতে মরিয়া হয়ে কাজ করে যাচ্ছে।  নিজামুদ্দিন মারকাজ ও মাওলানা সা'দ কান্ধলভীকে ঘিরে ও সম্প্রতি দারুল উলুম দেওবন্দ নিয়ে যে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে, তা ভারতের উজ্জ্বল ভাবমূর্তিকে শুধু মুসলিমদের কাছেই নয়, বরং গোটা বিশ্বের সব ধর্মাবলম্বীদের কাছে ম্লান করে দিচ্ছে।

জাতীয় কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের আলেমরা বিবৃতিতে আরো বলেন, একথা স্বীকৃত যে, তাবলীগ হলো বিশ্বময় একটি অরাজনৈতিক, মানবতাবাদী ও অহিংস আন্দোলন। সারা দুনিয়াতে এ মেহনতের কর্মীদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় আইন ভঙ্গের কোনো রেকর্ড নেই।  এমন অভিযোগ আজ পর্যন্ত কেউ করেনি, করতে পারবেও না, ইনশা আল্লাহ। 

আলেমরা আরো বলেন, তাবলীগের সদর দপ্তর (কেন্দ্রীয় কার্যালয়) দিল্লীস্থ বাংলাওয়ালী নিজামুদ্দিন মসজিদ শুধু ভারত নয়, গোটা বিশ্ববাসীর গর্ব, অহংকার ও পরম শ্রদ্ধার জায়গা। তাছাড়া বিশ্বতাবলীগের আমীর, মাওলানা সা'দ কান্ধলভী শুধু একজন ব্যক্তি নন। তিনি একটি প্রতিষ্ঠান। পুরো মুসলিম জাহানের জগতখ্যাত একজন অনুসরণীয় মহান ব্যক্তিত্ব তিনি।  প্রায় দুই যুগ ধরে তিনি ভারতসহ বিশ্বমুসলিম উম্মাহকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। তাঁর পূর্বপুরুষগণ ছিলেন বৃটিশবিরোধী আন্দোলনের অগ্রসেনানী। তাঁকে জানার জন্য ও তাঁর দিকনির্দেশনা বুঝার জন্য সকল মহাদেশের হাজার হাজার আল্লাহভীরু মানুষ হাজির হন নিযামুদ্দীন মারকাযে। তাঁর যেকোন একটি পূর্ণাঙ্গ বয়ান শুনলেই বোঝা যাবে যে, তিনি কতটা মানবদরদী, ভদ্র এবং সজ্জন ব্যক্তি। সুতরাং এই মারকাজ ও তাঁর কর্ণধারকে ঘিরে 'করোনা ভাইরাস' ছড়ানোর অভিযোগ এনে গোটা ভারতের মুসলমানদেরকে যেভাবে টার্গেট করা হচ্ছে, তা শুধু দুঃখজনকই নয়, চরম নিন্দনীয়ও বটে।

উল্লেখ্য যে, করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ভারত সরকারের হঠাৎ লকডাউন ঘোষণার কারণে অন্যান্য জায়গার মত নিজামুদ্দিন মারকাজেও তাবলীগের কিছু সাথী আটকে যায়। এসকল ব্যক্তিদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্হা করার পুরো দায়িত্ব ছিল দিল্লি সরকারের।  যেমনটি কোন কোন অঙ্গরাজ্য সরকার করেছে বলে আমরা সংবাদমাধ্যমে জানতে পেরেছি।  কিন্তু মারকাজ কর্তৃপক্ষ নিজ উদ্যোগে তাদেরকে বাড়ি ফেরানোর সমস্ত ব্যবস্থা করেও প্রশাসন থেকে অনুমতি পায়নি।  তাই আমরা বলবো, ভারত সরকার নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতেই যে এ মহান প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির পেছনে পড়েছে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। তাদের এহেন পদক্ষেপ ভারতের উদারনীতিকে গোটা বিশ্বের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ করে দিয়েছে। তাই আমরা বাংলাদেশ জাতীয় কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের সমস্ত উলামায় কেরাম, দারুল উলুম দেওবন্দ ভারত, জমিয়তে উলামায়ে হিন্দ ভারত ও ভারতের আপামর মুসলিম জনতার সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে বলতে চাই, নিজামুদ্দিন মারকাজ ও বিশ্বআমীর মাওলানা সা'দ কান্ধলভীকে ঘিরে সকল প্রকার ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার বন্ধ করে চক্রান্তকারীদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া সময়ের দাবী। পাশাপাশি বিভিন্ন জায়গায় তাবলিগের কয়েকজন বৈধ ভিসাধারী বিদেশী সাথীকে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করার মতো যে উদ্বেগজনক খবর মিডিয়ায় আসছে, তা ভারত সরকারের পররাষ্ট্রনীতির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।  অতিদ্রুত তাদেরকে মুক্তি দিয়ে নিজ নিজ দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা ভারত সরকারের গুরুদায়িত্ব। এছাড়াও বিভিন্ন জায়গায় কতিপয় সাথীদের উপর আরোপিত অহেতুক মামলা ও হয়রানী বাতিল করে বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশের যে মেহমানগণ ভারতে আটকে আছেন, তাদেরকেও নিজ নিজ দেশে ফেরার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। 

জাতীয় কওমী মাদরাসা বোর্ড বাংলাদেশ এর পক্ষে বিবৃতিদাতারা হলেন:

মুফতী ইজহারুল ইসলাম চৌধুরী, মাওলানা মোশাররফ হোসেন, মুফতী আতাউর রহমান কাসেমী, মাওলানা জিয়া ইবনে কাশেম, শায়খুল হাদীস জাফর আনোয়ার কাসেমী, শায়খুল হাদীস মুফতী নুরুল ইসলাম কাসেমী, মাওলানা শেখ আবদুল্লাহ মনসুর, মাওলানা মুনির বিন ইউসুফ, মুফতী শফীউল্লাহ শফী, মাওলানা ইবরাহীম সিলিস্তানী, মুফতী ফয়জুর রহমান, শায়খুল হাদীস মুফতী আব্দুল কাইয়ুম, মাওলানা আব্দুর রশীদ চাঁদপুরী, মাওলানা সাইফুল্লাহ বিন নূরী, মুফতী ড. বশীরুল্লাহ, মাওলানা ফরীদ আহমাদ নীলফামারী, মাওলানা রুহুল আমীন ঢাকুবী, মাওলানা আব্দুর রহমান হবিগঞ্জ, পীরে তরীকত মাওলানা আব্দুল হক মোহাদ্দিসে হবিগঞ্জ, মাওলানা মুয়ায বিন নূর, মাওলানা বোরহান, মাওলানা মুনীর বিন শাকীম কাসেমী, মাওলানা মু'তাসিম মাওলা, শায়খুল হাদীস মাওলানা হোসাইন আহমদ, মাওলানা আযীযুল করীম, মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ, মাওলানা আনাস বিন মুজ্জাম্মিল হক, মাওলানা ওয়াসীউর রহমান নোয়াখালী, মুফতী আযীমুদ্দীন, লেখক গবেযক বহুগ্রন্থ প্রণেতা মাওলানা সৈয়দ আনোয়ার আব্দুল্লাহ, মুফতী ইমরান সাভার, মুফতী আজিমুদ্দীন, মুফতী মাসুম খুলনা, মুফতী তোফায়েল আহমাদ দিনাজপুর, মাওলানা ইউসুফ, মাওলানা মুজাহিদ রংপর, মুফতী  নোমান  বিন নূর, মাওলানা নুরুল আফসার চট্টগ্রাম, শায়খুল হাদীস মাওলানা শিহাব উদ্দীন, মুফতি মাসুম বিল্লাহ, মাওলানা মুস্তাফা আজাদ, মাওলানা আব্দুস সামাদ, মাওলানা আবুল কাশেম, মাওলানা সুফিয়ান কাসেমী, মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন, মাওলানা আব্দুল করিম, মুফতি সাজিদুর রহমান, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা আতাউর রহমান, মুফতী আব্দুল জব্বার, মুফতি রেজাউল হক, মাওলানা নজরুল ইসলাম হায়দারাবাদী, মাওলানা আবুল খায়ের, মাওলানা আব্দুল্লাহ ভেড়ালিয়া, হাফেজ মুহাম্মদ ওজিউল্লাহ, মাওলানা আব্দুল কবির কাসেমী, মুফতী নোমান আবদুল্লাহ, মাওলানা আসাদুল্লাহ,  মাওলানা মশিউর রহমান, মাওলানা আব্দুর রহমান হক্কানী, মাওলানা জিয়াউর রহমান ঢাকুবী, মাওলানা জাকারিয়া নোমান  তাশগরী, মুফতি আবুল হাসান, মাওলানা আব্দুল হাকীম, মুফতি ফারুক আহম্মেদ, মুফতি আব্দুল্লাহ কাসেমী,  মাওলানা আব্দুল গফুর, মুফতি ওয়াজেদ ফুরকানী, মাওলানা সাদ বিন মুজাম্মেল, মাওলানা জিয়াউর রহমান, মুফতি বেলাল আহমদ, মাওলানা মতিউর রহমান মাওলানা আব্দুস শুকুর,  মুফতী সাদ বিন আমীর কাসেমী,মুফতি মাসুম বিল্লাহ, মাওলানা মুস্তাফিজুর রহমান, মাওলানা আব্দুস সামাদ, মাওলানা আবুল কাশেম, মাওলানা আবু সুফিয়ান, সৈয়দ মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন, মুফতি ওবায়দুর রহমান, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা আতাউর রহমান,মাওলানা আব্দুল জব্বার, মুফতি রেজাউল হক আব্দুল্লাহ, মাওলানা আব্দুল মজিদ দয়গরী, মাওলানা আবুল খায়ের ইব্রাহিম , মাওলানা আব্দুল কবির খান, মাওলানা মশিউর রহমান, মাওলানা আব্দুর রহমান, মাওলানা জাকারিয়া, মুফতি আবুল হাসান, মাওলানা আব্দুল গফুর , মুফতি ফারুক আহম্মেদ নোমানী, মুফতি আব্দুল্লাহ শাহবাজপুরী, মাওলানা আব্দুল গফুর, মুফতি ওয়াজেদ আলী, মাওলানা আব্দুল খায়ের, মুফতি বেলাল উদ্দিন শরীয়তপুরী, মাওলানা মাসুদ আহম্মেদ, মাওলানা আব্দুস শুকুর আহম্মেদ, মাওলানা তাওহীদ আহম্মেদ, মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, মাওলানা রুহুল আমিন, মাওলানা সালাম কাসেমী, মাওলানা মোস্তাক আহমদ, মাওলানা শরীফুল ইসলাম, মাওলানা জুনাইদ আহমদ, মাওলানা মোজাম্মেল হক, মাওলানা আব্দুল আজিজ,মাওলানা আব্দুল বারেক, মাওলানা এনায়েত হোসেন, মাওলানা সাইফুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক, মাওলানা তোফাজ্জল, মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, মাওলানা রুহুল আমিন, শাইখুল হাদিস মাওলানা সুলাইমান সিলেটী, শাইখুল হাদীস মাওলানা ফারুক আহমদ, মাওলানা হাবিবুল্লাহ সিরাজী, মাওলানা ফজলুর করীম কাসেমী, মাওলানা মাহবুবুর রহমান, মাওলানা আব্দুল্লাহ শাকির, মাওলানা শাকিল আহমদ, মাওলানা শরীফুল ইসলাম, মুফতী মিজানুর রহমান বোখারী, মাওলানা মোজাম্মেল হক, মাওলানা আব্দুল আজিজ,মাওলানা আব্দুল কাদির, মুফতী এনায়েত উল্লাহ, মাওলানা সাইফুল ইসলাম, মাওলানা ফয়সাল আহমদ, মাওলানা নূরুজ্জামান, মাওলানা আশরাফুজ্জামান, মাওলানা মোঃ ফয়সাল, মাওলানা নূরে আলম, মাওলানা কামাল আহমদ, মাওলানা মুখলেসুর রহমান ফয়েজী, মুফতি নেয়ামত উল্লাহ, মুফতি শরীফুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুল কবির,  মাওলানা তোফাজ্জল হক মুন্সি,মাওলানা ইসলাম উদ্দিন, মাওলানা শরিফ আহমদ, মাওলানা নুরুল আলম, মাওলানা বদরুল ইসলামসহ শতাধিক আলেম।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »




সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]