রোববার ● ৩১ মে ২০২০ ● ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ ● ৭ শওয়াল ১৪৪১
করোনাভাইরাস: জেনে নিন কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেশনের পার্থক্য
প্রকাশ: সোমবার, ১৬ মার্চ, ২০২০, ১:২২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাস: জেনে নিন কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেশনের পার্থক্য

করোনাভাইরাস: জেনে নিন কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেশনের পার্থক্য

এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা চার হাজার ছাড়িয়েছে। বিশ্বের ১১৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এ রোগটি। প্রাণঘাতী করোনার প্রভাব বাংলাদেশেও পড়েছে। এখন পর্যন্ত তিনজন ব্যক্তিকে এই রোগে আক্রান্ত বলে নিশ্চিত করেছেন সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)। তবে এর মধ্যে দুইজন শঙ্কামুক্ত বলে জানা গেছে।

করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ রোগ বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই ‘কোয়ারেন্টাইন’ ও ‘আইসোলেশন’ শব্দ দু’টি অনেক বেশি সামনে আসছে। দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর এই দু’টি শব্দ আরো বেশি সামনে আসছে।

অন্য সব সংক্রামক রোগের মতো কোভিড-১৯ রোগের ক্ষেত্রেও ঝুঁকিতে থাকা ও আক্রান্তদের রাখা হয় কোয়ারেন্টাইন কিংবা আইসোলেশন সেন্টারে। দু’টিই চিকিৎসাকেন্দ্র কিংবা হাসপাতালের বিশেষায়িত কক্ষ। তবে এ দু’টি শব্দের মধ্যে কিছু পার্থক্য রয়েছে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক পার্থক্যটি-

কোয়ারেন্টাইন
আপাতদৃষ্টিতে সুস্থ মনে হলেও সংক্রামক রোগের ঝুঁকিতে রয়েছেন এমন ব্যক্তিকে জনসমাগম থেকে আলাদা করে চিকিৎসকের নজরদারিতে রাখার নাম হলো কোয়ারেন্টাইন।

কোয়ারেন্টাইনের সময়কাল নির্ভর করে সংক্রামক রোগ জীবাণুর ছড়িয়ে পড়ার সময়কালের ওপর। উদাহরণস্বরূপ, ইবোলা রোগের সময় কোয়ারেন্টাইনের সময়কাল ছিল ২১ দিন।

আইসোলেশন
অন্যদিকে, আইসোলেশন হলো সংক্রামক রোগে আক্রান্ত ও অসুস্থ ব্যক্তিদেরকে সুস্থ ব্যক্তিদের থেকে আলাদা করে রাখার প্রক্রিয়া। সংক্রমণ রোধে অসুস্থ রোগীদেরকে আইসোলেশনে রাখা হয়।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »




সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]