ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হচ্ছেন ছাত্রলীগের শোভন-রাব্বানী

  • ২-Sep-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

শিক্ষা, শান্তি ও প্রগতির পতাকাবাহী সংগঠন, জাতির মুক্তির স্বপ্নদ্রষ্টা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া, জীবন ও যৌবনের উত্তাপে শুদ্ধ সংগঠন, সোনার বাংলা বিনির্মাণের কর্মী গড়ার পাঠশালা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।বিদ্যার সঙ্গে বিনয়, শিক্ষার সঙ্গে দীক্ষা, কর্মের সঙ্গে নিষ্ঠা, জীবনের সঙ্গে দেশপ্রেম এবং মানবীয় গুণাবলির সংমিশ্রণ ঘটিয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ অতিক্রম করেছে পথচলার ৭০ বছর। ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি সময়ের দাবিতেই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা করেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সময়ের প্রয়োজন মেটাতেই এগিয়ে চলা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের। জন্মের প্রথম লগ্ন থেকেই ভাষার অধিকার, শিক্ষার অধিকার, বাঙালির স্বায়ত্তশাসন প্রতিষ্ঠা, দুঃশাসনের বিরুদ্ধে গণঅভ্যুত্থান, সর্বোপরি স্বাধীনতা ও স্বাধিকার আন্দোলনের ছয় দশকের সবচেয়ে সফল সাহসী সারথি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

তবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ২৯ তম সম্মেলনের প্রায় আড়াই মাস পর নতুন কমিটির শীর্ষ নেতাদের নাম ঘোষণা করা হয়। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সার্বিক তত্ববধানে এ কমিটিতে সভাপতি হিসাবে  রেজানুল হক চৌধুরী শোভনকে সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ঘোষণা করা হয়। গত ৩১ জুলাই তাদের নাম ঘোষণা করা হয়। পরের দিন থেকে শোকের মাস আগস্ট শুরু হয়ে যাওয়ায় নেতাকর্মীদের ফুলেল শুভেচ্ছা এতদিন গ্রহণ করতে পারেননি ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতা। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি তরিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক শেখ জয়নুল আবেদিন রাসেল ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি সারাদেশ থেকেই নেতাকর্মীরা ছুটে আসছেন প্রিয় নেতৃত্বকে শুভেচ্ছা জানাতে। 

এদিকে, সেপ্টেম্বরের শুরুর দিন থেকে ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হচ্ছেন  সভাপতি রেজানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। 

এবার নতুন কমিটিতে নেতৃত্ব বাছাই করতে গিয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও ছাত্রলীগের অভিভাবক শেখ হাসিনা নিজেই গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে বিস্তারিত খোঁজ খবর নিয়ে বাছাই করেছেন। 

Ads
Ads