বৃহস্পতিবার ● ২৮ মে ২০২০ ● ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ ● ৪ শওয়াল ১৪৪১
করোনা নিয়ন্ত্রণে দশমিনা হাসপাতালে ১৫ সেট পিপিই ড্রেস ছাড়া নেই প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম
দশমিনা প্রতিনিধি
প্রকাশ: বুধবার, ২৫ মার্চ, ২০২০, ৮:৩৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

করোনা নিয়ন্ত্রণে দশমিনা হাসপাতালে ১৫ সেট পিপিই ড্রেস  ছাড়া  নেই প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম

করোনা নিয়ন্ত্রণে দশমিনা হাসপাতালে ১৫ সেট পিপিই ড্রেস ছাড়া নেই প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম

পটুয়খালীর দশমিনায় করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে হাসপাতালে ০৪ টি বেড বরাদ্ধ থাকলেও নেই প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম। এ নিয়ে জনমনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের এ বেড বিশেষ বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। তবে এর জন্য চিকিৎসক ও নার্সদের প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদির ঘাটতি রয়েছে। 

সরেজমিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ঘুরে দেখা যায়, হাসপাতালের নতুন ভবনের ২টি কেবিন পরিস্কার- পরিচ্ছন্ন করে করোনা ভাইরাস নিয়নন্ত্রণে ০৪টি বেডের বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। তবে চিকিৎসা কাজে ব্যবহ্নত, মাস্ক, গাউন, পোষাক,গামবোর্ডসহ প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের অভাব রয়েছে। কোন রোগী পাওয়া গেলে তার চিকিৎসা ব্যাহত হবার আশংকা রয়েছে। 

করোনা নিয়ন্ত্রণে হাসপাতালে অভ্যন্তরীন কমিটি গঠন করা না হলেও কর্তব্যরত হাসপাতালে বর্তমানে ০৯ জন চিকিৎসক ও ২৩ জন নার্স দের নিয়ে সভা করে প্রয়োজনীয় প্রস্ততি গ্রহন করা হয়েছে। হাসপাতালে সরঞ্জামের অভাব রয়েছে বিষয়টি সিভিল সার্জনকে অবগত করা হয়েছে। এদিকে করোনা আক্রান্ত বা সন্দেহজনক কোন রোগী পাওয়া না গেলেও এ রোগ নিয়ে অনেকেই আতঙ্কিত রয়েছেন।স্বাভাবিক জ¦র হলে ডাক্তারকে দেখতে ভয় পাচ্ছেন বলে চিকিৎসা নিতে আসা কয়েকজন রোগী জানান। 

এ ব্যাপারে দশমিনা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে হাসপাতালে সব ধরণের প্রস্ততি রাখা হয়েছে। ১৫ সেট পিপিই ড্রেস এসেছে তবে কিছুটা সরঞ্জামাদির অভাব থাকলেও উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অভহিত করা হয়েছে। শীঘ্রই এসব সরঞ্জাম চলে আসবে।  

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »




সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]