প্রধান সংবাদ

গুজব ছড়াচ্ছে ছাত্রলীগেরই একটি অংশ: সোহাগ

::উৎপল দাস::

ছাত্রলীগের সভাপতি এম সাইফুর রহমান সোহাগ নিজেই বলেছেন, সংগঠনের ২৯ তম জাতীয় সম্মেলনের আগে ছাত্রলীগেরই একটি অংশ নানা গুজব ছড়াচ্ছে। সোমবার বিকাল ৪ টা ৫৫ মিনিটে ভোরের পাতা অনলাইনে প্রকাশিত
‘ছাত্রলীগের সভাপতিকে প্রশ্ন: তারেক রহমানের কাছ থেকে কত টাকা নিয়েছেন?’ শিরোনামের খবর দৃষ্টিগোচর হওয়ার পর সন্ধ্যা ৭ টা ১৫ মিনিটে এ প্রতিবেদককে ফোন করেন সাইফুর রহমান সোহাগ।

তিনি বলেন, মধুতে ‍দুপুরে যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে তা আংশিক সত্য। আমি নিজেই মারামারি থামিয়েছি। কিন্তু ছাত্রলীগের একটি অংশ যারা কোটা সংস্কার আন্দোলনে ইন্ধন বা উসকানি দিয়েছিল তারা সংগঠনের বিরুদ্ধে নানামুখী গুজব প্রচার করছে। আমি কোনো নেতাকর্মীকে মারামারি করার নির্দেশ দিই না। উল্টো তাদের থামিয়েছি। কিন্তু তারা এখন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে পরিস্থিতি ঘোলাটে করার চেষ্টা করছে।

সাইফুর রহমান সোহাগ আরো বললেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সার্জেন্ট জহিরুল হক হল কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বুলবুল আমাকে কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে কোনো প্রশ্নই করেনি। তিনি এখন বানিয়ে বানিয়ে গুজব রটানোর জন্য, কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিরব ভূমিকা পালন করতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছ থেকে কত টাকা নিয়েছি- এমন কথা বলে বেড়াচ্ছেন। ছাত্রলীগের সভাপতি হিসাবে আমার বিরুদ্ধে এটা জঘন্যতম মিথ্যাচার ছাড়া কিছুই নয়। আমার সঙ্গে সবার সমানেই সহ-সভাপতি আরেফিন সিদ্দিক সুজন সম্মেলনের প্রস্তুতি নিয়ে প্রশ্ন করে, আমি যথারীতি সাংগঠনিক ভাষায় উত্তর দিয়েছি। যথাসময়ে সব কিছু জানানো হবে। নেত্রী যেখানে সম্মেলন করার ঘোষণা দিয়েছেন সেখানে আমরা অবশ্যই চমক দিয়ে স্মরণকালের সবচে সফল সম্মেলন উপহার দিতে চাই।

এদিকে, ছাত্রলীগের সার্জেন্ট জহিরুল হক হল কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বুলবুল বলেন, আমি নিজেই তারেক রহমানের কাছ থেকে টাকা খেয়ে নিরব ছিলেন কিনা এবং কোটা সংস্কার আন্দোলনের নামে ছাত্রলীগের একটি অংশ যারা ইন্ধন জুগিয়েছিলেন তাদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেয়া হবে না, এমন প্রশ্ন করেছিলাম। এরপরই ছাত্রলীগের সভাপতির অনুসারীরা আমাদের ওপর হামলা করে।

তিনি অভিযোগ করেন, সোমবার দুপুরে ঢাবির মধুর ক্যান্টিনে এ প্রশ্ন তোলার সঙ্গে সঙ্গে ছাত্রলীগের সভাপতির অনুসারীরা প্রশ্নকর্তা বুলবুল এবং তার একজন কর্মী মিশকাতের ওপর হামলা করে। এছাড়া কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি আরেফিন সিদ্দিক সুজনকেও মারধর করা হয়। এছাড়া বর্তমান কমিটির উপ নাট্য ও বিতর্ক বিষয়ক সম্পাদক মিশুকে আহত করা হয়।

এ হামলার ঘটনায় ঢাকা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছেন মিশকাত।

Spread the love
  • 63
    Shares

প্রধান সংবাদ | আরো খবর