মজুরি কাঠামো পর্যালোচনায় কমিটি, শ্রমিকদের কাজে ফেরার আহ্বান

  • ৮-জানুয়ারী-২০১৯ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

তিন দিন ধরে পোশাক শ্রমিকদের টানা বিক্ষোভের প্রেক্ষিতে দেড় মাস আগে ঘোষিত নতুন মজুরি কাঠামো পর্যালোচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এক মাসের মধ্যে মজুরি কাঠামো পর্যালোচনা করে নতুন সিদ্ধান্ত জানানোর কথা বলেছেন নতুন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

মতিঝিলের শ্রমভবনে মঙ্গলবার (৮ জানুয়ারী) মালিক, শ্রমিক সংগঠনের প্রতিনিধি ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে প্রায় দুই ঘণ্টা বৈঠক করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মনুশি ও শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান।

বৈঠকে এক মাসের মধ্যে সমস্যার সমাধান করা হবে বলে আশ্বাস দিয়ে টিপু মুন্সি বলেন, মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের পক্ষ থেকে ৫ জন করে সদস্য নিয়ে পর্যালোচনা কমিটি গঠন করা হবে।

শ্রমিকদের কাজে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, নতুন গ্যাজেটে কেউ যদি বেতন কম পেয়ে থাকে তা চলতি মাসের বেতনের সঙ্গে সমন্বয় করা হবে। অর্থাৎ চলতি মাসের বেতনের সঙ্গে সেই টাকা পরিশোধ করা হবে। সমস্যা সমাধানে কাজ করবে মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটি। তবে সন্ত্রাসী সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন-বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, বিজিএমইএ নেতা আব্দুস সালাম মুর্শেদী, ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়াসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নসহ বিভিন্ন দাবিতে গত রোববার থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ শুরু করেন পোশাক শ্রমিকরা। মঙ্গলবারও তারা বিক্ষোভ করেন। সকাল ৯টায় মিরপুরের কালশীর এলাকায় ২২তলা গার্মেন্টসের সামনে শ্রমিকরা অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে শ্রমিকদের সঙ্গে বেশ কয়েকবার ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। তবে পরবর্তীতে তাদের সড়কের এক পাশে অবস্থান করতে দেয় পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ৯টা থেকে ২২ তলা গার্মেন্টস এলাকায় পোশাকশ্রমিকরা রাস্তায় অবস্থান নিলে সড়কটিতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ তাদের সরিয়ে দিতে গেলে বেশ কয়েকবার ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। একবার সরে গেলেও শ্রমিকরা আবার অবস্থান নেন।

খাদিজা আক্তার নামে একজন নারী শ্রমিক বলেন, আমাদের ন্যূনতম বেতন কাঠামোর প্রজ্ঞাপন গত ডিসেম্বরে জারি হয়েছে। কিন্তু সেখানে আমাদের সব দাবি-দাওয়া উত্থাপন হয়নি। অপারেটর ও হেলপারের বেতনের মধ্যে অনেক বৈষম্য ও ব্যবধান রয়েছে। আমরা এগুলো দূর করার কথা বলছি।

তিনি অভিযোগ করেন, তাদের জন্য সরকার ঘোষিত নতুন বেতন কাঠামো নির্ধারণ করলেও মালিকপক্ষ তা দিচ্ছে না।

দেশের রপ্তানি আয়ের প্রধান খাত তৈরি পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি আট হাজার টাকা নির্ধারণ করে গত ২৫ নভেম্বর গেজেট প্রকাশ করে সরকার। ডিসেম্বরের ১ তারিখ থেকে তা কার্যকর করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল সেখানে।

 

/কে 

Ads
Ads