ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি চলছে

  • ২০-মার্চ-২০১৯ ০৯:৪০ অপরাহ্ন
Ads

ভোরের পাতা ডেস্ক
ম্যাসিভ হার্ট অ্যাটাকের পর সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি চলছে।

বুধবার সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপপ্রধান তথ্য কর্মকর্তা মো. আবু নাছের গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, উনার (কাদের) সুস্থতার জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করা হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার সকালে সিঙ্গাপুরে ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসা সমন্বয়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) পরিচালক ও নিউরোলজিস্ট অধ্যাপক ডা. আবু নাসার রিজভী জানান, ওবায়দুল কাদেরের হার্টে বাইপাস সার্জারি করবেন তার চিকিৎসায় ডা. ফিলিপ কোহের নেতৃত্বে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সিনিয়র সদস্য কার্ডিওথোরাসিক সার্জন ডা. সিবাস্টিন কুমার সামি।

ডা. আবু নাসার রিজভী আরও জানান, ওবায়দুল কাদেরের রক্তচাপ ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এবং শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানিয়েছেন মেডিকেল বোর্ড।

কার্ডিওথোরাসিক সার্জন ডা. সিবাস্টিন কুমার সামি কাদেরের চিকিৎসার সর্বশেষ অগ্রগতি ও সার্জারির বিষয়ে পরিবারের সদস্যদের জানান।

এর আগে সোমবার জানানো হয়েছিল, সব কিছু ঠিক থাকলে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় দুপুর ২টার দিকে ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি করা হবে।

এদিকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতাল থেকে সোমবার সকালে ওবায়দুল কাদের সীমিতভাবে হাঁটাচলা করেছেন। এ সময় তিনি বাংলাদেশের বিভিন্ন বিষয়ে এবং নিউজিল্যান্ডে হামলার ঘটনার খোঁজ নেন।

নিউজিল্যান্ড থেকে ক্রিকেটাররা সবাই নিরাপদে ফিরেছে কিনা সে বিষয়েও জানতে চেয়েছেন। সেতুমন্ত্রীর এ তথ্য কর্মকর্তা আরও জানান, সেতুমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থা জানতে মঙ্গলবার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। এর পর চিকিৎসকরা সিদ্ধান্ত নেবেন তার বাইপাস সার্জারি কখন করবেন।

প্রসঙ্গত ৬৭ বছর বয়সী ওবায়দুল কাদের হৃদরোগ, ডায়াবেটিস ছাড়াও শ্বাসতন্ত্রের জটিল রোগ সিওপিডিতে (ক্রনিক অবস্ট্রাকটিভ পালমোনারি ডিজিজ) ভুগছেন।

গত ৩ মার্চ ভোররাতে শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন।

সেখানে এনজিওগ্রামে তার হৃৎপিণ্ডের রক্তনালিতে তিনটি মেজর ব্লকসহ একাধিক ব্লক ধরা পড়ে। এর মধ্যে একটি ব্লক স্টেন্টিংয়ের মাধ্যমে অপসারণ করেন চিকিৎসকরা।

অবস্থা কিছুটা স্থিতিশীল হলে ৪ মার্চ বিকালে উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

সেদিন রাতেই একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসা শুরু করেন মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

Ads
Ads