বঙ্গবন্ধুর জীবনভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণের দায়িত্বে শ্যাম বেনেগাল

  • ২৭-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

বিশ্বের মহান নেতাদের জীবনী নিয়ে বিভিন্ন সময় চলচ্চিত্র নির্মিত হতে দেখা গেলেও বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে এখনও নির্মিত হয়নি কোনও পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। সেলুলয়েডের ফ্রেমে উঠে আসেনি এই মহান নেতার বর্ণিল জীবনের গল্প।

বিভিন্ন সময়ে কিছু তথ্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুকে দেখা গেলেও মূল ধারার কোনও চলচ্চিত্রের ক্যানভাসে তুলে ধরা হয়নি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালিকে। এবার বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ প্রযোজনায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মিত হতে যাচ্ছে।

এই বিষয়ে দুই বছর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সাক্ষরিত হয়েছিল। সেখানে বঙ্গবন্ধুর ওপর যৌথভাবে চলচ্চিত্র ও ডকুমেন্টারি তৈরির কথা ছিল।

এরপর থেকেই ভারত-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সিনেমা নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু হয়। ভারতের পক্ষ থেকে ছবিটির পরিচালক হিসেবে শ্যাম বেনেগাল, গৌতম ঘোষ এবং কৌশিক গাঙ্গুলির নাম প্রস্তাব করা হয়।

এবার সিনেমাটির ভারতীয় পরিচালকের নাম চূড়ান্ত করেছে বাংলাদেশ সরকার। 

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনভিত্তিক বাংলা ভাষায় চলচ্চিত্র নির্মাণের দায়িত্ব পেয়েছেন ভারতের পরিচালক শ্যাম বেনেগাল।

সোমবার (২৭ আগস্ট) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম এ কথা জানান।

তারানা হালিম বলেন, এই চলচ্চিত্র নির্মাণে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি বিশেষজ্ঞ টিম থাকবে। এই টিমে চলচ্চিত্র বিশেষজ্ঞ থাকবেন। বঙ্গবন্ধুকে চেনেন-জানেন, তার রাজনৈতিক সহকর্মী ছিলেন এমন একজন থাকবেন এবং ব্যক্তি বঙ্গবন্ধুকে চেনেন এমন একজন থাকবেন। চলচ্চিত্র নির্মাতা বা তাদের টিম যে কোনো সাহায্য-সহযোগিতা চাইতে পারবেন।

এই টিম গঠনের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, এছাড়া চলচ্চিত্র নির্মাণে সার্বক্ষণিক সহযোগিতা দিতে বাংলাদেশের পক্ষ থেকেও একজন চলচ্চিত্রকর্মী থাকবেন।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর মতো মহান নেতার জীবন নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ অনেক আগেই হওয়া উচিত ছিল। দেরিতে হলেও গত বছরের ৮ এপ্রিল নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুসারে দুই দেশের যৌথ প্রযোজনায় বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক একটি চলচ্চিত্র ও বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের উপর একটি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণের চুক্তি হয়। ওই চুক্তির শর্তানুযায়ী একটি জয়েন্ট কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটিতে বাংলাদেশের ১০ ও ভারতের ৯ জন সদস্য রয়েছেন। গত ৯ জুলাই নয়াদিল্লিতে জয়েন্ট কমিটির প্রথম সভা হয়। সেখানে ভারত চলচ্চিত্রটি নির্মাণের জন্য তিনজন পরিচালকের নাম প্রস্তাব করে।

তারানা হালিম বলেন, আমরা মনে করি তিনজনই স্বনামে খ্যাত, তারা প্রতিভাবান। কিন্তু আমরা শ্যাম বেনেগালকে নির্বাচন করেছি।

শ্যাম বেনেগালের নাম প্রস্তাবের যৌক্তিকতা তুলে ধরে তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, তিনি পুরস্কারের মধ্যে পদ্মশ্রী, পদ্মভূষণ, দাদা সাহেব ফালকে পুরস্কার পেয়েছেন। এছাড়া তিনি নেতাজী সুভাষ বসুর উপর জীবনীভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন।

চলচ্চিত্রটি আন্তর্জাতিক মানের হবে জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, এই ছবিটির মানের প্রশ্নে কোনো রকম সমঝোতা করতে রাজি নই আমরা। পরিচালকই কলাকুশলী নির্বাচন করবেন। পরিচালক চলচ্চিত্র নির্মাণে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা ভোগ করবেন। দুই দেশের বাইরে থেকেও কলাকুশলী নির্বাচন করতে পারবেন, সেই স্বাধীনতাটা পরিচালকের ওপর থাকবে।

তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধের প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণের বিষয়েও পরবর্তী মিটিং বাংলাদেশে হওয়ার কথা। সেখানে আমরা বাংলাদেশের পক্ষ থেকে পরিচালকের নাম প্রস্তাব করব। তারাও (ভারত) হয়তোবা করবেন। সেই মিটিংয়ে আমরা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব।

বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম নিয়ে বাংলাদেশে যে কোনো মানসম্মত চলচ্চিত্র নির্মাণে তথ্য মন্ত্রণালয় সকল প্রকার সহযোগিতা দেবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ২০২১ সালে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। সেই সময়টাকে টার্গেট করেই ছবির কাজ শেষ করতে চাই। যেহেতু আমরা মানের ক্ষেত্রে কোনো সমঝোতা করব না, তাই সময়টি হয়তো এর চেয়ে বেশি লেগে যেতে পারে।

পরিচালক চলচ্চিত্রটির বাজেট নির্ধারণ করবেন জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, সেই বাজেট ধরে আমাদের এগোতে হবে। চলচ্চিত্রটির খরচ উভয় দেশ বহন করবে। তবে বড় অংশটি বাংলাদেশ সরকার বহন করার প্রস্তাব দিয়েছে। বাংলাদেশ সরকার খরচের ৮০ শতাংশ বহন করতে চায়।

ভারত ইতোমধ্যে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিতর্কিত একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছে। তাদের হাতে বঙ্গবন্ধু সুরক্ষিত থাকবে কি না- এ বিষয়ে তারানা হালিম বলেন, এটা আপনাদের নিশ্চিত করে রাখতে পারি- চলচ্চিত্রের যে পান্ডুলিপিটি হবে সেটি বঙ্গবন্ধুর পরিবারকে দেখিয়ে আমরা কাজ শুরু করতে চাই। বিতর্কের কোনো সুযোগই থাকবে না।

এই চলচ্চিত্রে কারা অভিনয় করবেন- তা পরিচালক ঠিক করবেন বলে জানান তারানা হালিম। তিনি বলেন, আমরা কারো নাম প্রস্তাব করছি না। অভিনেতা অভিনেত্রী বাংলাদেশ থেকে নেয়ার প্রয়োজন রয়েছে। তবে তারা যদি মনে করেন অন্য রাষ্ট্র থেকে নেবেন তাহলে নিতে পারেন।

উল্লেখ্য, চলচ্চিত্রে অসামান্য অবদানের জন্য ভারতের সরকারের তরফ থেকে পদ্ম শ্রী এবং পদ্ম ভূষণ খেতাবে ভূষিত হয়েছেন শ্যাম বেনেগাল। পেয়েছেন ভারতীয় চলচ্চিত্রের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি দাদা সাহেব ফালকে পুরস্কার। মূলত বিকল্পধারা বা প্যারালার সিনেমার জন্য বিখ্যাত হলেও বেশ কিছুদিন আগে নেতাজী সুভাষ বোসকে নিয়ে ছবি বানিয়েও সাড়া ফেলে দেন এই নির্মাতা।

/ই

Ads
Ads