নির্বাচনে যাওয়া মোটেও সম্ভব নয়: ফখরুল

  • ২৬-Oct-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, তারা (সরকার) কাটাছেড়া করে নিজের ইচ্ছে মত  যে সংবিধান তৈরি করেছে, সেটা জনগণের কাছে মোটেও গ্রহণযোগ্য না। আর এই সংবিধানের দোহাই দিয়েই তারা নির্বাচনের কথা বলছে। এই নির্বাচনে যাওয়া  মোটেও সম্ভব নয়।

শুক্রবার (২৬ অক্টোবর) যুবদলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীকে বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এ কথা বলেন তিনি।

২০১৪ সালের মতোই সরকার একতরফা নির্বাচন করে ক্ষমতায় আসতে চায় বলেও অভিযোগ করেন ফখরুল। বলেণ, আর এই কাজে সহযোগিতা করছে নির্বাচন কমিশন। এই কমিশন সরকারের আজ্ঞাবহ। সুতরাং তাদের অধীনে কোন সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না।

এ সময় সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করা নেতাদেরকে দলে ফিরিয়ে আনা নিয়েও কথা বলেন ফলরুল। বলেন, তারা (সংস্কারপন্থী) আবার বিএনপির সাথে একত্র হয়ে কাজ করতে চায়। এই ইচ্ছা তারা প্রকাশ করেছেন এবং দেশের গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হলে সবাইকেই আমাদের দরকার আছে তাই তাদের দলে নেয়া।

বর্তমান সরকার দেশে স্বৈরতন্ত্র কায়েম করেছে অভিযোগ করে কঠোর আন্দোলনেরও হুমকি দেন বিএনপি মহাসচিব। বলেন, আজকে শুধু বিএনপির নেতৃবৃন্দ নয় যারাই এদেশে গণতন্ত্রের কথা বলছে তাদেরকেই কারাগারে ঢুকিয়ে দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে। এখন দেশে একটা পুরোপুরি ফ্যাসিবাদ প্রতিষ্ঠা করেছেন। এখন তাদের লক্ষ্যই হচ্ছে একটা একদলীয় শাষন ব্যাবস্থা প্রবর্তন  করা যেটার লক্ষেই তারা চলেছে। কিন্তু এদেশের জনগণ কখনই এটা মেনে নেবে না এবং তাদের এই গণতন্ত্রকে টিকিয়ে রাখতে তারা কঠোর আন্দোলনের মধ্যে দিয়েই এই স্বৈরতান্ত্রিক সরকারকে বিদায় করবে।

জিয়াউর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ফখরুল বলেন, তারা প্রত্যয় ঘোষণা করেছেন যে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করার জন্য তারা যে সংগ্রাম করছে সেটার সফলতা অর্জন না হওয়া পর্যন্ত এটা অব্যাহত রাখবেন।

/ই 

Ads
Ads