বি. চৌধুরী ও ড. কামালকে পেটালে যত টাকা পুরষ্কার দিবেন তারেক রহমান

  • ১৮-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

ভোরের পাতা ডেস্ক

 যুক্তফ্রন্ট গঠন করার নামে বিএনপির একাধিক সিনিয়র নেতার কানে কুপরামর্শ দেওয়ার অপরাধে এবার বিকল্প ধারার প্রেসিডেন্ট বদরুদ্দোজা চৌধুরী এবং গণফোরামের সভাপতি ও বিশিষ্ট আইনজীবী ড. কামাল হোসেনকে শায়েস্তা করার ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। ১৫ আগস্ট গভীর রাতে রিজভী আহমেদকে ছাত্রদলের ভাড়াটিয়া গুণ্ডা দিয়ে এই দুই বৃদ্ধ নেতাকে শায়েস্তা করার আদেশ দেন তারেক।
পল্টন বিএনপি পার্টি অফিস সূত্রে জানা যায়, এই মিশন বাস্তবায়ন করার জন্য ইতোমধ্যে পল্টন থানা ছাত্রদলের এক নেতাকে দায়িত্ব দিয়েছেন রিজভী। এই দুই নেতাকে প্রকাশ্যে আক্রমণ করে শারীরিকভাবে হেনস্থার পর সরকারের ওপর দায় চাপানোর জন্য ৫০ হাজার টাকার পুরষ্কারও ঘোষণা দিয়েছেন তারেক।

লন্ডন বিএনপি সূত্র জানা যায়, বিগত কয়েক মাস ধরে যুক্তফ্রন্ট নামের রাজনৈতিক জোট গঠন করার জন্য রাজনীতির মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন বারবার দল পাল্টানো এই দুই বয়োজ্যেষ্ঠ নেতা। উন্নয়ন ও গণমানুষের রাজনীতির বিপরীতে ষড়যন্ত্রে বিশ্বাসী দুই পল্টিবাজ নেতা তৃতীয় শক্তির উত্থানে বিদেশি একটি দূতাবাসের হয়ে গোপনে কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের এই অশুভ উদ্দেশ্য পূরণের জন্য গোপনে বিএনপি, জামায়াতসহ ছোট ছোট রাজনৈতিক দলগুলোর গুরত্বপূর্ণ নেতাদের নিয়ে একাধিক বৈঠক করে আগামী নির্বাচনে ষড়যন্ত্র করে বিদেশি শক্তির সাহায্যে ক্ষমতায় বসলে মন্ত্রীত্ব দেওয়ার লোভ দিয়ে বৈঠক করেন। বয়োজ্যেষ্ঠ নেতাদের আকাশ-কুসুম বক্তব্যে আগামীতে মন্ত্রী হওয়ার স্বপ্নে বিভোর হয়ে আছেন বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল, মির্জা আব্বাস, আবদুল আউয়াল মিন্টুর মতো উচ্চাকাঙ্খি নেতারা। তাদের সাম্প্রতিক আচরণে ষড়যন্ত্রের আভাস পেয়েছেন তারেক রহমান। এই তিন নেতা তারেক রহমানের কঠিন আদেশ অমান্য করে ইচ্ছামত দল পরিচালনা করছেন। কারণ তারা বুঝতে পেরেছেন যে তারেক রহমান বিএনপির রাজনীতিতে অচল। দেশের মানুষ বিএনপিকে আর ক্ষমতায় বসাতে চায় না। যার প্রতিফলন দেখা গিয়েছে সদ্য সমাপ্ত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে। মির্জা ফখরুলদের এমন বেইমানির জন্য বি. চৌধুরী এবং ড. কামাল হোসেনকে দায়ী ভাবছেন তারেক। কারণ তাদের কুমন্ত্রণায় মির্জা ফখরুলরা বেঁকে বসেছেন।
সুতরাং পালের গোদাদের সাফ করতে তাই নতুন মিশনে নেমেছেন তারেক। বৃদ্ধ দুই নেতাকে প্রকাশ্যে পিটুনী দেওয়া এবং লাঞ্ছিত করার জন্য রিজভীকে দায়িত্ব দিয়েছেন তারেক। তারেকের নির্দেশ পালন করতে পল্টন ছাত্রদলের কিছু নেতাকে ভাড়া করেছেন রিজভী। ছাত্রদলের নেতারা যেখানে বি. চৌধুরী এবং ড. কামালকে দেখবে সেখানেই মারধর করবে এবং সরকার দলীয় স্লোগান দিয়ে পালাবে এমন একটি মিশন ঠিক করা হয়েছে।
তারেক রহমানের মতে, এই নেতাদের ষড়যন্ত্রের কারণে বিএনপিতে ভাঙন ধরেছে। মির্জা ফখরুলরা সরকারের সাথে আঁতাত করে আগামী নির্বাচনে বেগম জিয়াকে ছাড়াই অংশগ্রহণ করারও গোপন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে তারেকের কাছে গোপন তথ্য আছে। তাই বিদ্রোহীদের সর্দারদের শায়েস্তা করে মির্জা ফখরুলদের সতর্ক করা ছাড়া বিকল্প কোনো উপায় দেখছেন না তারেক। আর যারা এই মিশন সফল করবেন তাদের ৫০ হাজার টাকা পুরষ্কার দেওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন তারেক বলে জানা গেছে।

Ads
Ads