মঙ্গলবার ● ৭ এপ্রিল ২০২০ ● ২৩ চৈত্র ১৪২৬ ● ১২ শাবান ১৪৪১
পাথরখনি লকডাউন, বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের অবস্থান ধর্মঘট
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ, ২০২০, ৫:২৩ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

পাথরখনি লকডাউন, বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের অবস্থান ধর্মঘট

পাথরখনি লকডাউন, বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের অবস্থান ধর্মঘট

মধ্যপাড়া কঠিনশিলা খনির শ্রমিকেরা তাদের বকেয়া বেতন ভাতার দাবিতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জার্মানিয়া ট্রেস্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি) এর কর্মকর্তাদের ১৪ ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে। তবে, খনি কর্তৃপক্ষ আগামী ৭ এপ্রিলের মধ্যে তাদের বকেয়াসহ চলতি মাসের বেতন পরিশোধ করার প্রতিশ্রুতি দিলে আজ বুধবার বেলা ১২টায় শ্রমিকরা তাদের অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়। 

জানা যায়, মধ্যপাড়া কঠিনশিলা খনির ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জিটিসির অধীনে সহস্রাধিক বাংলাদেশি শ্রমিক খনির ভূগর্ভস্থ ও উপরিভাগে কাজ করেন। এসব শ্রমিককে গত ফেব্রুয়ারি মাসের বেতন পরিশোধ করা হয়নি। তা ছাড়া চলতি মার্চ মাসের বেতন বকেয়া রেখে মঙ্গলবার রাত ৯টায় খনির উৎপাদনসহ সব বিভাগের কাজ বন্ধ ঘোষণা করে নোটিশ ঝুলিয়ে দেয় জিটিসি।

জিটিসির ড্রিলিং অ্যান্ড ব্লাস্টিং অপারেটর মো. রফিকুল ইসলাম বুধবার বেলা ১টায় বলেন, আমাদের শ্রমিকদের ফেব্রুয়ারি মাসের বেতন না দিয়ে মঙ্গলবার রাত ৯টা থেকে খনির কার্যক্রম বন্ধের নোটিশ ঝুলিয়ে দেওয়া হলে শ্রমিকদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

মধ্যপাড়া কঠিন শিলাখনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) কামরুজ্জামান বলেন, জিটিসির কাছে শ্রমিকদের পাওনা রয়েছে ফেব্রুয়ারি মাসের পুরো বেতন। এ ছাড়াও চলতি মাসের বেতনও পাবেন তারা। তিনি আরো বলেন, ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সারা দেশ করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউন শুরু হয়েছে। আমরা জিটিসির সঙ্গে কথা বলেছি। আগামী ৭ এপ্রিলের মধ্যে তাদের পাওনা পরিশোধ করার জন্য বলা হয়েছে। শ্রমিকদের আশ্বস্ত করা হয়েছে। 

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জিটিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) যাবেদ পাটোয়ারীর সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও কল রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »




আরও সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]