'জনগণ বিএনপি-জামায়াতকে যে চপেটাঘাত করেছে সেই ব্যাথা এখনও যায়নি'

  • ৩-মার্চ-২০১৯ ০৫:২৮ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত দেশের জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। যে কারণে ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাদের ব্যাপক ভরাডুবি হয়েছে। জনগণ তাদের যে চপেটাঘাত করেছে সেই ব্যাথা এখনও যায়নি বলে তারা ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উপনির্বাচন এবং উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়নি। 

শনিবার (০২ মার্চ) ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

তথ্যমন্ত্রী বলেন,  ড.কামাল হোসেন বলছেন তিনি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করবেন। যে বিএনপি গণতন্ত্র ছিনতাই করেছিলো সেই বিএনপিকে নিয়ে তিনি নাকি গণতন্ত্র উদ্ধার করবেন। এই বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান বন্দুক উঁচিয়ে গণতন্ত্রকে হাইজ্যাক করেছিল।

ঢাকা উত্তর সিটি নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি নিয়ে বিএনপির বক্তব্য প্রসঙ্গে হাছান মাহমুদ বলেন, সব সময়ই উপনির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম হয়। এটি মাত্র এক বছর সময়ের জন্য উপনির্বাচন। তাছাড়া ওইদিন আবহাওয়া বিরূপ ছিলো। ভোটের দিন সাধারণ ছুটি মিলিয়ে তিন দিনের ছুটি ছিলো। সব মিলিয়ে ভোটারের যে উপস্থিতি ছিলো এটা শুধু বাংলাদেশের জন্য নয়, পৃথিবীর সব দেশের উপনির্বাচনের জন্য এই উপস্থিতি যথেষ্ঠ ছিলো।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে অভূতপূর্ব নির্বাচন হচ্ছে এবং হয়েছে। একইসাথে বাংলাদেশের গণতন্ত্র মজবুত ভিত্তির ওপর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশকে জঙ্গিবাদ মুক্ত করার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর যুগান্তকারী যেসব পদক্ষেপ, সেগুলো বিশ্বব্যাপী প্রসংশিত হচ্ছে।

এই বিষয়গুলো স্ব স্ব দেশে এবং ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট, ইউরোপিয়ান কমিশনসহ কাউন্সিল অব ইউরোপে তুলে ধরতে ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান দলের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্ট, বিএনপি ও জামায়াত বিদেশে অপপ্রচার চালাচ্ছে। এখন কোনো কিছু হলেই বিদেশিদের দুয়ারে দুয়ারে ধরণা দেয় তারা।

এই সব অপপ্রচার রোধে ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের নেতাদের কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশনা দেন তথ্যমন্ত্রী।

Ads
Ads