শুক্রবার ● ২ অক্টোবর ২০২০ ● ১৭ আশ্বিন ১৪২৭ ● ১৩ সফর ১৪৪২
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
চ্ট্টগ্রামে শর্তে খাবারের রেষ্টুরেন্ট খোলা রাখার অনুমতি সিএমপি’র
নয়ন কান্তি ধুম, চট্টগ্রাম জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশ: সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০, ১১:৩৩ এএম | অনলাইন সংস্করণ

চ্ট্টগ্রামে শর্তে খাবারের রেষ্টুরেন্ট খোলা রাখার অনুমতি সিএমপি’র

চ্ট্টগ্রামে শর্তে খাবারের রেষ্টুরেন্ট খোলা রাখার অনুমতি সিএমপি’র

চট্টগ্রামে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ ও বিস্তার প্রতিরোধ এবং আক্রান্ত ব্যক্তিদের ব্যবস্থাপনা বিষয়ক এক সমন্বয় সভায় জনগণের সুবিধার কথা বিবেচনা করে খাবার দোকান ও রেস্টুরেন্ট খোলা রাখার সিদ্ধান্ত হয়, তবে দোকানে আড্ডা না দিয়ে খাবার কিনে বাসায় নিয়ে যাবার শর্ত প্রযোজ্য। 

রবিবার (২৯ মার্চ) সকাল ১১:০০ ঘটিকায় দামপাড়া পুলিশ লাইন্সস্থ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ সদর দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এই সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ(সিএমপি) কমিশনার জনাব মোঃ মাহাবুবর রহমান, বিপিএম, পিপিএম। উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ. জ. ম নাছির উদ্দীন। এছাড়া চট্টগ্রাম মহানগরীর সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সভায় সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং, হোম কোয়ারেন্টিন, প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন, আইসোলেশন, লকডাউন সিদ্ধান্ত ও বাস্তবায়ন, আক্রান্ত ব্যক্তির ইভাকুয়েশন, করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসা, করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করলে গৃহীত কার্যক্রম, চিকিৎসক, চিকিৎসাকর্মী, পুলিশ ও অন্যান্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের করোনা ভাইরাস সুরক্ষার জন্য করণীয়, টেলিমেডিসিন, এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস, থানা পুলিশ ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর কর্তৃক এলাকাভিত্তিক করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তিদের সন্ধান, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতা ব্যবস্থা, ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ মূলক ব্যবস্থা, বিভিন্ন সংস্থা কর্তৃক ডিসইনফেকশন কার্যক্রম, জরুরী সেবা-৯৯৯, ফোকাল পয়েন্ট নির্ধারন ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

উক্ত সমন্বয় সভায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বা সন্দেহভাজন সংবাদ এলে করণীয়, পরীক্ষায় করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিশ্চিত হলে করণীয়, বাসা বিল্ডিং/এলাকা লকডাউন প্রক্রিয়া, আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যুতে করণীয়, সন্দেহভাজন মৃত্যুর ক্ষেত্রে করণীয় ইত্যাদি বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা সহ একটি SOP তৈরির প্রস্তাবনা করা হয়।

এছাড়া সভায় করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নিম্মোক্ত সিদ্ধান্তগুলো গ্রহণ করা হয় :

০১। সার্বক্ষণিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তদারকি।

০২। কেউ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে সেই রোগীকে এ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নেয়া।

০৩। সিএমপি’র হটলাইনে (০১৪০০৪০০৪০০)ফোন করলে মহানগরে কর্মরত ডাক্তারগনকে যাতায়াতের সুবিধা প্রদান।

০৪। সেনাবাহিনী, পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, ওয়াসা ও সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক সমন্বিতভাবে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় জীবাণুনাশক ঔষধ ছিটানো।

০৫। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কোন ব্যক্তি মারা গেলে তার দাফন/সৎকারের জন্য নগরীর একটি কবরস্থান/সৎকারের স্থান কে নির্দিষ্ট করা ও এ সংক্রান্ত টিম গঠন করা।

০৬। আইসিইউ (ICU) সুবিধা সম্বলিত একটি হাসপাতালকে ডেডিকেটেড করা।

০৭। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ও ঔষধের মজুদ ও মূল্যবৃদ্ধি সংক্রান্তে নজরদারি বৃদ্ধি করা।

০৮। সিভিল সার্জন কর্তৃক টেলিমেডিসিন সুবিধার জন্য দক্ষ ডাক্তারদের নিয়ে একটি টিম গঠন করা ।

০৯। আইসিইউ তে দায়িত্ব পালন করার জন্য ডাক্তার ও নার্স এর সমন্বয়ে টিম গঠন এবং কর্মরত ডাক্তারদের থাকা-খাওয়ার ব্যাপারে আইসোলেটেড হোমের সুব্যবস্থা করা।

১০। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য নিয়োজিত ডাক্তারদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করতে PPE সহ প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি সরবরাহ করণ সহ তাদেরকে মানসিকভাবে উৎসাহিত করতে সকলের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা।

১১। জনগণের সুবিধার জন্য দোকানে আড্ডা না দিয়ে খাবার কিনে বাসায় নিয়ে যাবার উদ্দেশ্যে খাবার দোকান ও রেস্টুরেন্ট খোলা রাখা, ইত্যাদি।

স্থানীয় কাউন্সিলরসহ জনপ্রতিনিধিগনদের সম্পৃক্ত করে সকলের সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে করোনা ভাইরাস এর বিরুদ্ধে সফলতা আসবে বলে উপস্থিত সবাই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এসময় সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) জনাব আমেনা বেগম, বিপিএম-সেবা; অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) জনাব এস. এম. মোস্তাক আহমেদ খান বিপিএম, পিপিএম (বার); অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) জনাব শ্যামল কুমার নাথ;জনাব অহিদ সিরাজ চৌধুরী স্বপন, সদস্য সচিব, কমিউনিটি পুলিশিং কমিটি, চট্টগ্রাম মহানগর, চট্টগ্রাম; ডাক্তার হাসান শাহরিয়ার কবীর,পরিচালক( স্বাস্থ্য), চট্টগ্রাম বিভাগ ও সদস্য সচিব – ফোকাল পয়েন্ট , করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও মোকাবেলায় গঠিত বিভাগীয় কমিটি,চট্টগ্রাম ; জনাব আসিফ ইকবাল, সহকারী পরিচালক, এনএসআই, চট্টগ্রাম; মেজর শামীম, টু আইসি, র‌্যাব-০৭; ডাঃ এসকে ফজলে রাব্বী, সিভিল সার্জন, চট্টগ্রাম জেলা; জনাব বদিউল আলম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, চট্টগ্রাম জেলা; জনাব মোঃ আকলাকুল আরেফিন, উপ-পরিচালক, ডিজিএফআই, চট্টগ্রাম; জনাব বিকাশ চন্দ্র দাস, জেলা কমান্ড্যান্ট, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী, চট্টগ্রাম; জনাব প্রফেসর ডাঃ মজিবুল হক, সভাপতি, বিএমএ,চট্টগ্রাম; জনাব ডাঃ ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক, বিএমএ, চট্টগ্রাম; জনাব মোঃ শামসুদ্দোহা, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মেজর সাঈদ, GSO-2, চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট; ডাঃ আফতাবুল ইসলাম, ডিডি, চমেক হাসপাতাল; ডাঃ আহমেদ রসুল, তত্ত্বাবধায়ক, বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতাল, চট্টগ্রাম সহ পুলিশের অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ও সরকারী -বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






https://www.dailyvorerpata.com/ad/BHousing_Investment_Press_6colX6in20200324140555 (1).jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/431205536-ezgif.com-optimize.gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: vorerpata24@gmail.com news@dailyvorerpata.com