নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলায় নিহতদের মধ্যে দুইজন বাংলাদেশি

  • ১৫-মার্চ-২০১৯ ০২:৪৪ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার ঘটনায় দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুই জন। হামলার ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ রয়েছেন আরও তিন বাংলাদেশি। অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত (নিউ জিল্যান্ডেরও দায়িত্বপ্রাপ্ত) বাংলাদেশি হাই কমিশনার মো. সুফিউর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) দুপুরে ফোনে হাইকমিশনার জানান, ‘বাংলাদেশি কমিউনিটির কাছ থেকে জানতে পেরেছি দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। তারা হলেন-ড. মো. আবদুস সামাদ, যিনি একজন অ্যাগ্রোইকোনোমিস্ট (কৃষি অর্থনীতিবিদ) এবং আরেকজন হলেন মিসেস হোসনে আরা বেগম, যিনি ড. ফরিদের স্ত্রী। এছাড়া আরও দুই জন আহত অবস্থায় রয়েছে। তিন জন এখনও নিখোঁজ। নিখোঁজদের মধ্যে ড. সামাদের স্ত্রীও রয়েছেন। ওই মসজিদে তারা নামাজ পড়ছিলেন।’

নিউ জিল্যান্ডের সরকার বা পুলিশের পক্ষ থেকে এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশি দূতাবাসকে কিছু জানায়নি বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

হাই কমিশনার আরও জানান, ‘আমাদের অনারারি কাউন্সেল আগামীকাল ক্রাইস্টচার্চ পৌঁছাবেন। আমাদের ক্রিকেট টিম যাতে নির্ধারিত সময়ের আগেই চলে যেতে পারে সেজন্য আমরা যোগাযোগ করছি।'   

তিনি বলেন, ‘আমরা নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশি কমিউনিটিকে বলেছি তারা যেন শান্ত থাকেন, ঘরে থাকেন, বড় ধরনের কোনও সমাবেশ এড়িয়ে চলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নির্দেশ মেনে চলেন।’

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন জানিয়েছেন, মসজিদে হামলার ঘটনায় ৪০ জন নিহত হয়েছেন।

আজ শুক্রবার (১৫ মার্চ) ক্রাইস্টচার্চের হাগলি ওভালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্ট খেলতে নামার কথা ছিল সেদেশে অবস্থারকারী বাংলাদেশ ক্রিটেট টিমের। হ্যাগলি ওভালের খুব কাছেই আল নূর মসজিদে আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় বেলা দেড়টার দিকে সন্ত্রাসী হামলা হয়। অনুশীলন শেষ করে ওই মসজিদে জুমার নামাজ আদায়ে যান বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা। মসজিদে খেলোড়দের প্রবেশের মুহূর্তে স্থানীয় এক নারী তাদের ভেতরে ঢুকতে নিষেধ করেন। মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার কথা জানান তিনি। ফলে আতঙ্কিত হয়ে আবারও স্টেডিয়ামে ফিরে যান খেলোয়াড়রা। সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

Ads
Ads