প্রমাণ হয় এরা কতটা দেউলিয়া: কাদের

  • ১৯-Oct-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ঐক্যফ্রন্ট বিদেশীদের আস্থায় আনতে চায়। জনগণের আস্থায় তাদের কোন প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না। যদি জনগণের প্রতি তাদের আস্থা থাকত তাহলে ঐক্যফ্রন্ট গঠণের পর তারা জনগণের কাছে যেত। ঐক্যফ্রন্ট গঠণের পর প্রথম তারা সাক্ষাৎ করেছে বিদেশীদের সাথে, তারা জনগণের কোন সমাবেশে যায়নি। এর মধ্যে দিয়ে প্রমাণ হয় এরা কতটা দেউলিয়া, এরা কতটা জনসমর্থনহীন। এরা ভাল করেই জানে ১০ বছর ধরে আন্দোলনের ডাক দিয়ে বারে বারে ব্যর্থ হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ অক্টোবর) বিকেলে গাজীপুরের চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারের কাজ পরিদর্শনকালে তিনি এ দাবি করেন।

সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের যে সমাবেশ হওয়ার কথা ছিল, তা নিরাপত্তাজনিত কারণে আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে বলে দাবি করে কাদের বলেছেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান তো তাদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। এত বড় বড় নেতা, জাতীয় নেতারা সিলেট যাবেন। তাদের নিরাপত্তা তো দেখতে হবে। সিলেটের সমাবেশ বন্ধ করা হয়নি, আপাতত স্থগিত করা হয়েছে।

আগামী ২৩ অক্টোবর সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ করার কথা ছিল। কিন্তু সিলেট মহানগর পুলিশ তাদেরকে সমাবেশ করতে অনুমতি দেয়নি। জানা গেছে, গত বুধবার সিলেট বিএনপির পাঁচ সদস্যের এক প্রতিনিধি দল মহানগর পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়ার সঙ্গে দেখা করে সমাবেশ করার অনুমতি চেয়ে একটি চিঠি দেয়। তবে তাদের এ আবেদনে সাড়া দেয়নি কর্তৃপক্ষ। আজ এ প্রসঙ্গেই ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

মওদুদ আহমদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, মওদুদ আহমদের গলার জোর ছাড়া কিছু নেই। তার চাপাবাজি ছাড়া আর কিছু নেই। রাস্তায় জনগণকে ডাক দিক না, জনগণ তাঁকে সাড়া দেয় কি না? তারা আন্দোলন কি জনগণ ছাড়া করবে? কেউ এখন আন্দোলনের দিকে তাকিয়ে নেই। সবাই উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দেবে, সেই আশা করে জনগণ নির্বাচনমুখী হয়ে পড়েছে। নির্বাচনমুখী জনগণকে ১৫ থেকে ২০ দিনে আন্দোলনমুখী করা কিছুতেই সম্ভব নয়।

 

/কে 

Ads
Ads