জাতীয় সংগীতকে অবমাননা করছে হেফাজত ও কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা

  • ১৭-Oct-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: নিজস্ব প্রতিবেদক ::

জাতীয় সংগীত না গেয়ে প্রতিনিয়তই দেশের বিভিন্ন স্থানে অবস্থিত হেফাজতে ইসলামীর মতাদর্শের কওমি মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরা অবমাননা করেই চলছে। বর্তমান সরকারের পক্ষ থেকে কওমি মাদ্রাসা স্বীকৃতি এবং তাদের শিক্ষাক্রমকে সরকারিভাবে অনুমোদন দেয়ার পাশাপাশি নানা কার্যক্রম গ্রহণ করলেও তাতে হেফাজতীদের মন ভরছে না। 

মৌলবাদী চিন্তা চেতনায় বিশ্বাসী হেফাজতের পরিচালনায় কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা বাঙালি সংস্কৃতির পরিপন্থীতে বিশ্বাসী। কওমি মাদ্রাসাগুলোতে জাতীয় সংগীত গাওয়া হয় না। এমনকি পহেলা বৈশাখ ও ভাস্কর্য ইসুু্যতে হেফাজত খুব প্রতিক্রিয়াশীল ভূমিকা দেখিয়েছিল। 

এছাড়া বিএনপি-জামায়াতের আমলে কওমি মাদ্রাসাগুলোতে জাতীয় পতাকা পর্যন্ত উত্তোলন করা হতো না। এ অবস্থা থেকে ধীরে ধীরে উন্নতির পথে নিয়ে আসতে কাজ করছে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার। কিন্তু অনেক সুযোগ সুবিধা দেয়ার পরও কওমি মাদ্রাসাগুলোতে জাতীয় সংগীতকে অবমাননা করার বিষয়টি কোনোভাবে মেনে নেয়া যায় না বলে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকী। তিনি এবং বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, যারা আদর্শিকভাবে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিতর্কিত কথা বলে। হাজার বছরের ঐতিহ্য, সংস্কৃতি এবং কৃষ্টিকে অস্বীকার করে তাদের কাছ থেকে এর বেশি কিছু আশা করা যায় না। 

তবু বর্তমান সরকারের উচিত বিষয়টি নজরদারিতে এনে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা। তা না হলে একটি প্রজন্ম জাতীয় সংগীত না শিখেই মৌলবাদী চিন্তাচেতনা নিয়ে বড় হবে। যা জাতির জন্য কখনোই মঙ্গলজনক নয়।

Ads
Ads