তাহলে কেন আমরা মাশরাফির অভিমান ভাঙাচ্ছি না?

  • ৩০-Jul-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads


ক্রীড়া ডেস্ক

মাশারাফি বিন মর্তুজা। বাংলাদেশ ক্রিকেটের এক আবগের নাম। বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের ভালবাসার নাম। ক্রিকেট যেমন বাংলাদেশের আবেগের অনেকটা জুড়ে রয়েছে, তেমনই আবেগ জড়িত মাশরাফি নামটার মধ্যেও।

পুরো দলকে বদলে দেওয়া মাশরাফি টি-টোয়েন্টি সিরিজে থাকছেন না। মাশরাফি টি-টোয়েন্টি থেকে আগেই অবসর নিয়েছেন। মাশরাফি একজন নেতাকে কেন অবসর নিতে হলো। সেই সঙ্গে একটা প্রশ্ন বার বার সামনে চলে আসে-মাশরাফিকে টি২০ থেকে সরানো কোন আহাম্মকের কাজ? কারণ মাশরাফি যে নিজে থেকে অবসরে যাননি সেটা দিনের আলোর মতো পরিষ্কার। তাঁর পরিকল্পনায় ছিল আগামী টি২০ বিশ্বকাপ। কিন্তু মাশারফির সেই পরিকল্পনা ভেস্তে দেয় বিসিবি এবং তৎকালীন কোচ হাথুরু। অনেকে আবার এও বলেন হাথুরুর ‘হাথুরুগিরি’র কারণেই ম্যাশ অবসর নেন। আর অবাক করার মতো এরপর থেকেই যেন বাংলাদেশ বদলে যেতে থাকে। তার উৎকৃষ্ট উদাহরণ- প্রোটিয়া সফরে ভরাডুবি।

মাশরাফি একজন নেতা। সে আসলেই বদলে যায় পুরো দল। মাশরাফি বল বা ব্যাট না করলেও চলে, শুধু মাঠে তাঁর উপস্থিতিই বদলে দেয় পুরো দলকে। যা বারবার প্রমাণিত, যার সর্বশেষ উদাহরণ- উইন্ডিজদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়। যেই দলটা টেস্টে ক্রিকেটে মাত্র ৪৩ রানে অলআউট হয়, যে দলটা এক কথায় দেউলিয়া প্রায়। সেই দলটাই মাশরাফির ছোয়ায় অন্যরকম হয়ে গেল।

তাই যখন আমি বুঝতে পারছি মাশরাফি ছাড়া আমার আর কোনো নেতা নেই, সে দলের অপরিহার্য অংশ। দলকে সামনে নিয়ে যেতে হলে, বিশ্বসেরাদের কাতারে যেতে হলে মাশরাফির মতোই একজন নেতা প্রয়োজন টাইগারদের। তাহলে কেন আমরা মাশরাফির অভিমান ভাঙাচ্ছি না? যে মানুষ দেশের জন্য পায়ে সাতবার সার্জারির পরেও খেলে যান ঝুঁকি নিয়ে, তিনি কি দেশের দেশের জন্য তাঁর অভিমান ভাঙ্গাবেন না। হয়তো গলদটা বিসিবির মধ্যেই।

Ads
Ads