রোববার ● ৫ এপ্রিল ২০২০ ● ২১ চৈত্র ১৪২৬ ● ১০ শাবান ১৪৪১
দশমিনাবাসীকে করোনা নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হওয়ার আহ্বান উপজেলা চেয়ারম্যানের
দশমিনা প্রতিনিধি
প্রকাশ: বুধবার, ২৫ মার্চ, ২০২০, ৯:৪০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

দশমিনাবাসীকে করোনা নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হওয়ার আহ্বান উপজেলা চেয়ারম্যানের

দশমিনাবাসীকে করোনা নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হওয়ার আহ্বান উপজেলা চেয়ারম্যানের

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলা পরিষদ চেয়রাম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজীজ মিয়া বলেছেন করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করেছে। আমাদের দেশেও ইতিমধ্যেই এই রোগে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এই রোগ নিয়ে এলাকার মানুষ একপ্রকার আতঙ্কে আছে। এলাকার মানুষের প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে, আতঙ্কিত না হয়ে সবাই যেন সচেতন হয়। লক ডাউন সময় কালীন আমরা প্রয়োজন ছাড়া বাইরে না বের হই। 

বুধবার (২৫ মার্চ) করোনাভাইরাস নিয়ে এলাকার মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে  একান্ত স্বাক্ষাত কারে তিনি এসব কথা বলেন তিনি।

চেয়ারম্যান বলেন, ধর্মীয় রীতিনীতি পালন, সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অবলম্বন এবং সরকারের নির্দেশনা মেনে চললে অবশ্যই এই ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে। তিনি এলাকার মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন, দয়া করে এই বিপদে একজন আরেকজনের প্রতি আন্তরিক হবেন। এলাকার বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা আমাদের ভাই। দয়া করে বিদেশ থেকে দেশে এসে ১৪ দিন হোম কোয়ারিন্টনে থাকবেন। পরিবারে আলাদা একটা রুমে কিছুদিন অবস্থান করবেন। এ সময়টুকুতে কোনো অবস্থাতেই বাড়ির বাইরে বের হবেন না। আপনার সচেতনতায় শুধু আপনার পরিবার, সন্তান-সন্তানাদি নয় এলাকার মানুষ শান্তিতে থাকবে,সুস্থ থাকবে, নিরাপদ থাকবে। তিনি বলেন অনেক জায়গায় প্রবাসী ভাইয়েরা দেশে এসে নিজেদের ইচ্ছেমতো ঘুরাফেরা করছে। এই বিষয়ে আমাদেরকে সামাজিক সচেতনতা বাড়াতে হবে। বিদেশ ফেরত ব্যক্তি ছাড়া আমাদের দেশে করোনা ভাইরাস ছড়ার সুযোগ কম। তাই প্রবাসী ভাইদের সচেতন হতে হবে।

চেয়ারম্যান আব্বদুল আজীজ মিয়া বলেন, এলাকার মানুষের সুখে-দুঃখে আমি সব সময় পাশে ছিলাম। আমি আমার সাধ্যের সবটুকু দিয়ে এই বিপদের সময়ে এলাকার মানুষের পাশে থাকবো। তারা যাতে আতঙ্খিত না হয়ে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি করে সুন্দরভাবে জীবন-যাপন করে আমি এলাকার মানুষের কাছে এই আহবান জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, করোনা ভাইরাস নিয়ে সাধারণ মানুষ যখন অনেকটা আতঙ্কে দিনাতিপাত করছে সেই সময়ে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বাড়িয়ে দেয়। আমি ব্যবসায়ীদের প্রতি অনুরোধ করবো, দয়া করে মানুষের বিপদের সময়ে এই কাজ করবেননা। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী বলেছেন দেশে বর্তমানে খাদ্য মজুত আছে। দরিদ্রপীড়িত অসহায় দিনমজুর মানুষদের জন্য সরকারি ভাবে প্রয়োজন অনুযায়ী সাহায্য সহযোগিতা করা হবে।  তারপরও এলাকার গরীব, অসহায় আর সামর্থ্যহীন কোনো পরিবার যদি কোনো সঙ্কটে পড়েন তাহলে তাদের জন্য আমার সহযোগিতার হাত সব সময় থাকবে। তাদের যে কোনো প্রয়োজনে আমি পাশে থাকবো।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »




সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]